এখন পড়ছেন
হোম > খেলা > মোহনবাগান নাকি বিজেপি, ইস্টবেঙ্গল-তৃণমূল ,তৃণমূল বিধায়কের মন্তব্যে জোর বিতর্ক

মোহনবাগান নাকি বিজেপি, ইস্টবেঙ্গল-তৃণমূল ,তৃণমূল বিধায়কের মন্তব্যে জোর বিতর্ক

কলকাতা ফুটবল মানেই হলো মোহনবাগান-ইস্টবেঙ্গলের লড়াই, .যদিও পিছিয়ে নেই মহামেডান কিংবা অন্য ফুটবল ক্লাবগুলি। কিন্তু বাঙাল-ঘটির এই ফুটবলের যুদ্ধে সরগরম গোটা বাংলার ফুটবল প্রেমী মহল।
বাঙাল-ঘটির এই ফুটবলের যুদ্ধে আর যাই হোক এতদিন পর্যন্ত কোনো রাজনৈতিক রং লাগেনি। কিন্তু এবার তাও সম্ভব হলো সৌজন্যে তৃণমূল বিধায়ক।প্রসঙ্গত, গতকাল ডার্বি হয় । তাতে লাল হলুদ দল জিতেছে ফলে উল্লসিত ইস্টবেঙ্গলিরা। যা নিয়ে স্লোগান দিতে দেখা গেছে সমর্থকদের।

আর এই নিয়েই একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হয়ে গেছে। যাতে দেখা যাচ্ছে যে, হাত তুলে রীতিমত স্লোগান দিয়ে বলছেন, ”আমরা কারা ইস্টবেঙ্গল, বিজেপি করা মোহনবাগান”। যা নিয়ে রীতিমতো সোশ্যাল মিডিয়াতে ঝড় উঠেছে.দুই পক্ষের সমর্থকগণই ক্ষুব্ধ।

কেননা ভিন্ন রাজনীতির সমার্থক হওয়ার দরুন হয়তো নিজেদের মুখ একে অপরে দেখেন না। কিন্তু খেলার মাঠে একই ক্লাবের সমার্থক হওয়ায় খেলার মাঠে যেটা হারায় নিজেদের জড়িয়ে ধরে উচ্ছাস প্রকাশই হোক বা দুঃখপ্রকাশ। সবই করে থাকেন। সেখানে রাজনীতির রংটা নেহাতই ফিকে হয়ে যায়।

আর তাই এদিনের তৃণমূলের বিধায়কের এই মন্তব্যে খুব একটা খুশি নন দলীয় কর্মী তথা দুই দলের সমর্থকগন। শুধু তাই নয়,বিধায়কের এই ভাইরাল ভিডিও নিয়ে রীতিমত অস্বস্তিতে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস।

সমর্থকদের মতে যেখানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাই স্বপন বন্দ্যোপাধ্যায় ওরফে বাবুন যেখানে মোহনবাগানের একজন কর্তাব্যক্তি। সেখানে এই কথা বলেন কি করে এই প্রশ্নও উঠেছে।

যদিও এই নিয়ে বেশ ফুরফুরে আছেন নৈহাটির বিধায়ক পার্থ ভৌমিক। তাঁর মতে, ”নিতান্তই মজা করতে গিয়ে এই কথা বলে ফেলেছেন। এটা নিয়ে অযথা হৈচৈ করারও কিছু নেই।”
এদিকে মাঠে নেমে পড়েছেন পার্থবাবুর অনুগামীরা তাদের মতে, যুবভারতীতে মোহনবাগান-ইস্টবেঙ্গলের ম্যাচ শেষে ফলাফল হয় ২-৩ । ইস্টবেঙ্গলের কাছে এক গোলে হেরে যায় মোহনবাগান। যেহেতু বিজেপির অবস্থা ভালো নয় তাই দাদা এদিন মোহনবাগানকে বিজেপির সাথে তুলনা করেছেন আর কিছু নয়।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

বিজেপি অবশ্য মাঠে নেমেছেন এই নিয়ে। বিজেপির এক নেতার কথায়, ” খেলা খেলার মাঠে থাকায় ভালো, তাতে রাজনীতি মেলানো ঠিক নয়। আসলে পার্থবাবু নেত্রীকে খুশি করতে এ কথা বলেছেন,কেননা মুখে যায় বলুন না কেন তৃণমূল এখন সবেতেই বিজেপির ভূত দেখছে। ” যদিও রাজ্য নেতৃত্ব বিষয়টি নিয়ে এখনই মুখ খুলতে নারাজ।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!