এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বর্ষার জল জমা নিয়ে বিস্ফোরক কোলকাতা পৌরনিগম-এর মেয়র

বর্ষার জল জমা নিয়ে বিস্ফোরক কোলকাতা পৌরনিগম-এর মেয়র

চেনা ছকে এবারেও বঙ্গে ঢুকলো মৌসুমীবৃষ্টি। গরমের দাবাদহ থেকে দুদিনের বৃষ্টিপাতে রাজ্যে স্বস্তি ফিরলেও কোলকাতার একাধিক জায়গায় সেই এক পরিচিত জল জমার ছবি নজরে আসলো। আগামী কয়েকদিনও বেশ ভারী বৃষ্টির পূ্র্বাভাসও দিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। এরকম পরিস্থতিতে কোলকাতা পৌরনিগমের কর্মসূচি কী তা নিয়ে প্রশ্ন উঠল। জমা জল নিকাশ করতে তাঁরা কী ব্যবস্থা নিয়েছে এ নিয়ে প্রশ্ন করা হলে মেয়র পারিষদ তারক সিং পাল্টা যুক্তি দিয়ে জানান, কোলকাতার জমা জল বের করতে তাঁরা তৈরি হয়েই আছেন। তবে অতিরিক্ত বৃষ্টি হলে তাকে নিয়ন্ত্রণ করা সত্যিই অসম্ভব।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

উদাহরণ স্বরূপ বলেন, যদি ঘন্টায় ২০ মিলিমিটার করে ২ ঘন্টা বৃষ্টি হয়,তাহলে কোলকাতার জল দু তিন ঘন্টায় নেমে যাবে কিন্তু তার বেশি বৃষ্টি হলে কোলকাতবাসীকে ভুগতে হবে একটি এমটাই। তিনি। কিন্তু এদিনের জল জমা নিয়ে কথা বলতে গেলে তিনি খেপে যান বলেন , ” বৃষ্টি হলে জল জমবে এটাই স্বাভাবিক। বাথরুমে চান করলে জল জমে না? জল নামার সময়টা তো দিতে হবে।” এর সঙ্গে মিডিয়ার উপর তোপ দেগে তিনি বলেন যে “ঘুরে ঘুরে কলকাতার রাস্তা দেখো! তোমরা শুধু সমালোচনা করার জন্য আছ! বৃষ্টিতে আমাদের লোকগুলো কীভাবে কাজ করছে সেটা দেখো! এগুলোকে বাহবা দাও।” এছাড়া তিনি খানিক অসন্তোষের সঙ্গে এটাও জানান যে কাউকে ১০০% খুশি করার ক্ষমতা তিনি রাখেন না। এই বৃষ্টিতে ২-৩ শতাংশ জায়গাতে যে জল জমে নেই এটাও উল্লেখ করেন তিনি এদিন। তবে তিনি আগামীদিনের জন্য আশ্বাস দিয়ে বলেন যে,গঙ্গায় যাতে কম সময়ের মধ্যে বেশি জল ফেলা যায় তার জন্য নতুন প্রযুক্তি ব্যবহার করার চিন্তাভাবনাও শুরু হয়েছে ইতিমধ্যে। সঙ্গে সঙ্গে তিনি এটাও জানান যে, গঙ্গায় যখন জোয়ার আসে তখনই ভারী বৃষ্টি হয় কোলকাতায়। কারণ হিসাবে তিনি বললেন যে এই সময়টাই লকগেট গুলো বন্ধ করে দিতে হয়। তাই এই সময়ই সমস্যাগুলো বেশি ফেস্ করতে হয়। তবে পাম্পিং পদ্ধতির মাধ্যমেও গঙ্গায় জল ফেলার চিন্তাভাবনা করছেন তাঁরা।

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

তবে,আগামী দিনের ভারী বৃষ্টির মোকাবিলা করতে কী উদ্যোগ নিচ্ছেন কোলকাতা পৌরনিগম কর্তারা? এ প্রশ্ন করা হলে মেয়র পারিষদ জানান যে তাঁর কাছে আসা খবর অনুযায়ী আগামী তিনদিন ৭০-১১০ মিলিমিটার বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এটা যদি খেপে খেপে হয় তাহলে কোনো সমস্যা হওয়ার কথা নয় তবে একনাগাড়ে মুষলধারায় হলে নিয়ন্ত্রণ করা যাবে না। এর পাশাপাশি তিনি এটাও জানান তাঁদের কর্মীরা ২৪ ঘন্টাই কন্ট্রেল রুমে ডিউটিতে থাকেন।

 

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!