এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নিজেকে ‘বাংলার বাঘ’ বলে মুকুল রায়কে ‘ইঁদুর’বলে কটাক্ষ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

নিজেকে ‘বাংলার বাঘ’ বলে মুকুল রায়কে ‘ইঁদুর’বলে কটাক্ষ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

‘রাজ্যে পিসি ভাইপোর কোম্পানি চলছে।’-এই ভাষাতেই জঙ্গলমহল থেকে মুখ্যমন্ত্রী ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছিলেন মুকুল রায়। এবার প্রতিআক্রমনের পালা। নাম না করে বিজেপি নেতা মুকুল রায়কে ‘বেনোজল’, “ডাস্টবিন”,”ইঁদুর” বাছা বাছা বিশেষণে আক্রমণ করলেন যুবরাজ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

পুরুলিয়ার পর শনিবার বাঁকুড়ার বড়জোড়ার প্রকাশ্য সভা থেকে এক সময়ের শাসক দলের “সেকেন্ড ইন কমান্ড”-কে ফের হুমকি দিলেন বর্তমানের শাসকদলের ২ নম্বর অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় তিনি এদিন বললেন ,”ওঁকে আমি বাংলা ছাড়া করবই।এটা আমার চ্যালেঞ্জ।” পাশাপাশি তিনি বলেন, “উনি এখন বাংলার ভোটার নন! বাংলা নিয়ে কথা বলার অধিকার আর ওঁর নেই।”সেই সঙ্গেএদিন কার্যত নিজেকে “রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার” ,মুকুল রায়কে ইঁদুরের সাথে তুলনা করে তিনি বলেন,”ভেবেছিলেন অনেক বিপ্লব করবেন। কিন্তু বাংলার বাঘের সঙ্গে লড়তে গেলে একটা বাঘের দরকার হয়! ও তো ইঁদুর। আর ওঁকে চাঙ্গা করতে দিল্লি থেকে বাকি ইঁদুরগুলো আসছে।”

প্রসঙ্গত, বিভিন্ন সভা থেকে শাসকদলকে বিজেপি সহ মুকুলরায়ের তীব্র ও লাগামহীন ভাষায় আক্রমণে তৃনমূলের কর্মীরা পাল্টা দিতে চাইছিলেন এবার অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই মারমূখী জবাবে স্বাভাবিকভাবেই খুশি তৃণমূল শিবির এমনটাই মত রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের।
উল্লেখ্য,এদিন শুধুমাত্র মুকুল রায় নন ,বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে ছেড়ে কথা বলেননি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিনের সভা থেকে তিনি ব্যাঙ্গের সুরে দিলীপ ঘোষের উদ্দেশ্য বলেন ,” সিপিএমের আমলে অনেক হাত,কান কাটা দিলীপ ছিল।এখন এসেছে জিভ কাটা দিলীপ।যাঁর ভাষার কোনও নিয়ন্ত্রণ নেই।” নাম না করে মুকুল রায়, দিলীপ ঘোষের উদ্দেশ্যে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছেন,”ক্ষমতা থাকলে এই জেলায় একটা সিট পেয়ে দেখান।”

একই সাথে দলের অন্দরে নতুন ও পুরোনো কর্মীদের মধ্যে কোন্দলকে ভুলে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। বলেছেন,”ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াই করুন।নিজের এলাকা নিজে দেখুন।বুথস্তরের নেতাকে ব্লকের নেতা,ব্লকের নেতাকে জেলার নেতা ও জেলার নেতাকে রাজ্যস্তরের নেতা হওয়ার প্রয়োজন নেই। যে যার এলাকায় মন দিয়ে সংগঠনটা করুন তাহলেই হবে।”
যদিও বিগত দিনগুলিতে একাধিক গোষ্ঠী কোন্দল নিয়ে স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রীকে দলের উদ্দেশ্যে বার্তা দিতে শোনা গেছে। এবার অভিষেকের কড়া দাওয়াইয়ে কাজ হবে বলেই মনে করছে শাসক শিবিরের জেলা পর্যবেক্ষকদের একাংশ। তৃনমূলের অন্দরে এই ক্ষোভকে কাজে লাগিয়ে রাজ্যের জেলায় জেলায় সভা করে পশে থাকার আশ্বাস দিচ্ছেন মুকুল রায়। ফলে মুখে মুকুল রায়কে আক্রমণ করলেও তাঁর জেলা সফরের দৌলতে পাল্টা ঘাম ঝরাচ্ছে তৃনমূলের যুবরাজ।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!