এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > চাপ কি বাড়ছে মুকুল রায়ের, জোর জল্পনা রাজ্য রাজনীতিতে, জেনে নিন বিস্তারিত

চাপ কি বাড়ছে মুকুল রায়ের, জোর জল্পনা রাজ্য রাজনীতিতে, জেনে নিন বিস্তারিত

একসময় তৃণমূলের সেকেন্ড-ইন-কমান্ড ছিলেন তিনি। প্রায় তার চোখ দিয়েই গোটা দল দেখতেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলে তৃণমূলে একসময় প্রচারও হয়েছিল। কিন্তু তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে সেই একদা তৃণমূলের সেকেন্ড-ইন-কমান্ড তথা বর্তমান বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের দূরত্ব বাড়তে শুরু করে সারদা কাণ্ডে সিবিআইয়ের জেরা পর্ব থেকেই‌।

যেখানে দলের পক্ষ থেকে সিবিআইয়ের এই একের পর এক নেতাদের ডাকাকে রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র বলে উল্লেখ করা হয়েছিল, সেখানে তৎকালীন তৃণমূলের সেকেন্ড-ইন-কমান্ড মুকুল রায় বলেছিলেন, তিনি সমস্ত রকম সহযোগিতা তদন্তকারী সংস্থাকে করবেন এবং যতবার তদন্তকারী সংস্থা ডাকবে, ততবার তিনি যাবেন।আর এরপর অনেক সময় কেটে গেলে অবশেষে প্রায় বছর দেড়েক আগে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করেন মুকুল রায়।

আর তিনি বিজেপিতে যোগদান করার পর থেকেই তার প্রাক্তন দল তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে অভিযোগ করে বলা হচ্ছিল যে, দুর্নীতি থেকে বাঁচতেই মুকুলবাবু বিজেপিতে গিয়েছেন। তবে বরাবরই সেই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে তদন্তের স্বার্থে তিনি সব সময় সিবিআইকে সহযোগিতা করবেন বলে জানিয়ে দিয়েছিলেন এই হেভিওয়েট বিজেপি নেতা।

তবে মুকুলবাবু যাই বলুন না কেন, তিনি বিজেপিতে যোগদান করার পর তৃণমূলে থাকার সময় তাকে জেরা করা নিয়ে যেভাবে তৎপরতা দেখা গিয়েছিল, বিজেপি নেতা মুকুল রায়কে সেই ভাবে জেরা করছে না সিবিআই বলে নানা মহলে গুঞ্জন সৃষ্টি হয়েছিল।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিকে তলায় তলায় তাকে জেরা পর্বে না ডাকায় সন্তোষ প্রকাশ করতে দেখা গিয়েছিল সেই মুকুলবাবুকেও। কিন্তু বেশিদিন আর সেই সন্তোষ বজায় থাকল না। সূত্রের খবর, সিবিআইয়ের পক্ষ থেকে জেরার জন্য ফের বিজেপি নেতা মুকুল রায়কে ডাকা হতে পারে। আর এই ঘটনা নিয়েই এবার শুরু হয়েছে চাঞ্চল্য। তাহলে কি এবার খাড়ার ঘা নেমে আসছে মুকুল রায়ের গলায়!

অনেকের প্রশ্ন, যে সমস্ত সমালোচকরা বিজেপিতে যোগদান করেছেন মুকুল রায় বলে তাকে জেরা করবে না সিবিআই বলে প্রচার করছিল, এখন তারা কোথায় গেল! অনেকের দাবি, সিবিআই একটি স্ব-শাসিত সংস্থা। তারা কারও কথায় চলে না। আর তাই তো সমালোচকদের সমস্ত মন্তব্যে ছাই ফেলে দিয়ে বিজেপি নেতা মুকুল রায়কেও জেরা করতে উদ্যোগী তারা। আর এতেই প্রমাণ হয় সিবিআই কোনো দুর্নীতির সঙ্গে আপোষ করে চলে না।

কিন্তু গেরুয়া শিবিরের একাংশ বা রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের অনেকে এই ঘটনাকে নিরপেক্ষ বলে আখ্যা দিলেও তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়া মুকুল রায়কে সিবিআইয়ের পক্ষ থেকে ফের জেরার জন্য ডাকা হলে তিনি যে কিছুটা হলেও অস্বস্তিতে করতে পারেন, সেই ব্যাপারে একপ্রকার নিশ্চিত বিশ্লেষকরা‌। কিন্তু এই প্রসঙ্গে ঠিকই বলছেন মুকুলবাবু?

সূত্রের খবর, সিবিআইয়ের জেরা প্রসঙ্গে এদিন এই বিজেপি নেতা বলেন, “আগেও আমি সিবিআইকে সহযোগিতা করেছি। ডাক পেলে আমি আবারও যাব।” তবে চুল পাকানো রাজনীতিবিদ মুকুল রায় মুখে বা বাইরে আত্মপ্রত্যয়ের ছাপ দেখালেও অতীতের মতই সিবিআইয়ের জেরা পর্বে গিয়ে সফট ব্যাটিং করে জয় নিয়ে আসতে পারেন কিনা, এখন সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!