এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > প্রতি মুহূর্তেই দিলীপ ঘোষের নাম দিলেও মুকুল রায়ের নাম একবারও নিচ্ছেন না শোভন? জোর জল্পনা রাজ্যে

প্রতি মুহূর্তেই দিলীপ ঘোষের নাম দিলেও মুকুল রায়ের নাম একবারও নিচ্ছেন না শোভন? জোর জল্পনা রাজ্যে

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে দিয়ে শুরু করে অমিত শাহ, জগৎপ্রকাশ নাড্ডা, অরবিন্দ মেনন, অরুণ সিং এবং বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের নাম দিয়ে বিজেপিতে প্রবেশ করে মন্তব্য করেছেন প্রাক্তন তৃণমূল নেতা শোভন চট্টোপাধ্যায়। কিন্তু আশ্চর্যজনকভাবে তারই প্রাক্তন দলের প্রাক্তন সৈনিক তথা তার আগে বিজেপিতে যোগ দেওয়া মুকুল রায়ের নাম একবারের জন্য মুখে আনলেন না শোভনবাবু।

নতুন দলে পা রেখে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে দিলীপদা বলে সম্বোধন করলেও শোভন চট্টোপাধ্যায়ের মুখেই মুকুল রায়ের নাম একবারও সোনা না যাওয়ায় তৈরি হয়েছে গুঞ্জন। তাহলে কি দিলীপ ঘোষকে বার্তা দিয়ে তার নির্দেশ মোতাবেকই তিনি রাজ্যে কাজ করবেন বলে দিলীপ ঘোষের বিশ্বস্ত হয়ে ওঠার চেষ্টা করলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়! তা নিয়ে উঠতে শুরু করেছে প্রশ্ন।

বস্তুত, গত 2017 সালে 3 নভেম্বর বিজেপিতে প্রবেশ করে মুকুল রায় বলেছিলেন, দিলীপ ঘোষের নেতৃত্বে তিনি রাজ্যে কাজ করবেন। কিন্তু পরবর্তীকালে মুকুল রায় বনাম দিলীপ ঘোষের দ্বন্দ্ব কানাঘুষো শোনা গেছে। তবে শৃঙ্খলাপরায়ন দল হওয়ার কারণে সেই ভাবে দিলীপ ঘোষ বনাম মুকুল রায়ের দ্বন্দ্ব বিজেপির বাইরে আসেনি। যার ফলে সম্প্রতি তৃণমূলের শোভন চট্টোপাধ্যায় বিজেপিতে যোগ দিলে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে দিলীপ ঘোষের সম্পর্কের রসায়ন কি রকম হবে, তা নিয়ে বিভিন্ন মহলে জল্পনা তৈরি হয়েছিল।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

অনেকেই ভেবেছিলেন, হয়ত বা দিলীপ ঘোষ ঘনিষ্ঠ হওয়া অপেক্ষা শোভন চট্টোপাধ্যায় তাঁর পুরনো বন্ধু মুকুল রায়ের হয়েই বিজেপিতে কাজ করবেন। কিন্তু না, তেমনটা তো হলই না। উল্টে বারবার বিজেপিতে প্রবেশ করার পর থেকেই দিলীপ ঘোষের নাম করতে দেখা গেল সেই শোভন চট্টোপাধ্যায়কে। যে জায়গায় বিজেপির সব স্তরের নেতৃত্বের নাম শোভন চট্টোপাধ্যায় মুখে নিলেও বন্ধু মুকুল রায়ের নাম একবারও উচ্চারণ করলেন না।

একাংশের মতে, দেবশ্রী রায় ইস্যুতে মুকুল রায়ের উপর যথেষ্ট ক্ষুব্ধ হয়েছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। আর সেই কারণেই একবারও তার নাম নেননি তিনি। তবে দেবশ্রী রায়ের দিল্লিতে বিজেপি দপ্তরে যাওয়ার ব্যাপারে তিনি কিছুই জানতেন না বলে ঘনিষ্ঠমহলে জানিয়ে দিয়েছেন মুকুল রায়।

অন্যদিকে গত 14 ই আগস্ট রাতে মুকুল রায়ের কাছে ফোন আসে যে, তাকে 15 আগস্ট দিল্লি আসতে হবে।আর তখনই শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিজেপিতে যোগদানের খবর পান তিনি। এদিকে বিজেপির সদর দপ্তরে এসে মুকুল রায় শোভনকে প্রশ্ন করেন যে, কেন তাকে একবারও জানানো হলো না! যদিও বা এই মান অভিমানের সমস্ত পালা কাটিয়ে উঠতে দেখা যায় যোগদানের সময় শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং মুকুল রায়ের কোলাকুলিতে।

কিন্তু এসব কারণের জন্যই কি মুকুল রায়ের নাম নিলেন না শোভন চট্টোপাধ্যায়! যদিও এই ব্যাপারে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের মতামত জানতে তাকে ফোন করা হলেও তিনি ফোন ধরেননি। তবে এই প্রসঙ্গে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, মুকুল রায়কে শোভন চট্টোপাধ্যায় যথেষ্ট সম্মান করেন, হয়তো সাংবাদিক সম্মেলনে তার নাম নিতে ভুলে গিয়েছেন।

কিন্তু বঙ্গ রাজনীতিতে যখন বিজেপির অন্দরে মুকুল রায় সত্যিই একটা বিষয়, তখন সেই মুকুল রায়ের প্রাক্তন দল তৃণমূল কংগ্রেস থেকে বিজেপিতে আসা শোভন চট্টোপাধ্যায় অত সহজে মুকুলবাবুর নাম ভুলে যাবেন, তা মানতে করতে পারছেন না কেউই।

Top
error: Content is protected !!