এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > এবার সরাসরি সিপির বিরুদ্ধে খুনের চেষ্টার মামলা করলেন বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং

এবার সরাসরি সিপির বিরুদ্ধে খুনের চেষ্টার মামলা করলেন বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং

নির্বাচনের পরবর্তী সময় থেকেই বিভিন্ন রাজনৈতিক সংঘর্ষে উত্তপ্ত হতে দেখা গিয়েছিল ভাটপাড়াকে। তবে সম্প্রতি পার্টি অফিস দখল, পাল্টা দখলের রাজনীতিতে ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংহ সেখানে উপস্থিত হলে পুলিশের পক্ষ থেকে মেরে তার মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ ওঠে। যার পড়ি এই গোটা ঘটনায় শাসক দল তৃণমূল ও পুলিশ প্রশাসনের চক্রান্ত রয়েছে বলে অভিযোগ করে গেরুয়া শিবির।

এমনকি পুলিশকর্তার বিরুদ্ধে আহত হওয়া অবস্থাতেই মামলা করারও হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি সাংসদ। যেমন কথা তেমনি কাজ। শেষ পর্যন্ত বারাকপুর পুলিস কমিশনারেটের সিপি মনোজ বর্মার বিরুদ্ধে মামলা ঠুকলেন বিজেপির এমপি অর্জুন সিং।

সূত্রের খবর, শনিবার বারাকপুর মহকুমা আদালতে গিয়ে একটি মামলা করেন তিনি। যেখানে অর্জুন সিংহ বলেন, “জগদ্দল থানার পুলিস আমাদের এফআইআর নিচ্ছে না। তাই আদালতে মামলা করলাম।”

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত রবিবার শ্যামনগরের তেঁতুলতলার একটি পার্টি অফিস দখলদারি ঘিরে অশান্ত হয়ে ওঠে এলাকা। অভিযোগ, বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংয়ের গাড়ি প্রথমে গাড়ি ভাঙচুর করার পর সেই খবর ছড়িয়ে পড়তেই বারাকপুর মহকুমার বিভিন্ন প্রান্তে পথ অবরোধে নামে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এদিকে জগদ্দলের সার্কাস মোড়ে অবরোধ চলাকালীন সেখানে পৌঁছে যান অর্জুন সিংহ। আর সেখানেই বিজেপি কর্মীদের সঙ্গে পুলিশের খণ্ডযুদ্ধ বাধে। পুলিসকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছোঁড়া হয়। যে সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন বারাকপুর পুলিস কমিশনারেটের সিপি মনোজ বর্মা।

তাঁকে রিভলভার হাতে দেখা গেলে অভিযোগ করা হয় যে, তিনি গুলি চালালে মাথায় চোট পান অর্জুন সিংহ। আর এরপরই রক্তাক্ত অবস্থায় তাঁকে প্রথমে ভাটপাড়া স্টেট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হলে পরে সেখান থেকে স্থানান্তরিত করা হয় কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে। দু’দিন ধরে চিকিৎসাধীন থাকার পর অর্জুনবাবু বাড়ি ফেরেন। আর হাসপাতাল থেকে বেরিয়েই অর্জুন সিংহ জানিয়েছিলেন, আদালতে মনোজ বর্মার বিরুদ্ধে তিনি মামলা ঠুকবেন।

জানা যায়, এদিন বারাকপুর মহকুমা আদালতে যান ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি সাংসদ। আর সেখানেই আদালতের এসিজেমের কাছে বারাকপুর পুলিস কমিশনারেটের সিপি সহ অন্যান্যদের বিরুদ্ধে মামলা করেন। জানা গেছে, ৩০৭ অর্থাৎ খুনের চেষ্টা, ৩৪১ অর্থাৎ একত্রিত হয়ে মারধর, ৩২৬ অর্থাৎ হাসপাতালের রিপোর্ট দেখে ব্যবস্থা, এই ধারায় মামলা করা হয়েছে।

এদিন এই প্রসঙ্গে অর্জুন সিংহের আইনজীবী রবীন ভট্টাচার্য বলেন, “মনোজ বর্মা অ্যান্ড আদার্স নামে মামলা হয়েছে। তিন ধারায় মামলা হয়েছে।” অন্যদিকে এই ব্যাপারে অর্জুন সিংহ বলেন, “মনোজ বর্মা আমাকে খুন করতে চেয়েছিলেন। উনিই আমার মাথায় মেরেছেন। পুরোটাই পূর্ব পরিকল্পিত পুলিসের। পুলিস তো থানায় আমাদের অভিযোগ নিচ্ছে না। আমাদের কর্মীদের মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে জেলে ভরছে। তাই আদালতে গিয়ে মামলা করলাম।”

অন্যদিকে এই ব্যাপারে বারাকপুর পুলিস কমিশনারেটের সিপি মনোজ বর্মাকে বারবার ফোন করা সত্ত্বেও তার সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। সব মিলিয়ে এবার হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেই তাকে মারার ঘটনায় ব্যারাকপুরের সিপির বিরুদ্ধে মামলা করলেন অর্জুন সিংহ।

Top
error: Content is protected !!