এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > গ্রেপ্তারি নিয়ে নয়া নির্দেশ পেলেন মুকুল রায়, স্বস্তি নাকি অস্বস্তি! জেনে নিন

গ্রেপ্তারি নিয়ে নয়া নির্দেশ পেলেন মুকুল রায়, স্বস্তি নাকি অস্বস্তি! জেনে নিন

Priyo Bandhu Media

 

বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর থেকেই রাজ্য সরকার এবং তৃণমূল কংগ্রেস তার বিরুদ্ধে প্রতিহিংসাপরায়ণ আচরণ করছে বলে অভিযোগ করতেন বঙ্গ বিজেপির সেনাপতি মুকুল রায়। বিভিন্ন ক্ষেত্রে তার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দেওয়া হচ্ছে বলেও অভিযোগের বহর শোনা যেতে তার গলায়। তবে মিথ্যে মামলা দিয়ে তাকে আটকানো যাবে না বলেও রাজ্য প্রশাসনের বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন তিনি। আর এবার রেল বোর্ডের আর্থিক প্রতারণা মামলায় কিছুটা হলেও স্বস্তি পেলেন বিজেপির রাজ্য নেতা মুকুল রায়।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, রেল বোর্ডের কমিটির সদস্য করিয়ে দেওয়ার নাম করে এক ব্যক্তির কাছ থেকে 46 লক্ষ টাকা ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ নাম উঠে আসে বঙ্গ বিজেপি চাণক্যের। আর তারপরই এই কাণ্ডে বিজেপি নেতা বাবান ঘোষকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরবর্তীতে প্রতারণা এবং অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র মামলায় কলকাতা হাইকোর্টে আগাম জামিনের আবেদন করেন মুকুল রায়। আর এবার সেই মামলায় বড়সড় স্বস্তি পেলেন বঙ্গ বিজেপির চাণক্য।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

সূত্রের খবর, মঙ্গলবার হাইকোর্টের বিচারপতি সৈয়দুল্লাহ এবং বিচারপতি মহম্মদ নিজামউদ্দিনের ডিভিশন বেঞ্চ স্পষ্টভাবে জানিয়ে দেয় যে, আদালতের পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারির মত কোনো কড়া পদক্ষেপ নেওয়া যাবে না। বিশ্লেষকদের মতে, রাজ্য পুলিশ প্রতিহিংসাপরায়ণ হয়ে যদি মুকুল রায়কে গ্রেফতার করে নেয়, তাহলে মুকুল রায়ের সম্মান অনেকটাই নষ্ট হতে পারে। আর তাইতো সে দিক থেকে রাজ্য পুলিশের সেই গতিমুখ আটকে আদালতের পক্ষ থেকে মুকুল রায় এই বার্তা পাওয়ায় বিজেপি এবং মুকুলবাবু দুজনেই বড় স্বস্তিজনক অবস্থানে রয়েছেন বলে মনে করছেন ওয়াকিবহাল মহল।

এদিন এই প্রসঙ্গে মুকুল রায়ের আইনজীবী বলেন, “এর সাথে মুকুলবাবু কোনভাবেই যুক্ত নন। তাকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে ফাঁসানো হচ্ছে।” তবে শেষ পর্যন্ত আদালতের পক্ষ থেকেই এহেন নির্দেশ পাওয়ায় আদালতের পরবর্তী নির্দেশ পাওয়ার আগে পর্যন্ত যে মুকুল রায়কে গ্রেফতার করতে পারবে না রাজ্য পুলিশ, এই ব্যাপারে নিশ্চিত প্রায় প্রত্যেকেই। তবে গোটা পরিস্থিতিতে আদালতের পরবর্তী নির্দেশ ঠিক কি হয়, এখন সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!