এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > আজ সদস্য সংগ্রহ অভিযানে ঝড় তুলতে পারলেন কি মোদী, বিশ্লেষণে রাজনৈতিকমহল

আজ সদস্য সংগ্রহ অভিযানে ঝড় তুলতে পারলেন কি মোদী, বিশ্লেষণে রাজনৈতিকমহল

গত 2014 সালে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে কেন্দ্রে প্রথমবার ক্ষমতায় আসার পর দ্বিতীয় বার অর্থাৎ 2019 সালের সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনের পর সেই নরেন্দ্র মোদী নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকার কেন্দ্রের ক্ষমতা দখল করতে পারবে কিনা, তা নিয়ে সন্দিহান ছিলেন অনেকেই।

কিন্তু সবার সমস্ত জল্পনার অবসান ঘটিয়ে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ফের ক্ষমতায় এসেছে মোদি সরকার।আর দ্বিতীয় বার বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ক্ষমতায় আসার পর এবার আজ শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের জন্ম জয়ন্তী উপলক্ষে দেশজুড়ে সদস্য সংগ্রহ অভিযানে নামলো গেরুয়া শিবির।

সূত্রের খবর, আজ বারাণসীতে দলের সদস্য সংগ্রহের সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আর বিজেপির এই সদস্য সংগ্রহ অভিযান চলবে আগামী 11 আগস্ট পর্যন্ত। ইতিমধ্যেই এই ব্যাপারে একটি টুইট করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী। যেখানে তিনি লিখেছিলেন , “শনিবার দেশজুড়ে বিজেপির সদস্য সংগ্রহ অভিযানের সূচনা হবে। আমি কাশীতে থাকব। সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষদের এই অভিযানে সামিল করা হবে। এতে দলের অনেকটাই শক্তি বৃদ্ধি পাবে।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

জানা গেছে, এই উত্তরপ্রদেশে বিজেপি তাদের 36 লক্ষ্য সদস্য সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করেছে। আর তারই অঙ্গ হিসেবে এদিন বারানসী থেকে সদস্য সংগ্রহের অভিযানের সূচনা করেন নরেন্দ্র মোদী। ইতিমধ্যেই এই ব্যাপারে প্রবল উৎসাহ তৈরি হয়েছে গেরুয়া শিবিরের কর্মী সমর্থকদের মধ্যে।

এদিকে দলের এই সদস্য সংগ্রহ যাতে বেশি পরিমাণে বৃদ্ধি করা যায়, তার জন্য দিনদয়াল ট্রেড সেন্টারে মোট চারটি কাউন্টার খোলা হয়েছে। শুধু তাই নয়, এই সদস্য সংগ্রহের জন্য হেল্প লাইন নম্বরও খোলা হবে বিজেপির তরফে। সব মিলিয়ে আজ থেকে সারাদেশ জুড়ে শুরু হচ্ছে বিজেপির সদস্য সংগ্রহ অভিযান।বাংলাতেও এই অভিযান চলছে আজ থেকে।

আর এই নিয়েই প্রশ্ন উঠেছে যে মোদী ঝড় কি এখনো অব্যাহত, বিজেপির দাবি আজ সারা দেশে সদস্য সংগ্রহে ভালো সাড়া পাওয়া গেছে। ৫ বছরে যে পরিমান কাজ করেছেন মোদী তার ফল স্বরূপ মানুষ আশীর্বাদ করে বিজেপিকে ফের ক্ষমতায় এনেছেন আর এর পুরো কৃতিত্ত্ব হলো মোদির। সে ঝড় আজও অব্যাহত। কেননা আজ সদস্য সংগ্রহ অভিযানে যেমন মানুষের মধ্যে উৎসাহ দেখা গেছে তাতে বিরোধী বলে র কেউ থাকবে না আগামীতে।

অন্যদিকে বিজেপির দাবিকে নস্যাৎ করে বিরোধীদের দাবি মোদী ঝড় কিছু নয় – সবটাই ইভিএমের খেলা।আর সদস্য সংগ্রহে তেমন কিছু হয়নি। কালকের বাজেটের পর মানুষ ওদের আসল চেহারাটা বুঝে গেছে এর পর আর কেউ থাকবে না ওদের সাথে।

রাজনৈতিকমহলের দাবি মোদী সরকারের উপর ভরসা রেখে মানুষ যখন এই ভোট দিয়েছে তখন এখনো সেই হাওয়া অব্যাহত। তাই অভিযান অনেকাংশেই সফল। সারা দিয়েছেন বা দিচ্ছেন সাধারণ মানুষ। তবে সদস্য সংগ্রহ করাটা এই ঝরে তেমন কোনো বড় চ্যালেঞ্জ না হলেও সেই সদস্যদের ধরে রাখাটাই সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ মোদিবাহিনীর। কেননা মানুষ পরিবর্তনশীল। বিজেপির উপর আস্থা হারালেই অন্যমুখী হতে সময় লাগবে না।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!