এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের নতুন নির্দেশিকায় কি রাজ্য সরকার সেতু রক্ষনাবেক্ষনের দায়িত্ত্ব এড়াল?

মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের নতুন নির্দেশিকায় কি রাজ্য সরকার সেতু রক্ষনাবেক্ষনের দায়িত্ত্ব এড়াল?

গত 5 সেপ্টেম্বর রাজ্যে মাঝেরহাট ব্রীজ ভেঙে পড়ার পরেই সেই ব্রীজ পরিদর্শনে যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে গিয়েই তিনি সরকারের মনোভাব ব্যাক্ত করে ইঙ্গিত দিয়েছিলেন যে, ব্রীজ ভাঙার দ্বায়িত্ব নিতে হবে নির্মানকারী সংস্থাকেই। এবার প্রশাসনিক প্রধানের সেই ইঙ্গিত মোতাবেক একটি নির্দেশিকা জারি করে রাজ্যের পুর এবং নগরোন্নয়ন দপ্তর।

আর এই প্রসঙ্গে গতকাল মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বলেন, “রাস্তার ক্ষেত্রে 5 বছর এবং ব্রীজের ক্ষেত্রে 25 বছর নির্মানকারী সংস্থাকে তার রক্ষনাবেক্ষনের দ্বায়িত্ব নিতে হবে।” কিন্তু হঠাৎ কেন এই সিদ্ধান্ত! মন্ত্রীর দাবি, যারা ব্রীজ তৈরি করেছে তারাই ভালো ত্রুটি বিচ্যুতির কথা বলতে পারবে। তাই অন্য কাউকে না দিয়ে তাঁদেরই এই কাজ করতে বলা হয়েছে। তবে শুধু মুখে নয়, এদিন কোলকাতার যে 15 টি সেতুর স্বাস্থপরীক্ষা করেছিল বিশেষজ্ঞ কমিটি তার মধ্যে ফিটের তালিকার রয়েছে 5 টি সেতু। কিন্তু বাকি 10 টি ব্রীজের অবস্থা অত্যন্ত বিপজ্জনক। তাই এই পরিস্থিতিতে যাতে আর মাঝেরহাট কান্ডের পুনরাবৃত্তি না হয় তার জন্য আজ এই 10 টি ব্রিজের অবস্থা খতিয়ে দেখতে হাজড়া মোড়, কালীঘাট সেতু দিয়ে বিভিন্ন ব্রীজ পরিদর্শন করবেন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।

সূত্রের খবর, মন্ত্রীর সাথে এই ব্রীজ পরিদর্শনে চেন্নাই থেকে এক বহুজাতিক সংস্থা “লার্সেন অ্যান্ড টুব্রো’র বিশেষ প্রতিনিধিদলও আসছে রাজ্যে। এছাড়াও দপ্তরের ইঞ্জিনিয়ার এবং সেতু নির্মানের জন্য বিশেষজ্ঞরাও এই ব্রীজ পরিদর্শনে থাকবেন। এদিকে ইএম বাইপাস-ভিআইপি রোডের সংযোগকারী উল্টোডাঙা সেতুটির একটি অংশ 2011 র বাম আমলে ভেঙে পড়লে এদিন সেই সেতুর দ্বায়িত্বে থাকা নির্মানকারী সংস্থা ম্যাকিনটস বার্নের এক আধিকারিক সুমিতাভ ঘোষকে ডেকে পাঠান ফিরহাদ হাকিম।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, বর্তমানে এই ম্যাকিনটস বার্নের চেয়ারম্যান তৃনমূল সরকারেরই প্রাক্তন পূর্তমন্ত্রী শঙ্কর চক্রবর্তী। জানা যায়, এদেন সেই সুমিতাভ ঘোষকে ডেকে ফিরহাদ হাকিম বলেন, “আপনার ব্রিজ বানিয়েছেন। আপনাদেরই রক্ষনাবেক্ষনের দ্বায়িত্ব নিতে হবে। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নিয়ে কাজ করুন। সরকার আপনাদের বিল মেটাবে।” সব মিলিয়ে এবার ব্রিজ বিপর্যয়ে নির্মানকারী সংস্থার দিকেই সমস্ত বল ঠেলে দিল রাজ্য সরকার।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!