এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > নোবেলজয়ীর বাড়িতে মুখ্যমন্ত্রী, কী বার্তা দিলেন

নোবেলজয়ীর বাড়িতে মুখ্যমন্ত্রী, কী বার্তা দিলেন



অমর্ত্য সেনের পর অর্থনীতিতে নোবেল পেলেন বঙ্গসন্তান অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়। যে ঘটনায় গোটা বাংলা উচ্ছাস ও আবেগে মেতে উঠতে শুরু করেছে। অভিজিতবাবুর নোবেল জয়ের খবর শুনেই তাঁকে শুভেচ্ছা জানিয়ে ছিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে শুধু শুভেচ্ছা জানানোই নয়, এবার সটান সেই অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায় এর হিন্দুস্থানের বাড়িতে পৌঁছে গেলেন মুখ্যমন্ত্রী।

সূত্রের খবর, বুধবার ক্যাবিনেট বৈঠক শেষ করে বাংলার এই নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদের বাড়িতে যান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যেখানে তার সাথে ছিলেন রাজ্যের স্বরাষ্ট্রসচিব আলাপান বন্দ্যপাধ্যায়, তথ্য-সংস্কৃতি দপ্তরের মন্ত্রী ইন্দ্রনীল সেন এবং পুলিশ কর্তারা। অভিজিতবাবুর বাড়িতে ঢুকেই তার মা নির্মলা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বেশ কিছুক্ষণ কথা বলতে দেখা যায় রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধানকে।

প্রায় কুড়ি মিনিট ধরে আলোচনায় নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়ের মায়ের কাছে দারিদ্র্য দূরীকরণ নিয়ে রাজ্য সরকারের সঙ্গে আলোচনার ব্যাপারে আবেদন জানান মুখ্যমন্ত্রী। জানা গেছে, চলতি মাসের শেষেই কলকাতায় আসবেন অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়। তখন যাতে তার সাথে দেখা করা যায়, সেই ব্যাপারে এদিন তাঁর বাড়িতে গিয়ে তার মায়ের কাছে আগাম ইচ্ছা প্রকাশ করতে দেখা গেছে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এদিন এই প্রসঙ্গে প্রায় কুড়ি মিনিট ধরে নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদের মায়ের সঙ্গে কথা বলে বাইরে বেরিয়ে এসে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “একজন বাঙ্গালী নোবেল জয় করেছেন, তাতে আমি ভীষণ গর্বিত। অভিজিৎ এবং তার মাকে শুভেচ্ছা জানাই। দারিদ্র্য দূরীকরণের পন্থা নিয়ে আমার সঙ্গে নির্মলাদেবীর কথা হয়েছে। রাজ্যের গরিব মানুষের সুবিধার জন্য নানা প্রকল্প রয়েছে। তাই আমি চাই অর্থনীতির সঙ্গে জড়িত নির্মলাদেবীকে নানা প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত করতে। এই বিষয়ে প্রশাসনিক আধিকারিকরা নির্মলাদেবীর সঙ্গে কথা বলবেন।”

বস্তুত, বরাবরই বাংলার কৃষ্টি, সংস্কৃতি নিয়ে গর্ববোধ করতে দেখা যায় প্রশাসনিক প্রধানকে। আর এবার বাংলা থেকে অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায় নোবেল পাওয়ায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কিছুটা হলেও গর্ববোধ করতে শুরু করেছেন। আর এই পরিস্থিতিতে এবার একদিকে যেমন সেই নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদকে শুভেচ্ছা জানালেন তিনি, আবার অন্যদিকে দারিদ্র দূরীকরণে রাজ্য সরকারের যে সমস্ত প্রকল্প রয়েছে, সেই প্রকল্পের সাথে সাথে সেই অর্থনীতিবিদের পরিবারকে যুক্ত করে রাজ্যকে যাতে আরও উন্নতির পথে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায়, তারও প্রস্তাব দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!