এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বিজেপিকে চাপে ফেলতে নয়া কৌশল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের, জোর গুঞ্জন

বিজেপিকে চাপে ফেলতে নয়া কৌশল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের, জোর গুঞ্জন

Priyo Bandhu Media

লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশের পর থেকেই যেন বাংলার রাজনীতি ধর্মকে নিয়ে আবর্তিত হতে শুরু করেছে। কখনও জয় শ্রীরাম এবং তার পাল্টা জয় হিন্দ, আবার কখনও বা মা দুর্গাকে নিয়ে শাসক বিরোধীদের মধ্যে টানাটানি, বঙ্গ রাজনীতিতে আশ্চর্য এই রেওয়াজ হয়ত কখনও কেউ দেখেনি, কিন্তু বর্তমানে তা চরম আকার ধারণ করেছে।

রাজ্যের বিরোধী দল বিজেপির দাবি, মুখ্যমন্ত্রী কোনো একটি নির্দিষ্ট সম্প্রদায়কে তোষণ করছেন। রাজ্যে হিন্দুদের কার্যত অবলুপ্তির দিকে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে। তবে বরাবরই সেই অভিযোগকে নস্যাৎ করে তিনি সর্বধর্ম সমন্বয়ে বিশ্বাসী বলে জানিয়ে দিতে দেখা গিয়েছিল তৃণমূল নেত্রী তথা বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। আর এবার গৌড়ীয় মঠের শ্রী মহাপ্রভু শ্রীচৈতন্য মিউজিয়াম উদ্বোধন করতে গিয়ে সেই কথাই ফের আরও একবার বুঝিয়ে দিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী।

পাশাপাশি হিন্দু ধর্মের জন্য তিনি যা করেছেন, তা আর কেউ করেননি বলেও পরোক্ষে নরেন্দ্র মোদির উদ্দেশ্যে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিতেও দেখা গেল তাকে। সূত্রের খবর, এদিন এই বাগবাজারের মিউজিয়াম উদ্বোধন করতে গিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “বিগত চার বছরে রাজ্যের সমস্ত ধর্মস্থানের উন্নয়ন করা হয়েছে। সব ধর্মকেই আমরা সম্মান করি। তবে হিন্দু প্রমাণ করার বাসনা আমার নেই। আর তাই জগন্নাথ মন্দিরে গিয়ে আমি নিজেকে হিন্দু প্রমাণ করতে চাই না।”

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, আসলে এই ব্যাপারে নরেন্দ্র মোদী এবং বিজেপিকে নাম না করেই কটাক্ষ করলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। অন্যদিকে এদিন তিনি গৌড়ীয় মঠে তার নিজস্ব তহবিল থেকে 50 লক্ষ টাকা দেওয়ার কথাও ঘোষণা করেন। পাশাপাশি এই মঠকে পর্যটন সার্কিটের অন্তর্ভুক্ত করা হবে বলেও জানিয়ে দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এরপরই এদিনের সভামঞ্চ থেকে বাংলায় বিভিন্ন দুর্গাপুজোগুলিকে আয়কর দপ্তরের পক্ষ থেকে নোটিশ পাঠানো নিয়ে পরোক্ষে গেরুয়া শিবিরের বিরুদ্ধে সরব হতে দেখা যায় বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে।

এদিন তিনি বলেন, “বাংলায় দূর্গাপূজো বন্ধের চক্রান্ত করা হচ্ছে। বাংলাকে ভয় দেখানোর চেষ্টা করে কোনো লাভ হবে না। এই রাজ্যে হাজার হাজার পুজো হয়। দিল্লীতে বসে বাংলার দুর্গাপুজো বন্ধের চক্রান্ত করা হচ্ছে।” সব মিলিয়ে এবার গৌড়ীয় মঠের অনুষ্ঠানে মিউজিয়ামের উদ্বোধন করে সর্বধর্মের প্রতীক বলে নিজেদেরকে তুলে ধরে বিজেপিকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করে কাঁটা দিয়ে কাঁটা তোলার চেষ্টা করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!