এখন পড়ছেন
হোম > আন্তর্জাতিক > নির্বাচন শুরু হতেই তৃণমূল নেত্রীর মুকুটে পালক – জেনে নিন বিস্তারিত

নির্বাচন শুরু হতেই তৃণমূল নেত্রীর মুকুটে পালক – জেনে নিন বিস্তারিত

Priyo Bandhu Media

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের দামামা বাজার সাথে সাথেই যখন রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে অনুন্নয়নকে হাতিয়ার করে ভোট ময়দানে নামছে বিরোধীরা, ঠিক তখনই এবার সেই রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের সাফল্যের মুকুটে ফের যুক্ত হল নয়া পালক। সূত্রের খবর, রাষ্ট্রসঙ্ঘের ওয়ার্ল্ড সামিট’ অন দি ইনফরমেশন সোসাইটি আয়োজিত বিশ্বব্যাপী প্রতিযোগিতার চার নম্বর ক্যাটাগরি ক্যাপাসিটি বিল্ডিংয়ে বিশ্বসেরা হয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মস্তিষ্কপ্রসূত প্রকল্প “উৎকর্ষ বাংলা প্রকল্প।

প্রসঙ্গত, এর আগে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মস্তিষ্কপ্রসূত “কন্যাশ্রী” প্রকল্প সারা বিশ্বের দরবারে সমাদৃত হয়েছে। আর এবার লোকসভা নির্বাচনের মরসুমে সেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়েরই হাতে তৈরি প্রকল্প উৎকর্ষ বাংলা সেরার সেরা তকমা পাওয়ায় বিরোধীদের অনুন্নয়নের তত্ত্ব অনেকটাই ভোঁতা হয়ে গেল বলে মত রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের।

জানা গেছে, ডব্লুএসআইএস 2019 এর প্রতিযোগিতায় 18 টি ক্যাটাগরিতে বিশ্বের মোট 1062 টি মনোনয়ন জমা পড়েছিল। যেখানে ক্যাপাসিটি বিল্ডিংয়ে অংশগ্রহণের পাশাপাশি 7 নম্বর ক্যাটাগরি ই-গভর্নর্মেন্টে রাজ্য সরকার সবুজসাথী প্রকল্প নিয়ে অংশগ্রহণ করেছিল।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

আর বুধবার সুইজারল্যান্ডের রাজধানী জেনেভায় এই প্রতিযোগিতায় পুরস্কার প্রাপকদের মধ্যে উৎকর্ষ বাংলার নাম উঠে আসার সাথে সাথেই নির্বাচনী প্রচারে দার্জিলিঙে থাকা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সারা রাজ্যের মানুষকে সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ব্যাপারটি জানিয়ে দেন।

সোশ্যাল মিডিয়ার মুখ্যমন্ত্রী লেখেন, “উৎকর্ষ বাংলা প্রকল্পে প্রতিবছর 6 লক্ষ বেকার যুবক-যুবতী কর্মসংস্থান কেন্দ্রিক স্কিল ডেভেলপমেন্ট ট্রেনিং নিচ্ছে। সবুজ সাথী প্রকল্পে এখনও পর্যন্ত প্রায় এক কোটি সাইকেল বিলি করা হয়েছে। যারা এই সমস্ত প্রকল্পের সাথে যুক্ত, তাদের সকলকে অভিনন্দন রইল। জয় হোক মা-মাটি-মানুষের।”

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে যখন রাজ্যের শাসকদলের বিরুদ্ধে বিরোধীরা অনুন্নয়নকেই মূল হাতিয়ার করছে, ঠিক তখনই মুখ্যমন্ত্রীর এই উৎকর্ষ বাংলা এবং সবুজ সাথী প্রকল্প বিশ্বের দরবারে সমাদৃত হাওয়ায় তৃণমূল এবার সেই বিরোধীদেরকেই পাল্টা খোঁচা দেওয়ার রাস্তা পেয়ে গেল বলে মত ওয়াকিবহাল মহলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!