এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > মুখ্যমন্ত্রীর মিছিলে জনজোয়ার নিশ্চিত করতে সব বিধায়ক-কাউন্সিলারের উপস্থিতি নিশ্চিত সুদীপ

মুখ্যমন্ত্রীর মিছিলে জনজোয়ার নিশ্চিত করতে সব বিধায়ক-কাউন্সিলারের উপস্থিতি নিশ্চিত সুদীপ

ফের কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ময়দানে নামছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সূত্রের খবর, আগামীকাল বৃহস্পতিবার জাতীয় নাগরিক পঞ্জিকরন ইস্যুতে কেন্দ্রের বিরোধীতায় মিছিলের ডাক দিয়েছেন তিনি। জানা গেছে, দুপুর আড়াইটা থেকে এই মিছিল শুরু হওয়ার কথা। আর কেন্দ্রের বিরোধিতায় এনআরসি ইস্যুতে মমতা বন্দোপাধ্যায় রাজপথে নামায় সেই মিছিলকে সার্থক করতে ইতিমধ্যেই মরিয়া হয়ে উঠেছেন উত্তর কলকাতা লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়।

সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মিছিলকে সফল করতে উত্তর কলকাতার 7 তৃণমূল বিধায়ক এবং দলের সমস্ত পৌর প্রতিনিধিদের একটি করে চিঠি পাঠিয়েছেন সুদীপবাবু। মূলত 1 নম্বর থেকে 10 নম্বর ওয়ার্ড পর্যন্ত এই মিছিল হলেও উত্তর কলকাতার 60 টি ওয়ার্ড থেকেই প্রচুর মানুষ এখানে অংশ নেবে বলে দাবি তৃণমূলের।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

বস্তুত, এনআরসি নিয়ে ইতিমধ্যেই কেন্দ্রের বিরুদ্ধে চরম প্রতিবাদ শুরু করেছে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। বিজেপির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছিল, বাংলাদেশী অহিন্দু অনুপ্রবেশকারীদের চিহ্নিত করার জন্যই এই এনআরসি করা হচ্ছে। কিন্তু অসমে এনআরসি তালিকা প্রকাশের পর সেখানে দেখা যায় যে, যারা বাদ গিয়েছে তাদের মধ্যে অধিকাংশই বাংলাভাষী হিন্দু।

আর এরপরই তৃণমূলের তরফে দাবি করা হয় যে বিজেপি বাংলাবিদ্বেষী। আর তাই এবার এই ইস্যুতে বাঙালির ভাবাবেগকে আরো উসকে দিতে ও সাধারণ মানুষের কাছে নিজেদের কেন্দ্রের বিরোধিতা ইস্যুকে সামনে আনতে আগামীকাল তৃণমূল নেত্রী পথে নামলে সেই মিছিলকে সার্থক করতে তৎপর হয়ে উঠেছেন সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়।

জানা গেছে, ইতিমধ্যেই জেলা সভাপতিকে মুখ্যমন্ত্রী যে পথ দিয়ে হাঁটবেন, তার দু’ধারে এনআরসি বিরোধী পোস্টার ব্যানার দিয়ে সাজানোর নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। এমনকি দলের সমস্ত শাখা সংগঠনকেও এই ব্যাপারে জোর প্রচার করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এদিন এই প্রসঙ্গে উত্তর কলকাতা লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “অসমের অভিজ্ঞতার পর বাংলার মানুষ উদ্বিগ্ন। মুখ্যমন্ত্রী ইতিমধ্যেই ঘোষণা করেছেন এই রাজ্যে এনআরসি করতে দেওয়া হবে না। সাধারণ মানুষকে এনআরসি সম্ভাব্য বিপদ সম্পর্কে অবহিত করতেই এই মিছিল। মুখ্যমন্ত্রীর মিছিলে আগামীকাল জনস্রোত দেখা যাবে।”

সব মিলিয়ে আগামীকাল কেন্দ্রের বিরুদ্ধে এনআরসি ইস্যুতে পথে নামা দলীয় নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মিছিলকে সার্থক করতে সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় ঠিক কতটা সাফল্য পান! এখন সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!