এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > মুখ্যমন্ত্রীর সফরকালে বিদ্যুৎবিভ্রাটের জেরে ক্ষুব্ধ মন্ত্রী জল্পনা বাড়িয়ে ডাকলেন বৈঠক

মুখ্যমন্ত্রীর সফরকালে বিদ্যুৎবিভ্রাটের জেরে ক্ষুব্ধ মন্ত্রী জল্পনা বাড়িয়ে ডাকলেন বৈঠক

দিন কয়েক আগেই উত্তরবঙ্গ সফরে গিয়ে বিদ্যুৎবিভ্রাটের সম্মুখীন হয়ে বেশ ক্ষুব্ধ হয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যে গেস্ট হাউজে তাঁর থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছিলো সেখানে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। ঘটনার পরের দিনই প্রশাসনিক বৈঠকে এ ব্যাপারে নিজের উদ্বেগ প্রকাশ করেন নেত্রী। বলেন,
‘আমার ক্ষেত্রে যদি বার বার কারেন্ট অফ হয়, তাহলে সাধারণ মানুষের কী অবস্থা বুঝুন।’

মুখ্যমন্ত্রীর মতো ভিভিআইপি’কে বিদ্যুৎ বিভ্রাটের মুখে পড়তে হয়েছে,একথা জানতে পেরে ব্যাপক চটে যান বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। অন্যদিকে,নবান্নের এক শীর্ষস্থানীয় অফিসার এ প্রসঙ্গে জানিয়েছে,জেড প্লাস নিরাপত্তা প্রাপকের থাকার জায়গা বিদ্যুৎ সরবরাহ বিচ্ছিন্ন হওয়ার ঘটনা অত্যন্ত লজ্জাজনক।

এ ব্যাপারে আগে থেকেই সতর্ক হওয়া উচিৎ বলেই মনে করেছেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কিন্তু আগেও লো ভোল্টেজ নিয়ে সরব হয়েছিলেন। কিন্তু এবার বিদ্যুৎ বিভ্রাটের সম্মুখীন হয়ে তিনি যে উষ্মা প্রকাশ করলেন তাতে টনক নড়ে গিয়েছে বিদ্যুৎদপ্তরের।

আগামী দিনে যাতে এ ধরণের ঘটনা পুনরাবৃত্তি আর না হয়,তার জন্যে আগামী সপ্তাহেই প্রশাসনিক বৈঠক ডাকলেন বিদ্যুৎমন্ত্রী। সংশ্লিষ্ট দপ্তরের সচিব সহ বিদ্যুৎ সরবরাহ এবং বিদ্যুৎ বিপর্যয়ের মোকাবিলার উপায় খুঁজতেই বিস্তারে আলোচনা করা হবে বৈঠকে।

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে কেন অপ্রত্যাশিতভাবে বিদ্যুৎ বিভ্রাটের সম্মুখীন হতে হল? এ প্রশ্নের জবাব মিলেছে বিদ্যুৎমন্ত্রীর তরফ থেকে। তিনি জানান,যে গেস্ট হাউজে নেত্রীর থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছিল সেখানে জেনারেটরটি ছোট ছিল। বিদ্যুৎ সরবরাহে যাতে কোনো বিপত্তি না আসে তার জন্য ভিভিআইপি’দের জন্য বড় জেনারেটর রাখার কথা ওখানে।

কিন্তু সেটা করা হয়নি। কারা এমন অসচেতন আচরণ করেছে সে বিষয়ে তদন্ত করে ইতিমধ্যেই দুজনকে সাসপেন্ড এবং একজনকে বলদি করা হয়েছে। এবং আগামীতে যাতে এ ধরণের কাজ আর না হয়,তার জন্যে দপ্তরের কর্মকর্তাদের সর্তক করা হয়েছে। দীপাবলির ছুটি মিটলেই সববিভাগের কর্তাব্যক্তিদের নিয়ে বৈঠক করা হবে।

দপ্তর সূত্র থেকে আরো জানা গিয়েছে, আগামী বৈঠকে আলোচনার বিষয়বস্তু হিসাবে কিছু গুরুত্বপূর্ন তথ্য উঠে আসবে। যেমন- যে গেস্ট হাউসে মুখ্যমন্ত্রী বা অন্যান্য ভিআইপিরা থাকবেন সেসব স্থান আগে থেকে পরীক্ষা করে পর্যাপ্ত বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যবস্থা রাখতে হবে। পোল থেকে বিদ্যুৎ যাতে ঠিকঠাক সরবরাহ হয় সেদিকে নজর রাখতে হবে,বিকল্প পন্থা হিসাবে বড় জেনারেটরের যোগান রাখতে হবে। এক্ষেত্রে কোথাও যদি পরিষেবায় গলদ নজরে আসে তাহলে ইঞ্জিনিয়ারদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া হবে।

উক্ত বিষয়গুলিতে সতর্ক করে দেওয়ার জন্য বৈঠকের আহ্বান জানিয়েছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়ের। সামনেই লোকসভা ভোট। তাই এটা খুব স্বাভাবিক যে প্রচার কর্মসূচি চালানোর উদ্দেশ্যে জেলায় জেলায় ঘুরে বেড়াবেন মুখ্যমন্ত্রী।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

তিনি যাতে আবার কোনো স্থানে থাকতে গিয়ে বিদ্যুৎ বিভ্রাটের সম্মুখীন না হন তার জন্য আগে থেকেই রাজ্যের বিদ্যুৎ বণ্টন কোম্পানির সব দায়িত্বপ্রাপ্ত অফিসার-ইঞ্জিনিয়ারদের তৎপর হতে নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে বিদ্যুৎমন্ত্রীর তরফ থেকে। এ ব্যাপারে কোনো কাজে দায়িত্বপ্রাপ্ত অফিসারদের নিষ্ক্রিয় মানসিকতা উঠে এলেই উপযুক্ত শাস্তি দেওয়া হবে তাঁদের,কড়া হুঁসিয়ারী বিদ্যুৎমন্ত্রীর।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!