এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > মুকুল রায়কেই পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী মুখ ভেবে পাল্টালড়ছে তৃণমূল? ফিরহাদ হাকিমের কথায় বাড়ল জল্পনা

মুকুল রায়কেই পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী মুখ ভেবে পাল্টালড়ছে তৃণমূল? ফিরহাদ হাকিমের কথায় বাড়ল জল্পনা

তৃণমূল ছেড়ে মুকুল রায় বিজেপিতে যোগদানের পরই শাসক দল তৃণমূলের কিছুটা হলেও অস্বস্তি বাড়তে শুরু করেছে। তবে প্রকাশ্যে এই ব্যাপারে কোনো কিছু স্বীকার না করলেও এবার বক্তব্য রাখতে গিয়ে সেই মুকুল রায়ই যে তাদের কাছে অন্যতম ফ্যাক্টর হতে চলেছে তা পরিষ্কার করে দিলেন কলকাতা পৌরসভার মেয়র তথা রাজ্যের পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।

সূত্রের খবর, সোমবার বীরভূম লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী শতাব্দী রায়ের সমর্থনে রামপুরহাটের একটি রোড শো করেন রাজ্যের এই হেভিওয়েট মন্ত্রী। সেখানে উপস্থিত ছিলেন কৃষিমন্ত্রী আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়, বীরভূম জেলা তৃণমূলের সহ-সভাপতি অভিজিৎ সিংহ সহ অন্যান্যরা।

আর এই রোড শো শেষে পাঁচমাথা মোড়ের একটি সভা থেকে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়ে ফিরহাদ হাকিম বলেন, “এখানে একটা ফ্লেক্সে দেখলাম, সবার উপরে মোদির পাশে মুকুল রায়ের ছবি। আর দিলীপ ঘোষের ছবি নিচে। আর তা দেখে মনে হল এই দলের নিজের কোনো অস্তিত্ব নেই। তৃণমূল থেকে ভাড়া করে নেতা করতে হয়। মোদি ভাবছে ও আবার ক্ষমতায় আসবে। সে গুড়ে বালি। সাধারণ মানুষকে ধোঁকা দিয়ে ক্ষমতায় আসা যায় না।”

পাশাপাশি মুকুল রায়কে কটাক্ষ করে ফিরহাদ হাকিম আরও বলেন, “উনি মোদিকে বাংলা থেকে দাঁড়ানোর কথা বলছেন। মুখ্যমন্ত্রীর বদান্যতায় রাজ্যসভার সদস্য ও রেলমন্ত্রী হয়েছিলেন। কাঁচরাপাড়ার একটি কাউন্সিলর সিটে জিতে দেখাক, উনি আবার নাকি পশ্চিমবঙ্গে বিজেপিকে আনবে। এটা দিবাস্বপ্ন ছাড়া আর কিছুই নয়।বাংলায় মোদির দুই অনুচর দিলীপ ঘোষ ও মুকুল রায়। এই নিয়ে পশ্চিমবঙ্গে সংগঠন হবে! মমতার সঙ্গে লড়াই করবে? মুকুল রায় মোদিকে বাংলা থেকে দাঁড়ানোর জন্য বলছেন। মুখ্যমন্ত্রীর বদন্যতায় রাজ্যসভার সদস্য ও রেলমন্ত্রী হয়েছিলেন। তাঁর হিম্মত নেই, কাঁচরাপাড়ার একটি কাউন্সিলার সিটে জিতে আসার। তিনি নাকি পশ্চিমবঙ্গে বিজেপিকে আনবেন। কুঁজোর সাধ হয়েছে চিৎ হয়ে শোওয়ার। মুখ্যমন্ত্রী হবেন। এটা তাঁর দিবাস্বপ্ন ছাড়া কিছুই নয়। দাঙ্গার দলকে চিরবিদায় জানান। ”

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, তৃণমূল ছেড়ে মুকুল রায় বিজেপিতে আসার পরই শাসকদলের অনেক হেভিওয়েট নেতা কর্মীরা বিজেপিতে যোগদান করেছেন। যা দেখে কিছুটা হলেও অস্বস্তি বেড়েছে তৃণমূলের। আর তাই বীরভূমের দলীয় প্রার্থীর সমর্থনে বক্তব্য রাখতে উঠে সেই মুকুল রায়কেই নিজেদের মূল প্রতিদ্বন্দ্বী ভেবে নিয়ে বঙ্গ রাজনীতির চাণক্য তথা বর্তমান বিজেপি নেতা মুকুল রায়কে খোঁচা দিলেন তৃনমূলের ফিরহাদ হাকিম বলে মনে করছে পর্যবেক্ষকদের একাংশ।

এদিকে এদিনের সভা থেকে নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধেও একহাত নেন তৃণমূলের এই হেভিওয়েট মন্ত্রী। তিনি বলেন, “নির্বাচন কমিশন বাংলায় এসে মস্তানি দেখাচ্ছি। ওদের কোমরের জোর নেই। মোদি সার্জিকাল স্ট্রাইক ও শহীদদের নিয়ে নির্বাচনী প্রচার করছে, তখন ওরা কিছু করতে পারছে না।” পাশাপাশি বিজেপির পক্ষ থেকে বাংলায় ক্ষমতায় এলে এনআরসি চালু করা হবে বলে জানানো হলে এদিন সেই প্রসঙ্গে ফিরহাদ হাকিম বলেন, “এখানে এনআরসি করতে এলে বাংলার মানুষ ঠ্যাং ভেঙে দেবেন।” অন্যদিকে সিপিএম, বিজেপি ও কংগ্রেস এক হয়ে এবারের নির্বাচনে লড়ছে বলে অভিযোগ করেন রাজ্যের পুরমন্ত্রী।

আপনার মতামত জানান -
Top