এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > ফের তৃণমূলের ঘর ভাঙলেন মুকুল রায়, তৃণমূল মানতে নারাজ

ফের তৃণমূলের ঘর ভাঙলেন মুকুল রায়, তৃণমূল মানতে নারাজ


লোকসভা নির্বাচনের আগে রাজ্যের শাসক দলের হেভিওয়েট নেতা নেত্রীদের বিজেপিতে যোগদান করিয়ে রীতিমতো তাক লাগিয়ে দিয়েছেন বঙ্গ রাজনীতির চাণক্য তথা বর্তমান বিজেপি নেতা মুকুল রায়। আর এই মুকুল ম্যাজিকে ভাটপাড়ার হেভিওয়েট তৃণমূল বিধায়ক অর্জুন সিংহও কদিন আগে যোগ দিয়েছে বিজেপিতে।

বর্তমানে ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রে তিনিই বিজেপি প্রার্থী। আর এবার সেই অর্জুন সিংহের দেখানো পথেই বিজেপিতে যোগ দিলেন নৈহাটি পৌরসভার তৃণমূল কাউন্সিলর গনেশ দাস। আর একের পর এক দলের কাউন্সিলার ও বিধায়কেরা তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে অনেকটাই চিন্তার ভাঁজ করতে শুরু করেছে রাজ্য শাসকদলের কপালে। যদিও বা গনেশ দাসের এই দলবদলের কোনো প্রভাব পড়বে না বলে জানাচ্ছে রাজ্যের শাসকদল।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এদিন এই প্রসঙ্গে তৃনমূলের নৈহাটি পুরসভার চেয়ারম্যান অশোক চট্টোপাধ্যায় বলেন, “অর্জুন সিংয়ের প্রতিনিধি হয়েই তৃণমূলের টিকিটে নির্বাচিত হয়েছিলেন এই গণেশ দাস। তাই অর্জুন সিং দলবদল করার সঙ্গে সঙ্গে ও দল ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তাই এই দলবদলে তৃণমূলের কোনো প্রভাব পড়বে না। গনেশ দাসের বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ রয়েছে। অস্ত্রসহ ধরা পড়ে ও একবার জেলও খেটেছে।”

তবে শাসকদল যাই বলুক না কেন, আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বাংলায় গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের লড়াই হবে বলে এদিন ফের একবার মন্তব্য করে শাসকদলের বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিতে দেখা গেছে বিজেপি নেতা মুকুল রায়কে। সব মিলিয়ে ঘাসফুল শিবির ছেড়ে যখন বিধায়ক থেকে কাউন্সিলররা বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন, ঠিক তখনই এই দলবদলে তাদের কোনো প্রভাব পড়বে না বলে সম্পূর্ন ব্যাপারটিকে এড়িয়ে গিয়ে ড্যামেজ কন্ট্রোলের আপ্রাণ চেষ্টা করছে রাজ্যের শাসক দল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!