এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > মহারাষ্ট্রে ভাঙ্গনের পর ফের খেল বিজেপি, এবার এই সঙ্গী ছাড়ল হাত, প্রবল চাপে গেরুয়া শিবির

মহারাষ্ট্রে ভাঙ্গনের পর ফের খেল বিজেপি, এবার এই সঙ্গী ছাড়ল হাত, প্রবল চাপে গেরুয়া শিবির

 

মহারাষ্ট্রে বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল কিছুদিন আগেই প্রকাশিত হয়েছে। যার পরেই সেখানে কি সমীকরণ হবে, তা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে প্রবল জল্পনার সৃষ্টি হয়েছিল। মহারাষ্ট্রে বিজেপির শিবসেনার জোটে ইতিমধ্যেই ভাঙ্গন স্পষ্ট হয়েছে। আর এবার এনডিএতেও ভাঙনের ইঙ্গিত দেখা দিল।

সূত্রের খবর, বিহারের এনডিএর সঙ্গী এলজেপির পক্ষ থেকে ইতিমধ্যে ঘোষণা করে দেওয়া হয়েছে যে, আগামী ঝাড়খন্ড বিধানসভা নির্বাচনে তারা 50 টি আসনে একাই লড়াই করবে। জানা গেছে, ঝাড়খন্ডে এলজেপির পক্ষ থেকে 6 টি আসনের দাবি করা হয়েছিল। কিন্তু বিজেপি তাতে না রাজি হওয়াতেই তৈরি হয়েছে বিপত্তি। তাই এবার এলজেপির পক্ষ থেকে সব আসনেই লড়াই করার ডাক দেওয়া হয়েছে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

জানা গেছে, আগামী পাঁচ দফায় 30 নভেম্বর থেকে কুড়ি ডিসেম্বরের মধ্যে ঝাড়খণ্ডে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আর মঙ্গলবার বিকেলে তারা তাদের প্রার্থী ঘোষণা করবে বলে জানিয়ে দিয়েছে এলজেপি। এদিন এই প্রসঙ্গে এনজেপির নবনির্বাচিত সভাপতি চিরাগ পাসোয়ান একটি টুইট করে বলেন, “এবারের ঝাড়খন্ড বিধানসভা নির্বাচন আমরা একাই লড়ব। লোক জনশক্তি পার্টির রাজ্য শাখা 50 টি আসনে লড়াই করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।”

পাশাপাশি ঝাড়খন্ড বিধানসভা নির্বাচনে তারা ছটি আসনের দাবি জানালেও বিজেপি সেই দাবি না মানাতেই তারা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলেও জানিয়ে দেন চিরাগ পাসোয়ান। বিশ্লেষকদের মতে, মহারাষ্ট্রের পর এবার বিজেপির সাথে সম্পর্ক ছিন্ন হতে চলেছে এই শরিক দলের। আর ঝাড়খন্ডে যদি এই শরিক দল তাদের কথামত 50 টি আসনে লড়াই করে, তাহলে বিজেপি সেখানে অনেকটাই চাপে পড়বে। তাই বিজেপি এখন লোক জনশক্তি পার্টিকে ম্যানেজ করতে কোনো ফর্মুলা নেয় কিনা, সেদিকেই তাকিয়ে গোটা রাজনৈতিক মহল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!