এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > শুভেন্দু অধিকারীকে পাশে বসিয়ে নবান্ন থেকে বড় ঘোষনা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

শুভেন্দু অধিকারীকে পাশে বসিয়ে নবান্ন থেকে বড় ঘোষনা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

সম্প্রতি দেশে পেট্রোল ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধিতে নাভিশ্বাস উঠেছিল মধ্যবিত্তের। আর এই মূল্যবৃদ্ধির আঁচ এসে লেগেছিল বাস মালিকদেরও। বেশি ভাড়া নেওয়ায় যাত্রীদের সাথে প্রায়শই বাদবিশম্বাদ লেগেই থাকত বাস-কর্মচারীদের। ফলে ভাড়া বৃদ্ধির দাবিতে লাগাতার বাস ধর্মঘটের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন তাঁরা, যার ফল ভুগতে হত সাধারণ মানুষকে। তবে এবার সেই সমাধানে গুরুত্ত্বপূর্ন পদক্ষেপ নিল রাজ্য তারকার। বেসরকারী বাসমালিকদের আবেদনে সাড়া দিয়ে বাস ও মিনিবাসের ভাড়া বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার, ফলে রাজ্যবাসী বেঁচে গেলেন লাগাতার বাস ধর্মঘটের হাত থেকে। গত মঙ্গলবার এই ইস্যুতে রাজ্যের পরিবহন মন্ত্রীকে পাশে বসিয়ে নবান্নে বাসমালিকদের সাথে বৈঠক করেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৈঠকের শেষে পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী বলেন, মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে প্রতি স্তরে ১ টাকা করে ভাড়া বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি লঞ্চ ও ট্যাক্সিরও ভাড়া বৃদ্ধি করা হবে। রাজ্য পরিবহন দপ্তর সূত্রে খবর, সাময়িক ভাবে পেট্রোল ডিজেলের এই মূল্যবৃদ্ধির জন্যই এই ভাড়া বৃদ্ধি করা হচ্ছে। তবে পেট্রোপন্যের দাম স্বাভাবিক হলেই এই বাস ভাড়াও কমিয়ে দেওয়া হতে পারে।

তবে এখনই গোটা রাজ্যে নয়,শুধুমাত্র শহর কোলকাতাতেই বাড়ছে বাস-মিনিবাসের এই ভাড়া। ফলে বাস মালিকদের তরফে জানানো হয়েছে, আপাতত তাঁরা আর ধর্মঘটের রাস্তায় যাচ্ছেন না। জানা গেছে, বাস ও মিনিবাসের ক্ষেত্রে বছর চারেক আগে শেষ ভাড়া বাড়িয়েছিল রাজ্য সরকার। সেইসময় বেসরকারি বাসের ন্যূনতম ভাড়া করা হয়েছিল ৬ টাকা ও মিনিবাসের জন্য ৭ টাকা। এখানেই বাসমালিকদের অভিযোগ, পেট্রোপন্য মূল্যবৃদ্ধির বাজারেও গত চারবছরে সরকারি বাসের ভাড়া বাড়ালেও বেসরকারি ও মিনিবাসের ভাড়া না বাড়ানোয় প্রবল ক্ষতির মুখে পড়ে তাঁরা একসময় ধর্মঘটের ডাক দিতে বাধ্য হয় বলে দাবি করেছেন। তবে সরাসরি মুখ্যমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে ও পরিবহন মন্ত্রীর উপস্থিতিতে নবান্নে বেসরকারি বাসমালিকদের নিয়ে বৈঠকে কিছুটা ভাড়া বাড়ানোয় আশার আলো দেখছেন বেসরকারি বাস মালিক ও সংগঠনের কর্তারা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!