এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > মালদাতে শুরু মৌসম-ম্যাজিক! মমতার অনুপ্রেরণায় বড় ভাঙন বিজেপি-কংগ্রেসে

মালদাতে শুরু মৌসম-ম্যাজিক! মমতার অনুপ্রেরণায় বড় ভাঙন বিজেপি-কংগ্রেসে

2019 এর লোকসভা ভোটের পর থেকেই দলবদল এর প্রবণতা অনেক বেশি করে লক্ষ্য করা যায়। পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে লোকসভা ভোটের পর শাসক শিবির থেকে অনেক নেতা কর্মীরা বিজেপি দলে যোগদান করেন। কিন্তু পরবর্তীতে ছবি আবার পরিবর্তন হয়। বিজেপি থেকে আবার শাসক দলে ফিরতে শুরু করে দলবদলকারীরা। তবে, এবার মালদায় মৌসম নুর এর হাত ধরে বিজেপি এবং কংগ্রেস থেকে প্রায় 300 জন কর্মী তৃণমূলে যোগদান করলেন। এই ঘটনায় রাজনৈতিক মহলে জোরদার আলোচনা শুরু হয়েছে। মালদা বরাবরই কংগ্রেসের শক্ত ঘাঁটি বলে পরিচিত। এদিকে লোকসভা নির্বাচনে সেখানে বিজেপিও বেশ ভালোই ফল করে। অতএব সেই জায়গা থেকে তৃণমূল কংগ্রেসের সংগঠনের জোরে এত বড় সাফল্য যথেষ্ট উল্লেখযোগ্য বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

মালদা জেলায় তৃণমূল কংগ্রেস বরাবরই পিছিয়ে। কিন্তু পিছিয়ে থেকেও এবার মালদায় তৃণমূল জেলা সভাপতি মৌসম বেনজির নুর এর হাত ধরে সামনে এগিয়ে এলো তৃণমূল-কংগ্রেস। কারণ রবিবার তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করলেন প্রায় 300 জন কর্মী। এরা প্রত্যেকেই কংগ্রেস ও বিজেপির দল ছেড়ে এসেছেন বলে দাবি করা হয়েছে। ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে শাসক দলের দাবি, রবিবারের এই দলবদল এর ফলে কংগ্রেস এবং বিজেপিকে রাজনৈতিকভাবে বড় ধাক্কা দেওয়া গেল।

প্রশ্ন উঠেছে, এভাবে কংগ্রেস বা বিজেপি ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে বিপুল পরিমাণে যোগদান করার কারণ কি? যাঁরা দলবদল করলেন, তাঁদের প্রত্যেকের মুখেই একটাই উত্তর, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের সঙ্গে তাঁরা উন্নয়নের কাজে সামিল হতে চান। তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার পর ওই 300 কর্মীর হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন প্রাক্তন কংগ্রেস সাংসদ তথা বর্তমানে মালদা তৃণমূল জেলা সভাপতি মৌসম বেনজির নুর। তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদানের পর নতুন কর্মীদের স্বাগত জানিয়ে মৌসম বেনজির নুর জানিয়েছেন, আগামী দিনে সবাই একসাথে মালদার উন্নয়নের পথে শরিক হবেন।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

প্রসঙ্গত, এই দলবদলের ব্যাপারটি ঘটে রতুয়া 2 এর মির্জাপুরের একটি কমিউনিটি ডেভেলপমেন্ট অনুষ্ঠানে। উল্লেখ্য, সম্প্রতি রাজ্যের তিনটি বিধানসভায় উপনির্বাচন হয়। এবং এই উপনির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস দুর্দান্ত সাফল্য অর্জন করে। লোকসভা নির্বাচনের পর যেখানে তৃণমূল কংগ্রেস অনেকটাই পিছিয়ে ছিল, সেখানে তাঁরা আবার রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটের সামনে সারিতে চলে আসে। অন্যদিকে, বিজেপি, কংগ্রেস ও বাম জোট অনেকটাই পিছিয়ে থাকে তৃণমূল কংগ্রেসের থেকে এই উপনির্বাচনে।

এই ঘটনায় রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের দাবি, সম্প্রতি হয়ে যাওয়া বিধানসভা উপ নির্বাচনের ফলের ওপর নির্ভর করেই মালদা জেলায় বিপুল পরিমাণ দলবদল ঘটেছে। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে রাজনৈতিক মহলের একাংশের দাবি, কংগ্রেস ও বিজেপি থেকে যে বিপুল পরিমাণ সদস্যরা তৃণমূলে যোগদান করলেন, তাতে তৃণমূলের শক্তি বেশ কিছুটা বেড়ে গেল। অন্যদিকে, এই দলবদল এর পরে যথারীতি মালদহের কংগ্রেস ও বিজেপি শিবিরে চিন্তার ভাঁজ। যদিও এখনো পর্যন্ত দুই দলেরই নেতৃত্বের পক্ষ থেকে কোনো প্রতিক্রিয়া জানানো হয়নি। সমগ্র পরিস্থিতির ওপর নজর রাখছে রাজ্যের রাজনৈতিক মহল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!