এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বর্ধমান > রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রীর গড়ে সংখ্যালঘু ভোটে বড়সড় ভাঙন ধরালো বিজেপি

রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রীর গড়ে সংখ্যালঘু ভোটে বড়সড় ভাঙন ধরালো বিজেপি

গত ২৩ শে লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল বের হতেই দেখা গেছে বাংলা জুড়ে তীব্র গেরুয়া ঝড় চলছে। তৃণমূল নেত্রীর ৪২ এ ৪২ করার দাবিকে ধুলিস্মাৎ করে বিজেপি বাংলা থেকে ১৮ টি আসন ছিনিয়ে নিয়েছে। আর এরপরেই বিজেপি নেতারা হুঙ্কার ছেড়েছিলেন – উনিশে হাফ, একুশে সাফ! অর্থাৎ আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে বাংলায় আরেকটা পরিবর্তনের পরিবর্তন হবে বলে দাবি গেরুয়া শিবিরের।

আর এই ঘটনার পর বঙ্গ বিজেপিতে যোগদানের কার্যত হিড়িক লেগে গেছে। একটা সাধারণ ধারণা হল বিজেপি হিন্দুত্ববাদীদের দল, ফলে সংখ্যালঘুদে কাছে ব্রাত্য। কিন্তু বাংলায় সংখ্যালঘু ভোট একটা ফ্যাক্টর, কেননা এখানে প্রায় ৩০% সংখ্যালঘু মানুষের বসবাস। আর লোকসভা নির্বাচনে দেখা গেছে, এই সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের প্রায় ১০০% সমর্থন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলের কাছে গেছে। কিন্তু এবার বোধহয় সেই সংখ্যালঘু ভোটব্যাঙ্কও ক্রমশ ঝুঁকে পড়ছে গেরুয়া শিবিরের দিকে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রী স্বপন দেবনাথের গড় বলে পরিচিত পূর্বস্থলী দক্ষিণ বিধানসভা কেন্দ্রে প্রায় হাজারের কাছকাছি সংখ্যালঘু মানুষ আজ বিজেপিতে যোগদান করেছেন বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে। বিজেপি সূত্রে জানা গেছে, পূর্বস্থলীর সাহাজাদপুর নপাড়া মোড় এলাকায় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের নশোর বেশি কর্মী সমর্থক বিজেপিতে যোগদান করেন। এছাড়াও, কালনার বাঘনাপাড়ার আলাগড়ে তৃণমূল ছেড়ে শতাধিক কর্মী বিজেপিতে যোগদান করেছেন বলে দাবি গেরুয়া শিবিরের।

তবে শুধু তৃণমূল কংগ্রেসই নয়, একদা লালদুর্গ বলে পরিচিত পূর্ব-বর্ধমানে বামফ্রন্ট ছেড়ে গেরুয়া শিবিরে নাম লেখানোরও ঢল নেমেছে। স্থানীয় সূত্রের খবর, কালনার কাঁকুড়িয়া সহজপুর বাজার এলাকায় একটি কর্মসূচিতে তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক, প্রাক্তন পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য সহ প্রাক্তন উপপ্রধান ও সিপিএমের বেশ কয়েকজন কর্মী বিজেপিতে যোগদান করে। যদিও, তৃণমূল নেতা-কর্মীদের দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের খবর অস্বীকার করেছে তৃণমূলের স্থানীয় নেতৃত্ব। তাঁদের দাবি, বামফ্রন্টের লোকেরাই বিজেপিতে যাচ্ছে, সবটাই নাটক!

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!