এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > বুকের পাটা থাকলে ‘নিজেদের’ পুলিশ সরিয়ে নিন, তারপর দেখুন হাল: তৃণমূলকে চ্যালেঞ্জ মুকুলের

বুকের পাটা থাকলে ‘নিজেদের’ পুলিশ সরিয়ে নিন, তারপর দেখুন হাল: তৃণমূলকে চ্যালেঞ্জ মুকুলের

তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েই মুকুল রায় ঘোষণা করেছিলেন আগামী পঞ্চায়েত নির্বাচনেই প্রমাণিত হয়ে যাবে রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের ‘সংগঠন’ বলে কোনো বস্তুই নেই। ‘উইয়ের ঢিপির’ মত তা ঝুরঝুর করে নাকি ভেঙে পড়বে। আর সেই কাঙ্খিত পঞ্চায়েত নির্বাচন আসন্ন। মাত্র তিন সপ্তাহের মধ্যেই হতে চলেছে বঙ্গ রাজনীতির গ্রামীণ ভোটের বর্তমান প্রতিফলন। কিন্তু সেই পঞ্চায়েতের ভোটের মনোনয়নকে ঘিরে ধুন্ধুমার কান্ড রাজ্যের কোনায় কোনায়। একদিকে ‘আক্রান্ত’ বিজেপির অধিক ‘হারার ভয়ে’ তৃণমূল কংগ্রেস ‘নজিরবিহীন’ সন্ত্রাস চালাচ্ছে। অন্যদিকে তৃণমূলের দাবি, এই পঞ্চায়েতে তাদের জয় হতে চলেছে রাজ্যজুড়ে তাদের করা ‘উন্নয়নের’ জোরে, সুতরাং বিরোধীদের মারধরের প্রশ্নই নেই। যা কিছু অশান্তি হচ্ছে তা বিরোধীদের নিজেদের মধ্যে।

আর এই রাজনৈতিক তরজার পরিপ্রেক্ষিতে তৃণমূলকে চূড়ান্ত চ্যালেঞ্জ ছুড়লেন বিজেপির তরফে পঞ্চায়েত ভোটের দায়িত্ত্বপ্রাপ্ত নেতা মুকুল রায়। আজ মেয়ো রোডে গান্ধী মূর্তির পাদদেশে অবস্থান বিক্ষোভ কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে তিনি শাসকদলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের উদ্দেশ্যে এদিন বলেন, বুকের পাটা থাকলে পার্থ চ্যাটার্জি পুলিশ সরিয়ে নিন। মানুষকে মনোনয়ন দিতে বলুন। তাহলেই দেখবেন এই নির্বাচনে আপনাদের কী হাল হয়। পার্থ চট্টোপাধ্যায় মিথ্যা তথ্য তুলে ধরে মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছেন। আমরা অবাধ পঞ্চায়েত ভোট চাই। তাই চাই কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করে পঞ্চায়েত ভোট হোক। কেননা রাজ্যের পুলিশ তৃণমূলের হয়ে কাজ করছে, ভবিষ্যতেও করবে। সাহস থাকলে পার্থবাবু নিজেদের পুলিশকে সরিয়ে নিন – তারপর দেখুন কী হয়। পঞ্চায়েত নির্বাচনে প্রার্থীপদে মনোনয়নপত্র তোলা ও জমাকে কেন্দ্র করে রাজ্য উত্তাল হয়ে উঠেছে। বিরোধী দলের উপর আক্রমণ নেমে আসছে। আমরা এর প্রতিকার চাই। চাই শাসকের বিরুদ্ধে একযোগে গর্জে উঠতে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!