এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ভাটপাড়াকে শান্ত করতে নবান্নে বৈঠক

ভাটপাড়াকে শান্ত করতে নবান্নে বৈঠক

লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশের পর থেকেই রাজ্যের বিভিন্ন এলাকা রাজনৈতিক সংঘর্ষের জেরে উত্তপ্ত হতে শুরু করে। কিছুদিন আগেই সন্দেশখালিতে কিছু রাজনৈতিক কর্মীর মৃত্যুর ঘটনায় রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে এই অভিযোগ তুলে কেন্দ্রের কাছে রাজ্যের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে গেরুয়া শিবির। যা নিয়ে কিছুটা হলেও চাপে পড়ে রাজ্যের শাসক দল।

কিন্তু এই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই আজ ভাটপাড়ায় গুলি চালানোর ঘটনায় ফের রাজ্যের শাসকদলের বিরুদ্ধে সরব হতে শুরু করল বিজেপি। বস্তুত, এতদিন জগদ্দল থানার অন্তর্গত ভাটপাড়া পুলিশ ফাঁড়ি থাকলেও ভোটের পর এই জায়গায় ব্যাপক হিংসা ছড়িয়ে পড়ায় এখানকার পরিস্থিতি শান্ত করতে সেই জগদ্দল থানা ভেঙে সেখানে ভাটপাড়া থানা গড়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সেইমতো আজ এই ভাটপাড়া থানার উদ্বোধনের কর্মসূচি ছিল। কিন্তু এর আগে হঠাৎই ভাটপাড়া ফাঁড়ির 200 গজের মধ্যে ব্যাপক বোমা এবং গুলির লড়াই শুরু হয়। যে ঘটনায় রামবাবু সাউ নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এদিকে ভাটপাড়ায় গুলি চালানোর ঘটনায় শাসকদল এবং পুলিশ প্রশাসনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে সরব হয়েছেন ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংহ। আর পরিস্থিতি যাতে হাতের বাইরে না যায়, তার জন্য তড়িঘড়ি ভাটপাড়া নিয়ে নবান্নে বৈঠক শুরু হয়েছে বলে জানা গেছে।

যেখানে উপস্থিত রয়েছেন মুখ্য সচিব মলয় দে। অন্যদিকে এদিন ভাটপাড়ার থানা উদ্বোধন কর্মসূচিও স্থগিত করা হয়েছে। বিশেষজ্ঞদের মতে, নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশের পর থেকে যেভাবে রাজ্যে হিংসার ঘটনা ঘটে চলেছে, তাতে কিছুটা হলেও ব্যাকফুটে চলে গিয়েছিল শাসক দল।

আর তাইতো আজ ভাটপাড়ায় গুলি চালানোর ঘটনায় যাতে তাদের বিরুদ্ধে কেউ অভিযোগ তুলতে না পারে, তার জন্য তড়িঘড়ি গোটা বিষয় নিয়ে নবান্নে বৈঠক শুরু করেছে সরকার বলে মনে করছে একাংশ।

Top
error: Content is protected !!