এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > কাটমানি ও তোলাবাজির বিস্ফোরক অভিযোগ মমতা ঘনিষ্ঠ ডাক্তারের বিরুদ্ধে

কাটমানি ও তোলাবাজির বিস্ফোরক অভিযোগ মমতা ঘনিষ্ঠ ডাক্তারের বিরুদ্ধে


লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের খারাপ ফলাফলের জন্য যে নিচুতলার নেতাকর্মীদের দুর্নীতিই দায়ী তা বুঝে গিয়েছিলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তাইতো ফলাফল পর্যালোচনা বৈঠকে সেই নেতাকর্মীদের স্বচ্ছ থাকার নির্দেশ দেন তিনি। শুধু তাই নয়, সম্প্রতি নজরুল মঞ্চে দলীয় কাউন্সিলরদের নিয়ে বৈঠকে এই ব্যাপারে রীতিমতো কড়া মনোভাব দেখান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

কোনো নেতা যদি কারও কাছে কাটমানি নিয়ে যান, তাহলে তাকেই তা ফেরত দিতে হবে বলে জানিয়ে দেন তৃনমূল নেত্রী। আর এই ঘটনার পরই রাজ্যজুড়ে তীব্র উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। বিভিন্ন জায়গায় একাধিক তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে কাটমানি খাওয়ার অভিযোগ তুলে সরব হন সাধারণ মানুষ।

কিন্তু এবার তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ তথা কলকাতা পৌরসভার তিন নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত ডাক্তার শান্তনু সেনের বিরুদ্ধেই সেই কাটমানি খাওয়ার অভিযোগ উঠল।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

সূত্রের খবর, দমদমের সিঁথি এলাকার বাসিন্দা প্রোমোটার সুমন্ত চৌধুরী তৃনমূলের শান্তনু সেনের বিরুদ্ধে কয়েক দফায় প্রায় 40 থেকে 42 লক্ষ টাকা তোলা তোলার অভিযোগ করেছেন।

এদিন এই প্রসঙ্গে অভিযোগকারী সুমন্ত চৌধুরী বলেন, “2012 সাল থেকে শান্তনু সেনকে আমি তোলার টাকা দিয়ে আসছি। 25 হাজার টাকা তোলা নিয়ে উনি হাতেখড়ি করেন, টাকা কেন দেব, তা জানতে চাইলে গাড়ি ভাড়া, মাইক লাগানোর খরচ হয়েছে, তাই দিতে হবে বলে জানান।”

এমনকি কাঠা প্রতি প্রায় 2 লক্ষ টাকা নেওয়ার অভিযোগ ওঠে তৃণমূলের এই রাজ্যসভার সাংসদের বিরুদ্ধে। তবে এতদিন এই ব্যাপারে মুখ খোলার কোনো সাহস না পেলেও সম্প্রতি তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সকল দলীয় নেতাদের উদ্দেশ্যে কাটমানি খেলে সাধারণ মানুষকে তা ফেরত দিতে হবে বলে জানালে এদিন সেই ব্যাপারে আশ্বস্ত হয়ে শান্তনু সেনের কুকীর্তি ফাঁস করেন সুমন্ত চৌধুরী।

তবে শান্তনু সেনের হাতে সরাসরি তিনি এই তোলার টাকা না দিলেও দু নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পুস্পালি সিংহর কাছে তিনি এই তোলার টাকা পৌঁছে দিয়েছেন বলে জানান এই প্রোমোটার। এমনকি পুষ্পালি সিংহও সুমন্তবাবুকে হুমকি দেন বলে অভিযোগ।

তবে এবার প্রোমোটার সুমন্ত চৌধুরী তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ তথা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত শান্তনু সেনের বিরুদ্ধে কাটমানি খাওয়ার অভিযোগ তোলায় তৃণমূল যে এবার অনেকটাই অস্বস্তিতে পড়তে চলেছে, সেই ব্যাপারে একপ্রকার নিশ্চিত বিশেষজ্ঞ মহল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!