এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বৈঠকে যোগ না দিয়েও ‘ভাতা’ কামাচ্ছিলেন বিধায়করা, হাতেনাতে ধরা পড়তেই কড়া দাওয়াই

বৈঠকে যোগ না দিয়েও ‘ভাতা’ কামাচ্ছিলেন বিধায়করা, হাতেনাতে ধরা পড়তেই কড়া দাওয়াই

বিধানসভার অধিবেশনগুলিতে এতদিন উপস্থিত না হয়েও অধিবেশন চলাকালীন উপস্থিতি ভাতা গ্রহণ করছিলেন বিধায়কেরা। এবার বিধায়কদের সেই অভ্যাস রুখতে নয়া উদ্যোগ নিতে চলছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। বেশ কয়েকদিন যাবত বিধানসভায় বৈঠকে যোগ না দিয়ে বিধায়করা শুধু খাতায় সই করেই টাকা তুলে নিচ্ছেন এমন অভিযোগ উঠছিলো।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এদিন  অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় হঠাৎ করে বিধানসভার এক বৈঠকে উপস্থিত হতেই ঘটনার সঠিক বিবরণ প্রকাশ্যে এলো। উল্লেখ্য বিধানসভায় ৪১টি কমিটি রয়েছে। প্রতিদিনই বিভিন্ন কমিটির বৈঠক হয়। সেই বৈঠকে যোগদানের জন্য বিধায়করা সাম্মানিক পান। জানা যাচ্ছে বৈঠক শেষ হওয়ার পর খাতায় সই করার পরে সেই সাম্মানিক মূল্য হাতে পান বিধায়কেরা। বেশ কিছুদিন যাবত বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় শুনতে পাচ্ছিলেন যে বেশ কিছু বিধায়ক  সঠিক সময়ে বৈঠকে যোগ দিচ্ছেন না অথচ তাঁরা পরে এসে খাতায় সই করে টাকাও তুলে নিয়ে যাচ্ছেন।

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এই ঘটনার সত্যতা যাচাই করতেই এদিন বিধানসভার এক বৈঠকে কোনো খবর না দিয়েই উপস্থিত হন অধ্যক্ষ । সেখানে তিনি দেখতে পান অর্ধেকের বেশি বিধায়কই কার্যত বৈঠকে অনুপস্থিত। এরপরেই বিধায়কদের ‘বৈঠক ভাতা’ নিয়ে অধ্যক্ষ কড়া ভূমিকা নেন । তিনি এদিন স্পষ্ট ভাষায় জানিয়ে দেন বৈঠকে পূর্ণ সময় উপস্থিত থাকলেই বিধায়করা কেবলমাত্র খাতায় সই করে নিয়মানুসারে বরাদ্দ  ‘বৈঠক ভাতা’ নিতে পারবেন। কিন্তু কোনওভাবেই বৈঠক শুরু হওয়ার পরে যোগ দিলে, আর খাতায় সই করা যাবে না। সেক্ষেত্রে হাত ছাড়া হবে ‘বৈঠক ভাতা’ ।

 

আপনার মতামত জানান -
Top