এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বড়সড় ধাক্কা খেলো মমতা সরকার, শেষ হাসি হাসলো বিজেপি

বড়সড় ধাক্কা খেলো মমতা সরকার, শেষ হাসি হাসলো বিজেপি

লোকসভা নির্বাচন মিটতে না মিটতেই এবার ফের আদালতের কাছে ধাক্কা খেতে হল রাজ্য সরকারকে। যার জেরে দীর্ঘদিন ধরে ঝুলে থাকা পুরুলিয়ার বরাবাজার পঞ্চায়েত সমিতির দখল নিতে দেখা গেল বিজেপি-কংগ্রেস জোটকে।

প্রসঙ্গত, 28 আসন বিশিষ্ট এই বরাবাজার পঞ্চায়েত সমিতিতে গত 2018 পঞ্চায়েত ভোটের সময় তৃণমূল 14, বিজেপি 13 এবং কংগ্রেস একটি আসন পেয়েছিল। আর তখনই বোর্ড গঠনের সময় বিজেপির দিকে কংগ্রেসের এক সদস্য সমর্থন করলে বিজেপি এবং তৃণমূলের সদস্যসংখ্যা সমান সমান হয়ে যায়। আর এরপরই লটারি করে সেখানে কংগ্রেস-বিজেপি জোট প্রার্থী রামজীবন মাহাতোকে পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত করলে তীব্র বিবাদ শুরু হয়।

অভিযোগ, জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এই বোর্ড গঠনের প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ স্থগিত করে দেওয়া হয়। এদিকে এরপর থেকেই বিগত প্রায় দশ মাস ধরে এই পুরুলিয়ার বরাবাজার পঞ্চায়েত সমিতিতে কারা বোর্ড গঠন করবে, তা নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা চলছিল। কিন্তু এদিন সেই সমস্ত কিছুর সমাধান হল। যেখানে জয় হল সেই বিজেপি-কংগ্রেস জোটেরই।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

জানা গিয়েছে, এদিন কলকাতা হাইকোর্টের পক্ষ থেকে এই পুরুলিয়ার বরাবাজার পঞ্চায়েত সমিতিতে বিজেপি, কংগ্রেস জোটের প্রতি সবুজ সংকেত দেওয়ায় কিছুটা হলেও বিপাকে পড়েছে শাসকদল। সূত্রের খবর, আগামী সোমবার এই পঞ্চায়েত সমিতির আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব নেবে বিরোধী জোট।

এদিকে জয় পেয়ে এদিন প্রবল উজ্জীবিত হতে দেখা গেছে গেরুয়া শিবিরকে। এদিন এই প্রসঙ্গে পুরুলিয়া জেলা বিজেপির সভাপতি বিদ্যাসাগর চক্রবর্তী বলেন, “এটা আমাদের বড় জয়। উচ্চ আদালতের প্রতি আমাদের আস্থা ছিল। প্রশাসনকে ব্যবহার করে, কারচুপি করিয়েও কোনো কাজ হয়নি।” সব মিলিয়ে দীর্ঘদিন ধরে আইনি জটে ঝুলে থাকা পুরুলিয়ার বরাবাজার পঞ্চায়েত সমিতিতে অবশেষে শাসক দলকে বিপাকে ফেলে শেষ হাসি হাসল বিরোধীরাই।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!