এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > মাশুল বাড়িয়ে জিও উৎকণ্ঠা বাড়ালেও স্বস্তির হাত বাড়িয়ে দিচ্ছে এয়ারটেল-ভোডাফোন

মাশুল বাড়িয়ে জিও উৎকণ্ঠা বাড়ালেও স্বস্তির হাত বাড়িয়ে দিচ্ছে এয়ারটেল-ভোডাফোন

রিলায়েন্স জিও যখন টেলিকমের বাজারে পা দিয়েছিল তখন চারিদিকে হই হই রব উঠেছিল কারণ জিওর তরফ থেকে সাধারণ গ্রাহকদের জন্য ছিল অসাধারণ সব স্কিম। যার ফলে অন্যান্য নেটওয়ার্ক ছেড়ে বহু মানুষ রিলায়েন্স জিওতে পদার্পণ করেন‌। ফলস্বরূপ রিলায়েন্স জিওর গ্রাহক সংখ্যা দ্রুত রেকর্ড ছাড়ায়। অন্যান্য টেলিকম সংস্থাগুলি কিছুটা বাধ্য হয়েই সাধ্যের মধ্যে থেকে সাধারণের জন্য কিছু কিছু স্কিম নিয়ে আসেন।

কিন্তু সস্তার বাজার থেকে ইচ্ছা থাকলেও এগিয়ে যেতে পারে না কোন টেলিকম সংস্থাই। কিন্তু এবার জিওর সুবিধা আস্তে আস্তে শেষ হতে চলেছে। এবার রিলায়েন্স জিও ঘোষণা করেছে তাদের নেটওয়ার্ক থেকে অন্য নেটওয়ার্কে ফ্রিতে কল করা যাবে না। সে ক্ষেত্রে দিতে হবে আই ইউ সি চার্জ অর্থাৎ ইন্টারকানেক্ট ইউজেস চার্জ ।

এরফলে জিও গ্রাহক দের অন্য নেটওয়ার্কে কল করতে গেলে প্রতি মিনিটে 6 পয়সা করে দিতে হবে। জিওর ঘোষণার পরেই হুলুস্থুলু পরিবেশের সৃষ্টি হয়। জিও গ্রাহকদের মধ্যে এক অজানা আতঙ্কের সৃষ্টি হয়।

শুধু জিও গ্রাহকদের মধ্যেই নয়, আতঙ্ক ছড়ায় অন্য নেটওয়ার্কের গ্রাহকদের মধ্যেও। তাঁদের ভয় ধরে, এবার কি এয়ারটেল, ভোডাফোন, আইডিয়ার মত কোম্পানিগুলো এই এক্সট্রা চার্জ বসাতে শুরু করবে আউটগোয়িং কলের ক্ষেত্রে ?

সবাইকে নিশ্চিন্ত করে জিওর প্রতিদ্বন্দ্বী সংস্থা এয়ারটেল, ভোডাফোন, আইডিয়া জানিয়ে দিয়েছে তাঁদের স্কিমের কোন পরিবর্তন হবেনা। ভোডাফোন আইডিয়া সর্বপ্রথম তাঁদের সিদ্ধান্ত জানায়। তাঁরা বলে যে জিওকে তাঁরা অনুসরণ করছেনা। তাই অন্য নেটওয়ার্কে ফোন করতে গেলে কোন অতিরিক্ত চার্জ নেওয়া হবে না। ভোডাফোন আইডিয়া থেকে অন্য নেটওয়ার্কে কল করতে গেলে যদি কোন গ্রাহক এক মাস অথবা তিনমাসের আনলিমিটেড প্যাক রিচার্জ করে নেন, তাহলে তিনি যেকোনো নেটওয়ার্কেই বিনামূল্যে ফোন করতে পারবেন।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে এয়ারটেল এখনো পর্যন্ত এই নিয়ে পরিষ্কারভাবে কোন কথা বলেনি। তাঁদের বক্তব্য অবশ্য কিছুটা জিও ঘেঁষা। আই এয়ারটেলের গ্রাহকরা আপাতত তাঁদের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় রয়েছে। তবে এয়ারটেল জানিয়েছে টেলিকম শিল্পে আই ইউ সি চার্জের প্রয়োজন আছে।

এয়ারটেলের বক্তব্য, যেসব নেটওয়ার্ক এখনো টুজি পরিষেবা দেয় তাঁদের জন্য এই চার্জ অবশ্যই প্রয়োজন। তাঁরা আরো জানিয়েছে, প্রায় 400 মিলিয়ন গ্রাহক এখনো পর্যন্ত টুজি সার্ভিস পেয়ে থাকেন। যখন টেলিকম সংস্থা লসে চলে তখন এই আইইউসি চার্জ 2g পরিষেবা দিতে সহায়তা করে।

আপাতত নিশ্চিন্ত নিঃশ্বাস ফেলেছে ভোডাফোন আইডিয়ার গ্রাহকেরা। তাদের কোনো অতিরিক্ত মাশুল দিতে হবে না আউটগোয়িং কল এর ক্ষেত্রে। এয়ারটেল আই ইউ সি চার্জকে সমর্থন করলেও এখনো পর্যন্ত তারা এই চার্জ চালু করেনি। ফলে এয়ারটেল গ্রাহকরা আপাতত স্বস্তিতে থাকতে পারেন। কিন্তু জিওর গ্রাহকেরা রীতিমত আশঙ্কিত, কারণ জিওর অবস্থানের কোন নড়চড় হয়নি। তাদের একই রকম সিদ্ধান্ত রয়েছে। জিও ছাড়া অন্য নেটওয়ার্কে ফোন করলে প্রতি মিনিটে 6 পয়সা করে দিতে হবে।

এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে টেলিকম সংস্থার একাংশের বক্তব্য মোবাইল নেটওয়ার্কে আই ইউ সি চার্জের ফলে টেলিকম সংস্থাগুলির উন্নতি হবে বলেই মনে করা হচ্ছে। এতদিন পর্যন্ত জিও পুরো ব্যাপারটিই ফ্রি করে রেখেছিল। কিন্তু এবার আর তা সম্ভব হচ্ছে না। জিওর এই সিদ্ধান্তের ফলে আপাতত অন্যান্য টেলিকম সংস্থাগুলি কোন বদল আনছে না। তবে এটা চিরস্থায়ী ভেবে নিলে ভুল করা হবে। সমগ্র পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছেন টেলিকম বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!