এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > তিন সপ্তাহের মধ্যে আত্মসমর্পণের নির্দেশ, বড়সড় অস্বস্তিতে মুকুল রায়

তিন সপ্তাহের মধ্যে আত্মসমর্পণের নির্দেশ, বড়সড় অস্বস্তিতে মুকুল রায়

Priyo Bandhu Media

কিছুদিন আগেই তার বিরুদ্ধে করা রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে প্রতারণামূলক মামলায় কিছুটা হলেও রেহাই পেয়েছেন তিনি। কিন্তু এবার ফের তীব্র অস্বস্তিতে পড়তে হলেও বঙ্গ বিজেপির চাণক্য মুকুল রায়কে। জানা গেছে, কয়েকজন পুলিশকর্মীকে মারধরের অভিযোগ সংক্রান্ত একটি মামলায় বঙ্গ বিজেপির এই নেতাকে তিন সপ্তাহের মধ্যে নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট।

সরকারি কৌঁসুলি শাশ্বতগোপাল মুখোপাধ্যায়ের বক্তব্য অনুযায়ী জানতে পারা গেছে, গত 1 নভেম্বর বিজেপির পক্ষ থেকে কোকওভেন থানা এলাকার মাঠে একটি সমাবেশের অনুমতি চাওয়া হলেও পুলিশের পক্ষ থেকে তা দেওয়া হয়নি। তবে মাঠের ট্রাস্টি বোর্ড সেই সভার অনুমতি দিয়েছে বলে দাবি করে বিজেপি স্থানীয় নেতৃত্ব।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

অভিযোগ, এই সমাবেশে বিজেপির যে সমস্ত দলীয় কর্মীরা যোগদান করেছিলেন, তারা পুলিশকে ব্যাপক মারধর করেন। তবে সরকারি আইনজীবীর পক্ষ থেকে এই অভিযোগ করা হলেও এই মামলায় নিম্ন আদালত থেকে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়েছে। কিন্তু তাদের মক্কেল মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে পুলিশকে মারধরের প্ররোচনা দেওয়ার নির্দিষ্ট কোনো অভিযোগ নেই।

তিনি সমাবেশে যোগ দেওয়ার আগেই গোলমাল বেধেছে। তাই এই মামলায় বেশ কয়েকজন অভিযুক্ত আগেই হাইকোর্ট থেকে জামিন পেয়ে গিয়েছেন বলে দাবি মুকুল রায়ের আইনজীবী কল্লোল মন্ডল এবং রাজদীপ মজুমদারের। কিন্তু সরকারি কৌঁসুলি মুকুল রায়ের আগাম জামিনের তীব্র বিরোধিতা করেন।

আর এরপরই দুই পক্ষের বক্তব্য শুনে সেই বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের আগাম জামিন মঞ্জুর করে ডিভিশন বেঞ্চ নির্দেশ দেয় যে, আগামী তিন সপ্তাহের মধ্যে মুকুলবাবুকে নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ করতে হবে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!