এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > মোদী-বিরোধিতায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জাতীয় রাজনীতিতে গুরুত্ত্ব ক্রমশ বাড়ছে

মোদী-বিরোধিতায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জাতীয় রাজনীতিতে গুরুত্ত্ব ক্রমশ বাড়ছে

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বিরোধীদের একছাতার তলায় আবার নিয়ে আসার চেষ্টায় তৃণমূল কংগ্রেস দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মাত্র কয়েক মাস আগেই রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের সময় মোদী-বিরোধীদের এক গোষ্ঠীভুক্ত করে তাদের এক ছাতার তলায় আনতে সচেষ্ট হয়েছিলেন কংগ্রেসের তত্‍কালীন সর্বভারতীয় সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী। আর সেই প্রক্রিয়াকে বাস্তবায়িত করতে বড় ভূমিকা নিয়েছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সদ্য হয়ে যাওয়া গুজরাট নির্বাচনের ফল নরেন্দ্র মোদী বিরোধীদের নতুন করে উৎসাহিত করেছে। আর তার জেরেই জাতীয় রাজনীতিতে আরও প্রাসঙ্গিক হয়ে ওঠার সম্ভবনা রয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসের নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। ২০১৪ সাল থেকেই তৃণমূল দলনেত্রী যে ভাবে বিজেপি বিরোধিতায় সরব হয়ে প্রচারকার্য চালাচ্ছেন তাতে জাতীয় রাজনীতির প্রেক্ষাপটে তাঁর আধিপত্য বাড়াতে সাহায্য করছে বলে মনে করছেন তাঁরা।
২০১৪ সালের লোকসভা ভোটের সময় মোদী বিরোধী হিসাবে সুপরিচিতি লাভ করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আর সেই সময় বিজেপির প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থীর বিরুদ্ধে নানা বিতর্কেও সরব হয়েছিলেন তিনি। এছাড়া নরেন্দ্র মোদী প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর সৌজন্য জানিয়ে তাঁকে শুভেচ্ছা পর্যন্ত জানাননি তিনি। আর তারপরে গঙ্গা দিয়ে বহু জল গড়িয়ে গেলেও এই দুই নেতার মধ্যে সম্পর্ক স্বাভাবিক হয়ে গেছে এমন অভিযোগ কেউ করতে পারবেন না। উল্টে মোদী বিরোধিতায় আরো বেশি করে সুর চড়িয়েছেন তিনি ও তাঁর দলীয় সাংসদরা। নোট বাতিল থেকে জিএসটি সবক্ষেত্রেই মুখ্যমন্ত্রীর গলায় কেন্দ্রের বিরুদ্ধে কড়া সমালোচনার সুর শোনা গিয়েছে। সূত্রের খবর, এই সকল কারণেই জাতীয় ক্ষেত্রে কংগ্রেসের সঙ্গে তৃণমূলের সখ্যতা বাড়ছে, আর যার ফলস্বরূপ ১৭ দলের বৃহত্তর বিরোধী জোটে অন্যতম ভূমিকা নিতে চলেছেন বাংলার অগ্নিকন্যা। আর তাই রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের ধারণা ২০১৯ এর লোকসভা ভোটের দিকে তাকিয়ে দিন দিন বৃদ্ধি পেতে বাধ্য জাতীয় রাজনীতিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের গুরুত্ত্ব, এমনকি আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বিজেপিকে সরিয়ে বিরোধীরা সরকার গড়ার মত পরিস্থিতি তৈরি করতে পারলে অন্যতম নির্ণায়ক ভূমিকা বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর হাতেই থাকবে বলে মনে করছেন তাঁরা।

Top
error: Content is protected !!