এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > ম্যাসাঞ্জোর নিয়ে বাংলা-ঝাড়খণ্ডের প্রশাসনিক বৈঠক – চাপের খেলায় জিতল কে? বিজেপি না তৃণমূল?

ম্যাসাঞ্জোর নিয়ে বাংলা-ঝাড়খণ্ডের প্রশাসনিক বৈঠক – চাপের খেলায় জিতল কে? বিজেপি না তৃণমূল?

প্রশাসনের হস্তক্ষেপেও অবসান হলোনা দুই প্রতিবেশী রাজ্যের মধ্যেকার জটিলতার। ফলে স্বভাবতই ম্যাসাঞ্জোর সমস্যা বজায় রইলো। বুধবার প্রশাসনিক বৈঠকে অংশ গ্রহণ করতে বীরভূমের অতিরিক্ত জেলা শাসক রঞ্জনকুমার ঝাঁ ঝাড়খণ্ডের দুমকায় যান। সেখানে দুমকার জেলা কালেক্টর মুকেশ কুমারের সাথে দীর্ঘ সময় ব্যাপী বৈঠক হয়। বৈঠকের শেষে দুমকার জেলা কালেক্টর জানালেন, সমস্যা সমাধানে আরও আলোচনার প্রয়োজন রয়েছে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে।

প্রসঙ্গত, ম্যাসাঞ্জোর বাঁধের  রং ও প্রবেশ তোড়নে বিশ্ব বাংলা লোগো লাগানোকে কেন্দ্র করে বিজেপি শাসিত ঝাড়খণ্ড সরকারের সাথে পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল কংগ্রেস সরকারের বিরোধ বাঁধে। ঝাড়খণ্ড সরকারের অভিযোগ রাজনৈতিক উদ্দেশ্য চরিতার্থ করার জন্যে তৃণমূল কংগ্রেস শাসিত পশ্চিমবঙ্গ সরকার বাঁধের রঙ নীল সাদা করছে। একই সাথে ঝাড়খণ্ড সীমানার মধ্যে পশ্চিমবঙ্গের লোগো লাগানো নিয়েও ঝাড়খণ্ড সরকার বেশ বিব্রত ও হয়েছে। শুধু তাই নয় ঝাড়খণ্ড সরকার ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ করতে  প্রবেশ তোড়ন থেকে বিশ্ব বাংলা লোগো সরিয়ে ঝাড়খণ্ডের লোগো লাগিয়ে দিয়েছে।

দুই রাজ্যের এই বিরোধের ফলে ম্যাসাঞ্জোর বাঁধ রঙের কাজ স্থগিত হয়ে যায়। এরপরে এই পরিস্থিতি আরোও জটিল হয় ঝাড়খণ্ডের মন্ত্রী লুইস মারাণ্ডির মন্তব্যকে কেন্দ্র করে। দুই রাজ্যের প্রশাসনিক কর্তাদের এদিনের বৈঠকে দুমকার জেলা কালেক্টর , বীরভূমের অতিরিক্ত জেলা শাসককে কার্যত সওয়াল করলেন ঝাড়খণ্ডে বিশ্ব বাংলা লোগো লাগানোর অনুমতি কী পশ্চিমবঙ্গ সরকার দিয়েছেন ? যদিও এদিনের বৈঠক শেষে এই রাজ্যের প্রশাসনিক কর্তা বৈঠক প্রসঙ্গে কোনো মন্তব্যই করতে আগ্রহ প্রকাশ করেননি।

 

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!