এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > পরিচালন কমিটি গঠন নিয়ে দলীয় বিধায়কদের বড়সড় নির্দেশ দিলেন শুভেন্দু অধিকারী

পরিচালন কমিটি গঠন নিয়ে দলীয় বিধায়কদের বড়সড় নির্দেশ দিলেন শুভেন্দু অধিকারী

অনেক বিদ্যালয়েই পরিচালন সমিতিতে বিরোধী দলের দাপট দেখা যায়। যার কারনে সেখানে কিছুটা হলে অস্বস্তিতে পড়তে দেখা যায় শাসকদলের ঘনিষ্ঠদের। কিন্তু এবার সেই পরিস্থিতি কাটাতে দলের সঙ্গে সমন্বয় রেখেই বিধায়কদের স্কুল পরিচালন কমিটির সদস্য ঠিক করার নির্দেশ দিলেন পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা তৃণমূলের পর্যবেক্ষক তথা মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী।

সূত্রের খবর, রবিবার সন্ধ্যায় মেদিনীপুর সার্কিট হাউসে দলের কোর কমিটির সদস্যদের নিয়ে একটি বৈঠক করেন রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী। যেখানে একাধিক সাংগঠনিক বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। আর এই বৈঠকে দলীয় পর্যবেক্ষকের সামনে জেলার একাধিক বিধায়ক এবং ব্লকস্তরের নেতাদের সঙ্গে সমন্বয় রেখে চলছে না বলে অনেকে নালিশ করেন। সেক্ষেত্রে অভিযোগ ওঠে, স্কুল পরিচালন কমিটির সদস্য বাছাইয়ের ক্ষেত্রে বিধায়করা ব্লক নেতৃত্বের সঙ্গে কোনও আলোচনাই করছেন না। আর এরপরই শুভেন্দু অধিকারী দলীয় বিধায়কদের দলের সঙ্গে সমন্বয় রেখে স্কুল পরিচালন কমিটির সদস্য ঠিক করার নির্দেশ দেন।

সূত্রের খবর, স্কুল পরিচালন কমিটিতে প্রধান শিক্ষক, অভিভাবক প্রতিনিধি, এসআই প্রতিনিধি, ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক বা তার প্রতিনিধি সদস্য হিসেবে থাকেন। এছাড়াও তিনজন সরকারি প্রতিনিধি থাকেন। যারমধ্যে একজন পরিচালন কমিটির সভাপতি হিসেবে দায়িত্বভার পালন করেন। বাকি দু’জন এমনি সাধারণ সদস্য থাকেন।

মূলত বিকাশ ভবন থেকেই জেলা স্কুল পরিদর্শকের কাছে এই ব্যাপারে নাম পাঠানো হলে সেই মোতাবেক স্কুল পরিচালন কমিটি গঠিত হয়। কিন্তু এই তিন সরকারি প্রতিনিধি নির্বাচন নিয়েই এবার তৈরি হয়েছে সমস্যা। জানা যায়, সাধারণভাবে বিধায়কদেরই তা ঠিক করতে বলা হয়। কিন্তু অনেকেরই অভিযোগ, দলীয় বিধায়করা নিজেদের সুযোগকে কাজে লাগিয়ে নিজের পছন্দের লোকের নাম সুপারিশ করছে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

বিশেষজ্ঞদের মতে, এই গোটা প্রক্রিয়ার মধ্যে শাসকদলের গোষ্ঠী-রাজনীতি দিনকে দিন মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে শুরু করেছে। কিন্তু এই পরিচালন সমিতিকে নিয়েও যাতে দলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব না হয়, তার জন্যই এবার শুভেন্দু অধিকারী সকলের সাথে আলোচনা করে পরিচালন কমিটির সদস্য করা হবে বলে জানিয়ে দিলেন।

বস্তুত, এই মেদিনীপুর জেলায় আপার প্রাইমারি এবং হাইস্কুল মিলিয়ে মোট ৯৩৬টি স্কুল রয়েছে। যেখানে সমন্বয় না রেখে বিধায়ক নিজের মতো করে পরিচালন কমিটির সদস্য ঠিক করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তবে, যেসব জায়গায় পরিচালন কমিটির সদস্য নির্বাচনে ব্লক নেতৃত্বের আপত্তি ছিল না, সেখানে নিয়ম মেনেই তার গঠন হয়েছে বলে খবর। গোটা বিষয়টি জেলা তৃনমূল সভাপতি অজিত মাইতিকে দেখার নির্দেশ দিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী।

এদিন এই প্রসঙ্গে জেলা তৃনমূল সভাপতি অজিত মাইতি বলেন, “বিধায়কদের ব্লক নেতৃত্বের সঙ্গে আলোচনা করেই স্কুল পরিচালন কমিটির সদস্য ঠিক করার কথা বলা হয়েছে। পর্যবেক্ষকের নির্দেশ মেনেই কাজ করা হবে। সকলকে সেকথা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। জেলার বিধানসভা এলাকাগুলিতে যাতে আর কোনও সমস্যা না হয়, তা দেখা হবে।” সব মিলিয়ে পরিচালন কমিটি নিয়ে দলের সকলের সঙ্গে আলোচনা করে সেই কমিটি গঠন করার কথা শুভেন্দু অধিকারী বললেও আদৌ তা কতটা বাস্তব হয়, এখন সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

Top
error: Content is protected !!