এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > হেরে গিয়েও মৌসম জিতিয়ে দিয়েছে কংগ্রেসকে, বড়সড় দাবি কংগ্রেসের

হেরে গিয়েও মৌসম জিতিয়ে দিয়েছে কংগ্রেসকে, বড়সড় দাবি কংগ্রেসের

হেরে গিয়েও মৌসম জিতিয়ে দিয়েছে কংগ্রেসকে। মৌসম কংগ্রেসে ছেড়ে তৃণমূলে যাবার পরেই শুরু হয়েছিল টানাপোড়েন।ঘরের মেয়ের মৌসম এর দল ছাড়াকে মেনে নেওয়া খুব একটা সহজ ছিল না কংগ্রেসের কাছে। তারা বড় বার দাবি করেছিল যে মৌসম গেলেও তার সাথে কর্মিদের সমর্থন যায় নি।

অন্যদিকে মৌসমের দাবি ছিল কংগ্রেস ছেড়ে শুধু তিনি নন কংগ্রেস কর্মী সমর্থকরাও তৃণমূলে যোগ দিয়েছে মন থেকে।কিন্তুতৃণমূলের টিকিটে দাঁড়ানো মৌসম বেনজির নূর জয়লাভ করতে পারেনি আর তাই কংগ্রেসের দাবি হেরে গিয়েও আদতে জয় পেলো কংগ্রেস। মৌসম কংগ্রেসকেই জিতিয়ে দিলো। কেননা কংগ্রেসের টিকিটে প্রার্থী হয়ে মৌসম জিতেছে কিন্তু তৃণমূলের টিকিটে দাঁড়িয়ে হেরে গেছে। আর এতেই নৈতিক জয় দেখছে কংগ্রেস।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

কথায় আছে, শত্রুর শত্রু আমার বন্ধু। উত্তর মালদায় এখন যেন সেই ফর্মুলাকেই বড় করে দেখাতে চাইছে হাত শিবির। কেননা এখানে এবার কংগ্রেসের প্রাক্তন নেত্রী মৌসম বেনজির নূর তৃণমূলের টিকিটে দাঁড়িয়েছিলেন। ফলে দলত্যাগী মৌসমকে হারানোর জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছিল কংগ্রেস নেতৃত্ব।

আর সেইমতো ভোটের ফলাফল প্রকাশের পর এখানে যেমন তৃণমূলের মৌসম বেনজির নূর জয়লাভ করতে পারেনি, ঠিক তেমনই কংগ্রেস প্রার্থীও শেষ হাসি হাসেননি। উল্টে এই উত্তর মালদহ কেন্দ্র দখল করেছে বিজেপি।

জানা গেছে, এবারে উত্তর মালদহে বিজেপির খগেন মুর্মু 5 লক্ষ 9 হাজার 524, তৃণমূল প্রার্থী মৌসম বেনজির নূর 4 লক্ষ 25 হাজার 236, কংগ্রেস প্রার্থী ঈশা খান চৌধুরী 3 লক্ষ 5 হাজার 270 এবং বামেদের বিশ্বনাথ ঘোষ 50 হাজার 401 টি ভোট পেয়েছেন। ফলে সেইদিক থেকে এই কেন্দ্রটি বিজেপি দখল করেছে। আর নিজেরা জিততে না পারলেও এই কেন্দ্রে দলত্যাগী তৃনমূলের মৌসম হারায় এখন কিছুটা হলেও খুশি হাত শিবির।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

প্রসঙ্গত, লোকসভা নির্বাচনের আগেই নবান্নে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করে তৃণমূলে যোগদান করেন মৌসম বেনজির নূর। আর তারপরই উত্তর মালদহের তৃণমূলের প্রার্থী হিসেবে সেই মৌসমের নাম ঘোষণা করে দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে দু-দুবার সাংসদ হলেও এবার মৌসম বেনজির নূর তৃণমূলের টিকিটে তার জয় ধরে রাখতে পারেননি।

অনেকে বলছেন, গনি পরিবারের কংগ্রেসের ভোট মৌসম নিজের দিকে টানতে না পারাতেই তার হার হয়েছে। এদিন এই প্রসঙ্গে প্রদেশ কংগ্রেসের সদর দপ্তর বিধানভবনের এক কংগ্রেস নেতা বলেন, “উত্তর মালদহে আমরা হেরেছি ঠিকই। কিন্তু তার জন্য আমাদের কোনো দুঃখ নেই। কারণ যিনি আমাদের সঙ্গে ভোটের মুখে বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন, তিনিও জিততে পারেননি। তাই উত্তর মালদহে আমরা হারলেও এটা আমাদের নৈতিক জয়।”

সব মিলিয়ে এবার উত্তর মালদহে তৃণমূলের মৌসম হারায় কংগ্রেসের উজ্জীবিত হওয়া দেখে এখন অনেকেই বলছেন, এ আসলে নিজের নাক কেটে পরের যাত্রাভঙ্গ করারই শামিল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!