এখন পড়ছেন
হোম > আন্তর্জাতিক > মেসিদের কোচ হবার তালিকায় নাম জুড়লো আরো এক হেভিওয়েটের

মেসিদের কোচ হবার তালিকায় নাম জুড়লো আরো এক হেভিওয়েটের

চলতি রাশিয়া বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার চুড়ান্ত পরাজয় ঘটেছে। তার পর থেকেই চলছে নতুন কোচের সন্ধান। দলের ব্যর্থতায় প্রশিক্ষকের অপসারণ খেলার ইতিহাসে নতুন নয়। এমন টালমাটাল সময়েই আর্জেন্টিনা দলকে প্রশিক্ষণ দিতে এসেছিলেন ফুটবল জাদুকর দিয়েগো মারাদোনা। এবার সেই একই পথে হাঁটলেন আর্জেন্তাইন ফুটবলার মারিও কেমস। নিজের ফুটবলার কেরিয়ারও ছিল বর্ণময়। একটানা তিনটি বিশ্বকাপে খেলার রেকর্ড রয়েছে তার দখলে। আর্জেন্তাইন ফুটবল ফেডারেশন এখনই পরবর্তী কোচ নিয়ে চূড়ান্ত কোনও সিদ্ধান্ত না নিলেও কোচের যে অপসারণ হতে চলেছে সেই বিষয়ে কোনো দ্বিমত নেই। আর্জেন্টিনার জাতীয় ফুটবল প্রশিক্ষক পদে কে বসতে চলেছেন সেই নিয়ে শুরু হয়েছে জোড়ালো চর্চা। জানা গেছে, সম্ভাব্য প্রশিক্ষক পদের তালিকায় ম্যাঞ্চেস্টার সিটির কোচ পেপ গুয়ার্দিওয়ালা’র নামও রয়েছে। গোপণ সূত্রে খবর, পেপ গুয়ার্দিওয়ালা’র সঙ্গে মেসি’র অত্যন্ত সুসম্পর্ক।

প্রিয় বন্ধু বাংলার অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ – Priyo Bandhu Bengali

—————————————————————————————————————————————————-

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

গুয়ার্দিওয়ালা একসময়ে বার্সেলোনার কোচের পদেও ছিলেন। এবার সেই রসায়নকেই কাজে লাগাতে চাইছে আর্র্জেন্টিনা ফুটবল সংস্থা। ফুটবল বিশেষজ্ঞদের মতে, ফুটবলার মেসি ও কোচ গুয়ার্দিওয়ালা একজোট হলে আর্জেন্তাইন ফুটবলের সুদিন ফিরবে। এদিকে দলের ব্যর্থতা প্রসঙ্গে আর্জেন্তিনার সম্ভাব্য প্রশিক্ষক মারিও কেমস বলেন, “আর্জেন্তিনার মতো দেশের ফুটবল কোচের হটসিটে বসলে চাপ থাকবেই। তার মধ্যেই ফল দিতে হবে। দেশের হয়ে অতীতে খেলেছি। খারাপ সময়ে এবার মেসিদের কোচের পদে এসে নিজের সেরাটা দিতে চাই।” উল্লেখ্য মারিও কেমস ১৯৭৮ সালের বিশ্বকাপ ফাইনালে জোড়া গোল করেছিলেন । সেই বছরে নেদারল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৩-১ গোলে আর্জেন্তিনা বিশ্বজয়ী খেতাব পেয়েছিলো। ১৯৭৩-৮২ পর্যন্ত একটানা ৯ বছর দেশের হয়ে খেলেছেন এই ফুটবলার।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!