এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > মুকুল মামলার শুনানি আজ, কি হতে চলেছে চাণক্যের সাথে, জেনে নিন

মুকুল মামলার শুনানি আজ, কি হতে চলেছে চাণক্যের সাথে, জেনে নিন

তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পরেই মুকুল রায় দাবি করেছিলেন যে, বিগত বাম সরকারের আমলে তাকে ফাঁসানোর চক্রান্ত করেও কেউ সফলতা অর্জন করতে পারেনি। কিন্তু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তার রাজনৈতিক চরিত্র হননের জন্য বিজেপিতে যোগদানের পড়ে তার বিরুদ্ধে নানা কেস সাজাচ্ছেন। তবে সেই সময় মুকুল রায় সেই দাবিকে মান্যতা দিতে চায়নি কেউই।

কিন্তু সম্প্রতি কোলকাতা পুলিশের পক্ষ থেকে সেই বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হওয়ায় রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত চক্রান্তের অভিযোগ করতে শুরু করেছেন মুকুল অনুগামীরা। প্রসঙ্গত, প্রায় বছর খানেক আগে এক রেল কর্মীর কাছ থেকে হিসেব বহির্ভূতভাবে 80 লক্ষ টাকা উদ্ধারের ঘটনায় মামলা হয়েছিল। যেখানে তদন্তকারীরা মুকুল রায়কে ডেকে পাঠিয়েছিলেন।

কিন্তু কলকাতা পুলিশের অভিযোগ যে, বিজেপি নেতা মুকুল রায় এই তলবের পরও না আসায় গত জানুয়ারি মাসে তাকে ডেকে পাঠানোর জন্য আদালতে আর্জি জানানো হয়েছিল। কিন্তু আদালতের পক্ষ থেকে তিনবার মুকুল রায়কে ডেকে পাঠানো হলেও তিনি সেখানে উপস্থিত হননি।

অবশেষে গত সোমবার হাজিরার দিন থাকলেও মুকুলবাবু সেখানে উপস্থিত না হওয়ায় ব্যাঙ্কশাল আদালতের পক্ষ থেকে তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়। এদিকে সেই গ্রেপ্তারি পরোয়ানায় স্থগিতাদেশ চেয়ে এদিনই দিল্লি হাইকোর্টে আবেদন করেছিলেন মুকুল রায়ের আইনজীবী।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

এদিকে মুকুল রায়ের আইনজীবীর আবেদন মেনে বুধবার মামলার পরবর্তী শুনানি হবে বলে বিচারপতি প্রথমে ঘোষণা করলে পরবর্তীতে রাজ্যের আইনজীবী সিদ্ধার্থ লুথরা সেদিন তার সুপ্রিম কোর্টে আরও একটি মামলা থাকায় এই মামলাটি আরও একদিন পিছিয়ে দেওয়ার আর্জি জানান।

আর এরপরই তার বিরোধিতা করেন মুকুল রায়ের আইনজীবীরা। তার মক্কেলের নামে যেহেতু গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হয়েছে, তাই দ্রুত শুনানির জন্য আবেদন করা হয়েছে বলে জানান মুকুল রায়ের আইনজীবী কবিরশংকর। পরে অবশ্য দুই পক্ষের সম্মতিতে আগামী পয়লা আগস্ট শুনানির দিন ধার্য হয়। আরে এতেই কিছুটা হলেও স্বস্তি পেয়েছেন মুকুল রায়।

তার আইনজীবীদের দাবি, এর ফলে দিল্লি হাইকোর্টে যতদিন না শুনানি হচ্ছে, ততদিন কলকাতা পুলিশ মুকুল রায়কে গ্রেফতার করতে পারবে না। এদিকে এই গোটা ঘটনা নিয়ে এদিন ফের রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেয় বিজেপি নেতা মুকুল রায়।

সূত্রের খবর, এদিন এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “কলকাতা পুলিশ দিল্লিতে এসে আমায় জিজ্ঞাসাবাদ করতে ইচ্ছুক। আমিও তাদের সাহায্য করতে রাজি। কিন্তু এই তথ্য ব্যাঙ্কশাল আদালতে জানানো হয়নি। আমার বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ নেই। শুধুমাত্র সাক্ষী হিসেবে ডাকা হয়েছে। কেউ সাক্ষী হিসেবে আর না দিলে তাকে গ্রেপ্তার করা যায় না আসলে রাজনৈতিকভাবে হেরে গিয়ে এখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমার চরিত্র হননে নেমেছেন।”

সব মিলিয়ে রাজ্য বনাম মুকুল রায় তরজায় এখন শেষ পর্যন্ত কে যেতে, তার দিকে তাকিয়ে থাকার পাশাপাশি আগামী পয়লা আগস্ট আদালতের দিকে নজর রাখতে হবে সকলকেই।

Top
error: Content is protected !!