এখন পড়ছেন
হোম > অন্যান্য > OMG! গুগল প্লে স্টোরে ঘুড়ছে ২ হাজার ‘ডেঞ্জারাস অ্যাপ’? জেনে নিন বিস্তারিত

OMG! গুগল প্লে স্টোরে ঘুড়ছে ২ হাজার ‘ডেঞ্জারাস অ্যাপ’? জেনে নিন বিস্তারিত

সিডনি ইউনিভার্সিটির গবেষক এবং সিএসআইআর ও ডেটা সিক্সটি ওয়ান এর গবেষকরা একটি গবেষণা করে দেখেছেন গুগল প্লে স্টোরে নিয়মিত ব্যবহৃত অ্যাপগুলির উপর। ওই গবেষকরা প্লে স্টোরে ১০ লক্ষেরও বেশি অ্যাপস পরীক্ষা করে দেখেছেন, এর মধ্যে ২০০০ এরও বেশি অ্যাপে ম্যালওয়ার লোড নামক ভাইরাস খুঁজে পেয়েছেন । এর মধ্যে এমন কয়েকটি অ্যাপস আছে যেগুলো নাকি খুবই জনপ্রিয় এবং লক্ষ লক্ষ বার ডাউনলোড করা হয়েছে।

এই গবেষণাটি তাঁরা প্রায় দুবছর ধরে করেছেন এবং তাঁরা এটাও জানিয়েছেন যে, প্লে স্টোরে বহু বেনামি জনপ্রিয় গেম অ্যাপ্লিকেশন রয়েছে এবং সেগুলি রীতিমত ঝুঁকিপূর্ণ। সুতরাং প্লে স্টোর থেকে অ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করার আগে সতর্ক থাকুন। এই গবেষণাটিতে আরো বলা হয়েছে যে এই বহুরূপী অ্যাপসগুলোর পাশাপাশি গুগল প্লে স্টোরে আরও অনেক অ্যাপ্লিকেশন রয়েছে যেগুলো ভুয়ো এবং ম্যালওয়ার যুক্ত। এমনকি, অনেক অ্যাপ্লিকেশন রয়েছে সেখানে বলা হয়েছে যে ম্যালওয়ার মুক্ত এবং কম বিপজনক। তা সত্ত্বেও দেখা গেছে যে – টেম্পল রান, ফ্রী ফায়ার এবং হিল ক্লাইম্বিং রেসিং-এর মত বড় বড় গেমগুলির মধ্যেই এই বিপদ রয়েছে সব থেকে বেশি।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রসঙ্গত, প্লে স্টোরে নিখুঁতভাবে তদন্ত করার জন্য গবেষকরা একটি নিরপেক্ষ নেটওয়ার্ক ব্যবহার করেছিলেন। এছাড়াও সাম্ভাব্য বিপজ্জনক অ্যাপ্লিকেশনগুলি সনাক্ত করার জন্য গবেষকরা অনলাইনে ম্যালওয়্যার বিশ্লেষণ সরঞ্জাম – ভাইরাস টোটাল-এর ব্যক্তিগত এপিআই-এর সহায়তা নিয়েছিলেন। গবেষকরা থাইল্যান্ড নামক একটি প্রক্রিয়া ব্যবহার করেছেন এবং জানতে পেরেছেন গুগল প্লে স্টোরে ২,০০০ টি উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ এবং নকল অ্যাপ্লিকেশন খুঁজে পাওয়া গেছে।

সিডনি বিশ্ববিদ্যালয়ের সহলেখক ডক্টর সুরঙ্গা সেনেভিরাটনে গবেষণা করে বলেন, গুগল প্লে স্টোরে সাফল্যের সঙ্গে কাস্টমাইজ করা যায় এমন বৈশিষ্ট্য গুলি চিহ্নিত করা হয়েছে। প্রসঙ্গত, এইগুলি কারোর অ্যাপ তৈরি করতে ও পাবলিশ করতে অনুমতি নেওয়ার সময় দরকার হয়। আর সেখানেই বেশ কিছু সমস্যা খুঁজে পাওয়া গেছে। তিনি আরো বলেন, আমাদের সমাজে স্মার্ট ফোন প্রযুক্তির উপর ক্রমবর্ধমান নির্ভরশীল। তাই, এই স্মার্টফোনের ব্যবহারকারীদের প্রভাবিত করার আগে আমরা দ্রুত ক্ষতিকারক অ্যাপ্লিকেশনগুলি সনাক্ত করার একটা সিস্টেম তৈরী করতে চাই।

Top
error: Content is protected !!