এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > মমতার আস্থা পেতেই এবার মালদার সব সমস্যার সমাধান করে হাল ফেরাতে আসরে মৌসম নূর

মমতার আস্থা পেতেই এবার মালদার সব সমস্যার সমাধান করে হাল ফেরাতে আসরে মৌসম নূর

লোকসভা নির্বাচনের আগে মালদহের কংগ্রেসের গনি পরিবারের সদস্যা মৌসাম বেনাজির নুর যোগ দিয়েছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসে। আর তারপরই তাকে উত্তর মালদহ লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী করে দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু তিনি জয়লাভ করতে পারেননি। তবে এই ফলাফলের পর মালদহ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিরাশ করলেও সেখানে দলীয় সংগঠনকে চাঙ্গা করতে সেই মৌসম বেনজির নূরকেই মালদহ জেলা তৃণমূলের সভানেত্রী করে দেন তৃণমূল সুপ্রিমো।

তবে মৌসমদেবী দায়িত্ব নেওয়ার পর বেশ কিছু ক্ষেত্রে মালদার ইংরেজবাজার পৌরসভার তৃণমূল কাউন্সিলরদের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা, আবার কখনও বা দলের নেতৃত্বের একাংশ মৌসাম নূরের প্রতি অনাস্থা রীতিমতো তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দলকে সামনে নিয়ে আসে। তবে সম্প্রতি মৌসম নূরের নেতৃত্বেই মালদহ জেলা চলবে বলে জানিয়ে দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

পাশাপাশি দলীয় পর্যবেক্ষক হিসেবে সরাসরি তিনি নিজেই মালদহ জেলা দেখবেন বলেও জানিয়ে দিতে দেখা যায় তৃণমূল নেত্রীকে। আর এরপরই কিছুদিন আগে কালীঘাটে গিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে জেলার সমস্ত বিষয় নিয়ে কথা বলেন মৌসম বেনজির নূর। আর দলীয় সুপ্রিমোর সাথে দেখা করার পরই এবার ইংলিশবাজার পৌরসভার মানুষের সমস্যা মেটাতে ময়দানে নামতে দেখা গেল জেলা তৃণমূল সভানেত্রীকে।

জানা গেছে, বয়সজনিত জটিলতার কারণে ইংরেজবাজার পৌরসভার 23 নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলরের পদ খারিজ হয়ে গিয়েছে। তারপর থেকে সেই পৌরসভা কার্যত অভিভাবকহীন হয়ে অবস্থায় রয়েছে। ফলে সেখানে নিকাশি ব্যবস্থা থেকে শুরু করে ড্রেনেজ সিস্টেমের সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে। বেশ কিছুদিন ধরেই ওয়ার্ডের সমস্যার কথা জেলা তৃণমূলের সভানেত্রীর কানে আসছিল। অবশেষে ময়দানে নেমে সেই 23 নম্বর ওয়ার্ড পরিদর্শন করলেন মৌসম বেনজির নূর।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিন জেলা তৃণমূলের সভানেত্রীকে কাছে পেয়ে এলাকার বাসিন্দারা তাদের নানা সমস্যার কথা তুলে ধরেন। নিকাশি ব্যবস্থা থেকে শুরু করে রাস্তায় জল জমে যাওয়ার ব্যাপারে মৌসম নূরের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তারা। আর এরপরই সাধারণ মানুষকে সেই সমস্যা মেটানোর ব্যাপারে আশ্বাস দেন মৌসম বেনজির নূর। এদিন তিনি বলেন, “এই ওয়ার্ডের জল রেলের জায়গার উপর দিয়ে এলাকা থেকে বের হয়ে যায় বলে জানতে পেরেছি। বর্তমানে রেলের বেশ কিছুটা এলাকা জবরদখল রয়েছে।”

তিনি স্পষ্ট জানান, “ফলে রেলের তরফ থেকে আর ওই এলাকায় নিকাশি নালা তৈরির অনুমতি দেওয়া যাচ্ছে না। সেজন্যই এলাকায় জল বেরিয়ে যেতে সমস্যা হচ্ছে এবং এলাকাবাসীর ভোগান্তি হচ্ছে। বিষয়টা নিয়ে বুধবার মালদহের জেলাশাসকের অফিসে আমরা আলোচনা করব। ওই বৈঠকে আমি, জেলাশাসক রেলের ইঞ্জিনিয়ার এবং ইংরেজবাজার পৌরসভার চেয়ারম্যান নীহার ঘোষ থাকবেন। আশা করি, আলোচনার মাধ্যমে সুষ্ঠু সমাধান হবে।”

এদিকে এই প্রসঙ্গে ইংরেজবাজার পৌরসভার চেয়ারম্যান নীহাররঞ্জন ঘোষ বলেন, “23 নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের জল নিকাশি নিয়ে সমস্যায় পড়তে হয়। এর আগে আমি একবার খানিকটা জোর করেই এলাকায় জল বের হওয়ার জন্য নর্দমা সাফাই করে দিয়েছিলাম। কিন্তু তাতে সাময়িক সমস্যার সমাধান হলেও দীর্ঘমেয়াদী লাভ হয়নি। স্থায়ী সমাধানের জন্য ওখানে নর্দমা তৈরি করতে হবে। এই ব্যাপারে আমরা সব পক্ষ মিলে আলোচনা করে ব্যবস্থা নেব।”

এদিকে এই ব্যাপারে মালদা টাউন স্টেশনের আরপিএফের আইসি নীরজ কুমার বলেন, “সাধারণত আমরা রেলের জমির উপর কাউকে কোনো নির্মাণ কাজ করতে দিই না। শহরের 23 নম্বর ওয়ার্ডের সমস্যা নিয়ে আমাদের কাছে এদিন কেউ আসেনি। পরে এনিয়ে আলোচনা হলে সিদ্ধান্ত নিয়ে চিন্তাভাবনা করা যেতে পারে।”

তবে যে যাই বলুন না কেন, দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আস্থা পেয়ে যেভাবে মৌসম বেনজির নূর ময়দানে নেমে মানুষের সমস্যা মেটাতে শুরু করেছেন, তাতে সেই মৌসম নূরের নেতৃত্বে জেলা তৃণমূল কতটা জনমোহিনী বার্তা নিয়ে এগিয়ে যেতে পারে, সেদিকেই নজর রয়েছে রাজনৈতিক মহলের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!