এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > মোদীর মেদিনীপুরের সভা ঘিরে চড়ছে পারদ, পাল্টা প্রস্তুতি তৃণমূলেরও

মোদীর মেদিনীপুরের সভা ঘিরে চড়ছে পারদ, পাল্টা প্রস্তুতি তৃণমূলেরও

চলতি মাসে রাজ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আসন্ন রাজ্য সফরকে কেন্দ্র করে একাধারে যেমন বিজেপি দলের প্রস্তুতি চরমে একই ভাবে রাজ্যে রাজনৈতিক মহলে চলছে জোর চর্চা। জানা গিয়েছে আগামী ১৬ ই জুলাই অর্থাৎ প্রধানমন্ত্রীর রাজ্য সফরের আসার প্রধান কারণ মেদিনীপুরের জনসভার প্রস্তাবিত দিনেই জেলায় জেলায় কৃষকদের বিক্ষোভ সমাবেশের আহ্বান করেছে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। অন্যদিকে সিপিএমের পলিটব্যুরো একটি বিবৃতিতে জানিয়েছে ধান-সহ অন্যান্য খারিফ ফসলের ন্যূনতম মূল্য বৃদ্ধির মধ্য দিয়ে স্বামীনাথন কমিশনের সুপারিশ কার্যকর করা হয়েছে বলে কেন যে দাবি করছে তা আসলেই মিথ্যা এবং ভ্রান্ত। এদিন বিজেপির সর্বভারতীয় মুখপাত্র সৈয়দ শাহনওয়াজ হুসেন, প্রধানমন্ত্রীর সুখ্যাতি করে , তাঁর কর্মসূচী সম্পর্কে জানিয়ে বললেন , ”মোদীজি কৃষকদের হৃদয় জিতে নিয়েছেন। ফলে বিরোধীদের দুশ্চিন্তা শুরু হয়েছে। ১৬ জুলাই মেদিনীপুরে কৃষক কল্যাণ সমাবেশ করবেন মোদীজি।” এদিকে কিষান, খেতমজুর তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি বেচারাম মান্না জানালেন প্রধানমন্ত্রীর সভার দিনেই জেলায় জেলায় কালো ব্যাচ পরে বিক্ষোভ সমাবেশ করবেন তাঁদের সংগঠনের কৃষকরা।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

প্রধানমন্ত্রীর রাজ্য সফরে বিজেপির কর্মসূচী প্রসঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসের যুব সভাপতি তথা সাংসদ অভিষেকে ব্যানার্জী নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বললেন, ”দেশের বিভিন্ন রাজ্যে কৃষকেরা আত্মহত্যা করছেন। মধ্যপ্রদেশের পুলিশ যে ভাবে কৃষক হত্যা করেছে, তা সিঙ্গুর-নন্দীগ্রাম-নেতাইয়ের থেকেও নির্মম। এর পরে আর ওদের কৃষক-প্রেম দেখাতে হবে না! কৃষক, শ্রমিকরা জানেন, তাঁদের সুখ-দুঃখের সাথী কে।” একই সাথে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অবস্থান প্রসঙ্গে তিনি বললেন, ”মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে ভাবে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন, ২৯টি রাজ্যে কোথাও কেউ সে ভাবে দাঁড়াননি। পশ্চিমবঙ্গে কেমন উন্নয়ন হয়েছে, তা প্রধানমন্ত্রী দেখে যান!” প্রসঙ্গতঃ আগামী ২১ শে জুলাই তৃণমূল কংগ্রেসের বার্ষিক শহীদ দিবস পালনের অনুষ্ঠান। জানা যাচ্ছে এই অনুষ্ঠানের পরেই তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীর সভার পালটা সভা করার দলের শীর্ষ নেতৃত্বের তরফ থেকে ভাবা হচ্ছে । যদিও এই বিষয়ে দলের পক্ষ থেকে এখনও অবধি কোনো স্থির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি বলে জানা গিয়েছে। বাম শিবিরের মতে দেশের বিভিন্ন প্রান্তের কৃষক অসন্তোষ এবং সরকার বিরোধী কৃষক আন্দোলনের ফলে একপ্রকার শঙ্কিত কেন্দ্র সরকার আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে এই কৃষক অসন্তোষ স্তিমিত করতেই এই কৃষিজাত পণ্যের মূল্য বৃদ্ধির করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র। সেই কারণে বাম শিবির স্বামীনাথন কমিশনের সুপারিশ কার্যকর করার দাবিতে সমস্ত কৃষক আন্দোলনের সমর্থনে থাকবে এবং কেন্দ্র সরকারের মিথ্যাচার জনসমক্ষে প্রদর্শিত করবে বলেও জানালেন।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!