এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > কি হলো মমতা- চিকিৎসকদের বৈঠকের ফলাফল, জেনে নিন

কি হলো মমতা- চিকিৎসকদের বৈঠকের ফলাফল, জেনে নিন

নবান্নে এনআরএস এর জুনিয়রদের সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠক ফলপ্রসূ হয়েছে |আন্দোলনকারীদের এক সপ্তাহের মধ্যে কাজে যোগ দিতে অনুরোধ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় | এক সপ্তাহের মধ্যে সংকট কাটার ইঙ্গিত দিয়েছেন জুনিয়র ডাক্তাররা |আন্দোলনকারীদের মতে, ডাক্তার নিগ্রহ বর্তমানে স্পর্ধায় পরিণত হয়েছে, এ ব্যাপারে তারা মুখ্যমন্ত্রীকে যথার্থ পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য অনুরোধ করেছেন |এই ফলপ্রসূ বৈঠক শেষে এনআরএস এর আন্দোলনকারীদের স্লোগান চলে “আমরা কারা লক্ষ্মী ছেলে “|

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

 

‘তোমাদের সমস্ত দাবি দাবি মেনে নেওয়া হয়েছে… এবার কাজে যোগ দাও, তাহলে..’ এই সুরেই নবান্নে সপ্তাহব্যাপী স্বাস্থ্য জটের ইতি টানলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়।
দুপুর ৩ টের সময় নবান্ন থেকে ডাক্তারদের মিডিয়ার লাইভ কভারেজের দাবি মেনে নেওয়া হলে নবান্নে চিকিত্‍সকদের প্রতিনিধি দল পৌঁছয় নির্ধারিত সময়ের পর।আর তার কিছু সময় পরে বৈঠকে যোগ দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন বৈঠকে হাজির ছিলেন বিশিষ্ট চিকিত্‍সকরা, ছিলেন রাজ্যের স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। বৈঠকে , রাজ্যের হাসপাতাল , স্বাস্থ্য কেন্দ্রের স্বাস্থ্য পরিকাঠামো , চিকিত্‍সকদের নিরাপত্তা , রোগী পরিষেবা সহ একাধিক বিষয়ের মোট ১২ দফা দাবি পেশ করেন জুনিয়র চিকিত্‍সকরা।’তোমাদের সমস্ত দাবি দাবি মেনে নেওয়া হয়েছে… এবার কাজে যোগ দাও, তাহলে..’ এই ভাবেই দাবি মেনে মুখ্যমন্ত্রী চিকিৎসকদের আহ্বান জানান।

সাথেই বৈঠক শেষে বললেন ,’এখানে মিষ্টি করে বলে যাও কর্মবিরতি তোলার কথা, এখানে (এনআরএস) এ গিয়ে নয় তোমাদের মতো করে বোলো..!’ চিকিত্‍সক প্রতিনিধি দলের তরফেও সেই প্রস্তাবে সম্মতির হাসি ফুটে উঠলো।
এদিন মুখমন্ত্রী ‘তোমরা কাজে যোগ দাও, আমি ভাইটিকে গিয়ে হাসপাতালে তাহলে দেখে আসতে পারি..। তোমাদের জন্যই তো যেতে পারছি না। ..আমি কোনও কাজ দেরিতে করতে পছন্দ করি না।’ বলে অনুরোধ করেন বলেও জানা গেছে।

যদিও এদিন জুনিয়র চিকিত্‍সকরা মুখ্যমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ করেন যে, , এনআরএস-এ যেন একবার মুখ্যমন্ত্রী যান, তাঁরা কার্যত হাত জোড় করে ‘ম্যাডাম’ কে নিজেদদের আবেদন-আমন্ত্রণ জানান। এদিকে এই প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী জানান যে, কোথায় তিনি যাবেন ,আর যাবেন না সেটা তাঁর নিজস্ব সিদ্ধান্ত। তবে ভবিষ্যতে এনআরএস ঘুরে আসতেই পারেন।

এদিকে পদবি দেখে চিকিৎসা করা নিয়েও এদিন ডাক্তাররা প্রতিবাদ করেন। এই নিয়ে কলকাতা মেডিক্য়াল কলেজের প্রতিনিধি অর্চিষ্মান ভট্টাচার্য বলেন, ‘ম্যাডাম.. আমরা কিন্তু পদবী দেখে রোগী দেখিনা..’। এর উত্তরে মুখমন্ত্রী জানান যে, ‘করা উচিতও নয়।’

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!