এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > দিদির মুকুটে নতুন পালক, বাংলার দেখানো পথেই ১০০ দিনের কাজ এগোতে চাইছে বিজেপি শাসিত রাজ্য

দিদির মুকুটে নতুন পালক, বাংলার দেখানো পথেই ১০০ দিনের কাজ এগোতে চাইছে বিজেপি শাসিত রাজ্য

১০০ দিনের কাজে পশ্চিমবঙ্গের সাফল্যে মুগ্ধ হয়ে এবার এই রাজ্যকেই মডেল করে উন্নয়ন চাইছে মহারাষ্ট্র। রাজ্যের মালদহ জেলায় এই মডেলের সাফল্যের খবর এখন এতই জনপ্রিয় হয়ে গিয়েছে যে সেই মডেলকে অনুকরণ করার লক্ষ্যে মহারাষ্ট্রে প্রকল্পের রাজ্য কমিশনার এআরএস নায়েক এদিন এই রাজ্য সফরে এসে মালদহের ১০০ দিনের প্রকল্প খতিয়ে দেখে গেলেন । মহারাষ্ট্রের প্রতিনিধিরা শুধু মালদহই নয় জলপাইগুড়ি এবং শিলিগুড়ি মহকুমা পরিষদ এলাকার একাধিক প্রকল্পও ঘুরে দেখলেন। তবে মালদহ প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে মহারাষ্ট্র প্রশাসন নিজেদের রাজ্যে মূলত মালদহের প্রকল্পকেই মডেল করে কাজ করতে চাইছে। শুধু তাই নয় প্রশাসন সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, সমন্বায়িত প্রকল্প অর্থাৎ যেখানে ১০০ দিনের কাজ প্রকল্পকে অন্যান্য প্রকল্পের সঙ্গে সংযুক্ত করে করা হয়েছে সেই কারণে মালদহকেই মডেল করতে চায় মহারাষ্ট্র। চলতি সপ্তাহে দুদিন মহারাষ্ট্রের প্রকল্প কমিশনার মালদহের ৯টি সমন্বায়িত প্রকল্প ঘুরে দেখেন যার মধ্যে মালদহের সাগরদিঘির জল পর্যটন ও জলক্রীড়া প্রকল্প, আদিনার ইকোপার্ক, ইংলিশবাজারের ফ্লাই অ্যাশ ইঁট সহ আরও বেশ কয়েকটি প্রকল্পের প্রতি প্রতিবেশী রাজ্যের সরকারী অধিকর্তাদের আগ্রহ জন্মেছে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

জেলা প্রশাসনের মতে নিঃসন্দেহে এটি জেলার জন্যে একটা বড় স্বীকৃতি। এই প্রসঙ্গে মালদহের জেলাশাসক কৌশিক ভট্টাচার্য বললেন, ” মহারাষ্ট্র প্রশাসনের কর্তারা প্রাথমিক সমীক্ষা করে মালদহকে নির্বাচন করেছিলেন। আমাদের যাবতীয় প্রকল্প, যেগুলি ১০০ দিনের কাজ ও অন্যান্য দপ্তরের সমন্বয়ে তৈরি, তা দেখিয়েছি। এই অভিজ্ঞতাকে ওঁরা নিজেদের রাজ্যে ব্যবহার করতে চান বলে জানিয়েছেন।” মহারাষ্ট্রের প্রতিনিধি দলের জেলা সফরে সরকারী প্রকল্প পরিদর্শনের সময়ে তাঁদের সমস্ত প্রকল্প প্রয়োজনীয় বিবরণ সহযোগে ঘুরে দেখিয়েছেন জেলার ১০০ দিনের কাজ প্রকল্পের নোডাল অফিসার সুকান্ত সাহা। জেলার এই স্বীকৃতি প্রসঙ্গে তিনি বললেন, “আমাদের ৯টি প্রধান প্রকল্প আমরা ঘুরিয়ে দেখিয়েছি। এরমধ্যে সাগরিদিঘির পর্যটন ও ওয়াটার স্পোর্টস, স্প্রিঙ্কলার পদ্ধতিতে গাছের চারা তৈরি, আমবাগানে কিচেন গার্ডেন, মাসরুম প্রকল্প, ফ্ল্যাই অ্যাশ দিয়ে ইঁট তৈরি, আদিনার ইকো পার্কের মতো প্রকল্পগুলি ওঁরা পরিদর্শন করেছেন। আমাদের উদ্যোগ ভিনরাজ্যে প্রশংসিত হচ্ছে এটা জেলা ও রাজ্যের জন্য বড় পাওনা। ” জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে বিগত কয়েকবছর ধরেই একশো দিনের কাজ প্রকল্পকে অন্যান্য বিভাগের সঙ্গে জুড়ে দিয়ে বৃহত্তর কাজ করা শুরু হয়েছিল। এই সম্মিলিত প্রকল্পের সাফল্যের খবরে অনুপ্রাণিত হয়েই প্রতিবেশি রাজ্যের সরকারী অধিকর্তারা পশ্চিমবঙ্গে এসে তাদের অভিষ্ট প্রকল্প সম্পর্কে বিশদে খোঁজ খবর করে গেলেন।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!