এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > কেন্দ্রবিরোধী আন্দোলন নিয়ে বন্ধুর হয়ে সওয়াল মমতা ব্যানার্জীর

কেন্দ্রবিরোধী আন্দোলন নিয়ে বন্ধুর হয়ে সওয়াল মমতা ব্যানার্জীর

আম আদমি পার্টির মুখপাত্র তথা দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরীওয়ালের পাশে দাঁড়াতে দেখা গেল রাজ্যের নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ফের একবার। এর আগেও বিভিন্ন ইস্যুতে তাঁদেরকে একে অপরের সমর্থন করতে দেখা গেছে। এই মিত্রতা অব্যাহত রাখার প্রয়াস দেখা গেলো এদিন সোশ্যাল মিডিয়ায়। সম্প্রতি ট্যুইট করে নেত্রী বিজেপি বিরোধী নেতার পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিলেন। জানালেন যে,কেজরিওয়াল একজন নির্বাচিত মুখ্যমন্ত্রী। তাতে সম্মান জানানো দিল্লির উপরাজ্যপালের কর্তব্য। সাধারণ মানুষের সমস্যা যাতে কম হয় তার সমাধানকল্পে এগিয়ে আসা উচিৎ উপরাজ্যপালকে। কিন্তু কেন বঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী হঠাৎ এই মন্তব্য করলেন ট্যুইটারে। এর কারণ খুঁজতে আসুন চোখ রাখা যাক মূল খবরে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

রাজনৈতিক সূত্রের খবর থেকে জানা গেল,দিল্লির উপরাজ্যপালের কাজকর্মে ভীষণভাবে ক্ষুব্ধ মুখ্যন্ত্রী কেজরীওয়াল। দাবীতে তিনি জানান যে, সাধারণ মানুষের কাজগুলো ঠিকভাবে পালন করছেন না উপরাজ্যপাল। তাই উপেক্ষিত মানুষগুলোর জন্যেই উপরাজ্যপালের বাড়িতেই ধর্নায় বসেন কেজরীওয়াল। দুদিন ধরে চলছে তাঁর এই ‘সার্জিক্যাল স্ট্রাইক’। আসলে গত ফেব্রুয়ারি মাসে দিল্লি সরকারের মুখ্যসচিবকে জনসমক্ষে অপমানিত করার অভিযোগ উঠেছিলো। এরপরই দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী কেজরীওয়ালের তরফ থেকেও পাল্টা অভিযোগের তীর ছোঁড়া হয়। জানানো হয় যে, আইএসকর্তারা নাকি মন্ত্রীদের কাজে কোনো সহযোগীতা করছে না, তাঁদের ফোন তোলার প্রয়োজন মনে করছে না। এরফলে অসুবিধায় পড়ছে আমজনতা। আর এইসব আইএস অফিসারদের সমর্থন করতে দেখা গেছে দিল্লির উপরাজ্যপালকে। তাই কেজরীওয়ালের সমস্ত ক্ষোভ গিয়ে কেন্দ্রীভূত হয় তাঁর উপর। তার জেরেই এই অনশন কর্মসূচি দিল্লিশাসকের। কেজরিওয়ালের ঘাঁটি আরো শক্ত হলো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমর্থন পেয়ে। তবে এই ধর্না কতদিন চলবে তাঁর কোনো আগাম ইঙ্গিত পাওয়া যায়নি দিল্লির রাজনৈতিক সূত্রের খবর থেকে।

Top
error: Content is protected !!