এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > জমজমাট মতুয়া রাজনীতি – মাটি কামড়ে লড়াইয়ের জন্য মোদির ব্রিগেডেও গেলেন না শান্তনু ঠাকুর

জমজমাট মতুয়া রাজনীতি – মাটি কামড়ে লড়াইয়ের জন্য মোদির ব্রিগেডেও গেলেন না শান্তনু ঠাকুর

আসন্ন বনগাঁ লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল বনাম বিজেপির লড়াই পারিবারিক রাজনীতির আকার নিয়েছে। একদিকে এখানে তৃণমূলের তরফে প্রার্থী হয়েছেন বিদায়ী সাংসদ তথা ঠাকুর পরিবারের অন্যতম সদস্যা মমতাবালা ঠাকুর এবং অন্যদিকে বিজেপির প্রার্থী হয়েছেন ঠাকুর পরিবারে অন্যতম সদস্য তথা মমতাবালা ঠাকুরেরই ভাইপো বলে পরিচিত শান্তনু ঠাকুর।

কিন্তু ঠাকুর পরিবারের এই দুই সদস্যের লড়াইয়ের মাঝেই এবার সৌজন্য বিনিময় করতে দেখা গেল বনগাঁ লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী মমতা বালা ঠাকুর এবং এখানকারই কংগ্রেস প্রার্থী সৌরভ প্রসাদকে। সূত্রের খবর, বুধবার ঠাকুরনগরের বারুনী মেলায় ঠাকুর বাড়িতে উপস্থিত হয়ে তৃণমূল প্রার্থী মমতাবালা ঠাকুরকে প্রণাম করে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে যাতে তিনি জয়লাভ করেন, তার জন্য আশীর্বাদ চাইলেন কংগ্রেস প্রার্থী সৌরভ প্রসাদ।

আর এই প্রবল লড়াইয়ের মাঝেও বঙ্গ রাজনীতিতে যে এখনও সৌজন্যতা বজায় রয়েছে তা এদিন তৃণমূল প্রার্থীকে প্রণাম করলেন রাজ্য ছাত্র পরিষদের সভাপতি তথা বনগাঁ লোকসভা কেন্দ্রের কংগ্রেস প্রার্থী সৌরভ প্রসাদ বলেই মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল। কিন্তু কেন হঠাৎ তিনি মমতাবালা ঠাকুরের পা ছুয়ে প্রনাম করলেন? এদিন এই প্রসঙ্গে সৌরভ প্রসাদ বলেন, “মমতা ঠাকুর আমার মাতৃতুল্য। তাই ঠাকুর বাড়িতে এসে আমি ওনাকে প্রণাম করে ওনার কাছে আশীর্বাদ নিয়েছি।”

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

কিন্তু আশ্চর্যজনকভাবে প্রধানমন্ত্রীর ব্রিগেড সমাবেশের দিন দক্ষিণবঙ্গের সমস্ত বিজেপি প্রার্থীদের কলকাতায় সেই প্রধানমন্ত্রীর সভামঞ্চে উপস্থিত থাকার জন্য দলের তরফে বার্তা দেওয়া হলেও এদিন বনগাঁ লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী শান্তনু ঠাকুরকে সেই ব্রিগেড সমাবেশের মঞ্চে কার্যত অনুপস্থিতই দেখা গেল। কিন্তু বারুণী মহামেলার কারণেই তিনি ঠাকুরনগরে উপস্থিত ছিলেন।

আর সেই কারণেই তিনি প্রধানমন্ত্রী সভায় উপস্থিত হননি বলে জানান এখানকার বিজেপি প্রার্থী শান্তনু ঠাকুর। এদিন তিনি বলেন, “আমি ভক্তদের সাথে রয়েছি। এটা আমার ধর্মীয় রীতি। তবে অনেক মতুয়া ভক্তকে আমি ব্রিগেডে পাঠিয়েছি।” সব মিলিয়ে একদিকে তৃণমূল ও কংগ্রেস প্রার্থীর সৌজন্যতা এবং অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রী কলকাতার ব্রিগেড সমাবেশে উপস্থিত হলেও মেলার কারণ দেখিয়ে সেই সমাবেশে অনুপস্থিতই দেখা গেল বনগাঁ লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী শান্তনু ঠাকুরকে। সব মিলিয়ে সৌজন্যতা এবং রাজনৈতিক তরজায় জমজমাট বনগাঁ লোকসভা কেন্দ্রের রাজনীতি।

আপনার মতামত জানান -
Top