এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > আবার ফাঁস মুকুল-কৈলাশ ফোনালাপ! এবার সামনে এল বিদেশে ‘ম্যাথুকে’ মোটা টাকা পাঠানোর কথা!

আবার ফাঁস মুকুল-কৈলাশ ফোনালাপ! এবার সামনে এল বিদেশে ‘ম্যাথুকে’ মোটা টাকা পাঠানোর কথা!

গত ২ রা অক্টোবর বিজেপি নেতা মুকুল রায় এবং কৈলাশ বিজয়বর্গীয়র এক কথোপোকথনের অডিও প্রকাশ্যে আসতেই শোনা যায় যে রাজ্যের চার আইপিএস অফিসারকে সিবিআইয়ের ভয় দেখাতে কৈলাশ বিজয়বর্গীয়ের মত কন্ঠস্বরধারী এক ব্যক্তিকে বলছেন মুকুল রায়ের মত কন্ঠস্বরের এক ব্যক্তি। এবারে পাঁচ দিন যেতে না যেতেই ফের সেই মুকুল রায় এবং কৈলাশ বিজয়বর্গীয়র মত কন্ঠস্বরের আর এক বিস্ফোরক ফোনালাপ সামনে আসায় চরম চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হল রাজ্য রাজনীতিতে।

আজ এই অডিও ক্লিপ সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়ার পরেই শোনা যায় যে ফোনের একপ্রান্ত থেকে মুকুল রায়ের কন্ঠস্বরের মত এক ব্যাক্তি বলছেন “হ্যালো, হ্যালো”। আর তারপরেই অপরপ্রান্ত থেকে ঠিক কৈলাশ বিজয়বর্গীয়র গলা ভেসে আসছে। যেখানে বলা হচ্ছে, “হ্যাঁ, মুকুলদা বলুন।” আর তখনই মুকুল রায় বলছেন, “একটা খুব গুরুত্বপূর্ন কথা আছে”। সাথে সাথে কৈলাশ বলছেন, “বলুন”।

আর এরপরেই বাংলার বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের মত কন্ঠধারী কৈলাশ বিজয়বর্গীয়র মত কন্ঠধারীকে বলছেন যে, ম্যাথু (খুব সম্ভবত নারদ স্টিং অপারেশন খ্যাত ম্যাথু স্যামুয়েল) আমাকে জানিয়েছেন যে তার কাছে ১২৪ ঘন্টার দৈর্ঘ্যের এক ফুটেজ রয়েছে, যা প্রকাশ হলেই তৃনমূল শেষ হয়ে যাবে”। মুকুল রায়ের কন্ঠধারীর কথা অনুযায়ী, এরজন্য হংকংয়ে সেই ম্যাথুকে কিছু টাকা পাঠাতে হবে এবং তার পরিমান ২ কোটি!

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না – তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এরপর কিভাবে বিদেশে ম্যাথুর কাছে টাকা পাঠাবেন আর কিভাবেই বা ম্যাথুর কথা বিশ্বাস করবেন তা নিয়ে কৈলাশ বিজয়বর্গীর কাছে জানতে চান মুকুল রায়ের কন্ঠধারী। উত্তরে কৈলাশ বিজয়বর্গীয়র কন্ঠধারী বলেন, “কত টাকা দিতে হবে”? মুকুল রায়ের উত্তর “অগ্রিম ৫০ লক্ষ আর ফুটেজ হাতে পাওয়ার ২০ দিন বাদে আরো দেড় কোটি টাকা”। আর এরপরই মুকুল রায়ের কন্ঠধারীর মুখ থেকে ম্যাথুর এহেন সাহসের কথা শুনে উৎসাহ পান কৈলাশ বিজয়বর্গীয়র কন্ঠধারী।

তৃনমূলকে শেষ করতে এই ‘ফুটেজের’ যদি প্রয়োজন হয় তাহলে তিনি নিজের ঘর বাড়ি বেচে টাকা জোগাড় করবেন বলে জানান মুকুল রায়ের কন্ঠধারী। কিন্তু এইখানেই কিছুটা আশঙ্কিত বাংলার এই বিজেপি নেতার কন্ঠধারী কৈলাশ বিজয়বর্গীয়র কন্ঠধারীকে বলেন, “যে ম্যাথুকে তিনি বিশ্বাস করবেন কি করে”? সাথে সাথেই ফোনের অপর প্রান্ত থেকেই কৈলাশ বিজয়বর্গীয়র কন্ঠধারী বলেন, “ম্যাথু খুব সাহসী, সিংহের মত। যখন বলছেন তখন কিছু একটা করবেন”।

আর এরপরই মুকুল রায়ের কন্ঠধারী কৈলাশ বিজয়বর্গীয়র কন্ঠধারীকে বলেন, “আপনি কথা বলুন। আপনি আমাকে সঙ্কেত দিলেই আমি পরবর্তী পদক্ষেপ নেব”। আর তার পরেই এই দুই বিজেপি নেতার কন্ঠধারীরা যা বললেন তা শুনে চক্ষু চড়কগাছ হয়ে যাবে প্রত্যেকেরই। মুকুল রায়ের কন্ঠধারীর কথা শুনে কৈলাশ বিজয়বর্গীয়র কন্ঠধারী বলেন, “জুয়াটা খেলা যেতে পারে, এই জুয়াটা খেলা উচিত”। সাথে সাথেই মুকুল রায়ের কন্ঠধারী জানান, “ঠিক আছে খেলব। কিন্তু আপনার সাথে (ম্যাথুর) কথা হবার পরে”।

কিন্তু এই অডিও সত্যিই কি সঠিক? এদিন সেই প্রশ্নের উত্তরে সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া এক জবাবে মুকুল রায় বলেন, “আমি আগামীকালই হাইকোর্টের দ্বারস্থ হব। ফোন তো কথা বলারই জন্য, নিজেদের মধ্যে তো আমরা কথা বলবই। কোনোও বেআইনি কথা এদিন বলিনি – সবটাই আদালতকে জানাব”। কিন্তু বিজেপির দুই নেতার ফোনালাপের যে অডিও প্রকাশ্যে এসেছে তা যদি সত্যি হয় তবে বড়সড় চাপের মুখে পড়তে হতে পারে গেরুয়া শিবিরকে। তবে এই মুকুল রায় এবং কৈলাশ বিজয়বর্গীয়র কন্ঠধারীদের ফোনালাপের অডিওর কোনোরূপ সত্যতা যাচাই করে দেখতে পারে নি প্রিয়বন্ধু মিডিয়া।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!