এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মেয়র নিয়ে আইন সংশোধনে এখনও ফেলে সই করেননি রাজ্যপাল, আইনি পথে আটকাবে বামফ্রন্ট

মেয়র নিয়ে আইন সংশোধনে এখনও ফেলে সই করেননি রাজ্যপাল, আইনি পথে আটকাবে বামফ্রন্ট

রাজনৈতিকভাবে রাজ্যের শাসকদল সিদ্ধান্ত নিয়ে নিয়েছে যে, কলকাতার মেয়র পদে এবার বসানো হবে রাজ্যের পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমকে। কিন্তু এই ফিরহাদ হাকিমকে মেয়র পদে বসানোর জন্য যাতে আইনের কোনো বাধা হয়ে না দাঁড়ায় সেজন্য গত বৃহস্পতিবারই তড়িঘড়ি বিধানসভায় একটি সংশোধনী বিলও পাস করানো হয়েছে।

নিয়ম মত এখন সেই বিল আইনে রূপান্তর করার জন্য তা রাজ্যপালের অনুমোদনের প্রয়োজন। রাজ্য সরকার চাইছে, আগামী 3 ডিসেম্বর মেয়র পদে নির্বাচনের আগেই রাজভবন এই বিলে অনুমোদন দিক। কিন্তু গতকালই দার্জিলিং সফর সেরে কলকাতায় পৌঁছেছেন রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠী।

জানা গেছে, পরের সপ্তাহে সংশ্লিষ্ট বিলের বিষয়ে তিনি আগে রাজ্যের আইন দপ্তর থেকে “নো অবজেকশন” তকমা নেওয়ার পরই সেখানে অনুমোদন করবেন। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য কোন বিল বিধানসভায় পাশ হওয়ার পর তাতে চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য রাজ্যপাল অথবা রাষ্ট্রপতির কাছে তা পাঠানো হয়।

আর এই বিলের আইনি দিক থেকে কোনো বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে কিনা সেই ব্যাপারে নিশ্চিত হতে রাজ্যপাল আইন দপ্তরের কাছেই তা পাঠিয়ে “নো অবজেকশন” এর পাশাপাশি এই ব্যাপারে আইন বিশেষজ্ঞদের কাছ থেকে পরামর্শ নেন তিনি। কিন্তু ফিরহাদ হাকিমের এই মেয়র হওয়া নিয়ে ইতিমধ্যেই তীব্র জটিলতা শুরু হয়েছে।

জানা গেছে, কলকাতা পুর আইনের এই সংশোধনীর আইনি বৈধতা নিয়ে ইতিমধ্যেই প্রশ্ন তোলা শুরু করেছে সিপিএম। এদিন এই প্রসঙ্গে কলকাতার প্রাক্তন মেয়র আইনজীবী তথা সিপিএম নেতা বিকাশ রঞ্জন ভট্টাচার্য বলেন, “এই সংশোধনী সংবিধান ও সংশ্লিষ্ট আইনের পরিপন্থী।” পাশাপাশি এই ব্যাপারে হাইকোর্টে যাওয়ার চিন্তাভাবনাও শুরু করেছে তারা।

অন্যদিকে এই ব্যাপারে আজই বিকেলে রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠীর সঙ্গে দেখা করে এই সমস্ত ব্যাপারে তারা বিস্তারিত অভিযোগ জানাবেন বলেও এদিন জানান বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী। তবে সিপিএম এই ব্যাপারে মামলা করলেও এদিন তাদের তীব্র খোঁচা দিয়েছেন কলকাতা পৌরসভারই প্রাক্তন মেয়র তথা রাজ্যের বর্তমান পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়। তিনি বলেন, “ওরা যদি আদালতে যায় তাহলে ওরা গোহারা হারবে।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

কিন্তু এই সমস্ত রাজনৈতিক দরজার মাঝে ঠিক কী ভাবছে রাজভবন? সূত্রের খবর, আপাতত এই বিলটি নিয়ে রাজ্যের আইন দপ্তরের কাছে নো অবজেকশন তকমা আনিয়ে নেওয়ার ব্যাপারে প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন রাজ্যপাল। আর তারপরই এই ব্যাপারে বিরোধীদের সমস্ত অভিযোগ এবং বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ চাইবেন তিনি। আর তাই সব মিলিয়ে এই সংশোধনী বিলে চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়ে ঠিক কবে রাজ্যপাল নবান্নের এই ফাইল সই করে তা ফেরত পাঠান এখন সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!