এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ক্যানিংয়ের সভায় থেকে মমতাকে তীব্র আক্রমণ অমিত শাহের

ক্যানিংয়ের সভায় থেকে মমতাকে তীব্র আক্রমণ অমিত শাহের

এবারের লোকসভা নির্বাচনে বাংলার প্রতি বাড়তি নজর দিয়ে নির্বাচনের দামামা বাজার পর থেকেই একাধিকবার বাংলায় এসে গেরুয়া ঝড় তুলেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি থেকে শুরু করে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। ইতিমধ্যেই ষষ্ঠ দফার নির্বাচন শেষে বাংলা থেকে বিপুলসংখ্যক আসন নিজেদের ঝুলিতে পড়ার ব্যাপারে বিজেপি নেতাদের গলায় আত্মবিশ্বাসের সুর শুনতে পাওয়া যাচ্ছে।

তবে কি হবে, কোন দল বাংলায় এবার শেষ হাসি হাসবে! তা নিয়ে যখন রাজনৈতিক মহলে চুলচেরা বিশ্লেষন চলছে, ঠিক তখনই ফের বঙ্গ সফরে এসে তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। প্রসঙ্গত, এদিন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতির বারুইপুরের সভা করার কথা ছিল। কিন্তু তা বাতিল হয়ে যাওয়ার পরই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে গোটা পরিস্থিতি।

অভিযোগ, বারুইপুরের আটঘরা মাঠে যেখানে অমিত শাহের সভা হওয়ার কথা ছিল এবং তা বাতিল হয়, তার পাশ দিয়ে দিন তৃণমূলের মিছিল যাওয়ার সময় তৃণমূল এবং বিজেপির মধ্যে তুমুল বচসা শুরু হয়। যা হাতাহাতির রুপ পর্যন্ত নেয়। আর বারুইপুরে তার সভা বাতিল হয়ে গেলে এদিন ক্যানিংয়ের সভা থেকে সেই প্রসঙ্গ তুলে ধরে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের প্রতি কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, “মমতার সরকার অনুমতি না দেওয়ার জন্যই এই সভা বাতিল করতে হয়েছে। কিন্তু সভার অনুমতি না দিন, কথা বলতে না দিন, এসব করে কিছুই হবে না। মানুষ আমাদের সঙ্গেই রয়েছে।” এদিকে সম্প্রতি রাজ্যের বিভিন্ন নির্বাচনী জনসভা থেকে কেন্দ্রের শাসক দল বিজেপির নেতা মন্ত্রীদের উদ্দেশ্যে হুংকার দিয়ে তৃণমূল নেত্রীকে বলতে শোনা গেছে, “সময়মতো ইঞ্চিতে ইঞ্চিতে সকলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

আর এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই বক্তব্যেরই পাল্টা রাজ্যের শাসকদলের উদ্দেশ্যে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ বলেন, “ক্ষমতা থাকলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমাকে গ্রেপ্তার করে দেখান।” শুধু তাই নয়, আগামী 23 মে বাংলার মানুষ দিদিকে যোগ্য জবাব দেবে বলেও এদিন আত্মবিশ্বাসের সুর শোনা গেছে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতির গলায়।

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, বাংলায় এবারের লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল বনাম বিজেপির জমজমাট লড়াই উপভোগ করছে সকলেই। একে অপরকে উদ্দেশ্য করে কড়া ভাষায় আক্রমণ করতেও দেখা যাচ্ছে দুই দলের হেভিওয়েট নেতা নেত্রীদের।

আর এরই মাঝে বাংলায় তার সভা বাতিল হয়ে যাওয়া নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহর ছোড়া চ্যালেঞ্জ দেখে অনেকেই মনে করছেন যে, এবার হয়ত বা বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের “চলো পাল্টাই” স্লোগানটা কিছুটা হলেও বাস্তবে কার্যকর হতে চলেছে বঙ্গ রাজনীতিতে। তবে কি হবে, তা দেখবার জন্য অপেক্ষা করতেই হবে আগামী 23 মে ভোটবাক্স খোলা পর্যন্ত।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!