এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > পুরোনো গড় মালদায় ঘুরে দাঁড়াতে সামনেই বড়সড় পদক্ষেপ নিতে চলেছে কংগ্রেস – জানুন বিস্তারিত

পুরোনো গড় মালদায় ঘুরে দাঁড়াতে সামনেই বড়সড় পদক্ষেপ নিতে চলেছে কংগ্রেস – জানুন বিস্তারিত

 

উত্তরবঙ্গে দক্ষিণপন্থী তথা কংগ্রেসী রাজনীতির অন্যতম শক্ত ঘাঁটি হিসেবেই পরিচিত ছিল মালদা জেলা। কিন্তু সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে মালদহের দুটি আসনেই কংগ্রেস প্রভাব ফেলতে পারে বলে রাজনৈতিক মহলের একাংশ মনে করলেও দক্ষিণ মালদহ কংগ্রেস প্রার্থী জিতেছেন ঠিকই।

কিন্তু উত্তর মালদহে আশ্চর্যজনকভাবে কংগ্রেসকে পরাজিত করে বিজয়ী হয়েছেন বিজেপি প্রার্থী খগেন মুর্মু। যার ফলে কংগ্রেসিদের বেল্ট হিসেবে পরিচিত মালদহে হাত শিবিরের অস্তিত্ব কার্যত ধ্বংসের মুখে এগোচ্ছে বলে মনে করেছিল একাংশ। কিন্তু নিজেদের গড় ধরে রাখতে এবং সংগঠনকে চাঙ্গা করতে এবার মালদহ জেলায় এক অভিনব পদক্ষেপ নিল কংগ্রেস পার্টি।

বস্তুত, বর্তমানে সারা দেশজুড়ে অর্থনৈতিক মেরুদণ্ড ভেঙে পড়েছে বলে মাঝেমধ্যেই কেন্দ্রের ক্ষমতায় থাকা বিজেপির বিরুদ্ধে সরব হচ্ছে কংগ্রেস হাইকমান্ড। আর কংগ্রেস হাইকমান্ডের শিশুটিকে নিজেদের গলার মধ্যে দিয়ে তুলে ধরে বিজেপি বিরোধিতার মধ্যে দিয়ে প্রয়াত প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর কৃতিত্বকে তুলে ধরে গেরুয়া ঝড়কে ফিকে করতে চাইছে মালদহ জেলা কংগ্রেস।

সূত্রের খবর, ইন্দিরা গান্ধীর 35 তম প্রয়াণ বার্ষিকীকে সামনে রেখে দেশের বর্তমান আর্থিক পরিস্থিতি নিয়ে অর্থনীতির সঙ্গে যুক্ত মানুষদের মাধ্যমে আগামী 31 অক্টোবর থেকে এই কর্মসূচি মালদহ জেলা জুড়ে চালানোর পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। এদিন এই প্রসঙ্গে মালদহ জেলা কংগ্রেসের সভাপতি তথা কংগ্রেস বিধায়ক মোস্তাক আলম বলেন, “ইন্দিরা গান্ধী শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে দেশের হয়ে লড়াই করে শহীদ হয়েছিলেন।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

একদিকে তিনি যেমন সাম্প্রদায়িক শক্তির বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়েছিলেন, তেমনই দেশের সাধারন মানুষদের স্বার্থে ব্যাংক জাতীয়করণের মত ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। এই বছর তার 35 তম প্রয়াণ বার্ষিকী। দেশ এক ভয়াবহ সঙ্কটের মধ্যে দিয়ে চলছে। তাই আমরা ইন্দিরা গান্ধীর মৃত্যু দিনটিকে সচেতনতা কর্মসূচি শুরু করার জন্য বেছে নিয়েছি। আমরা 146 টি গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রতিটি অঞ্চলে মিছিল করব। দেশের অর্থনৈতিক বেহাল দশার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের ভুল নীতিই দায়ী। আমরা মানুষকে বিভিন্ন জনসভা, পথসভা এবং সেমিনারের মাধ্যমে বোঝানোর চেষ্টা করব।”

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের একাংশ বলছেন, মালদহ জেলা কংগ্রেসের অত্যন্ত শক্তিশালী গড় হওয়ায় এবার লোকসভা নির্বাচনে কংগ্রেস এখানে কিছুটা পর্যদুস্ত হওয়ার পর ইন্দিরা গান্ধীর মৃত্যুদিনকে পালনের পাশাপাশি বিজেপির বিরুদ্ধে দেশের অর্থনৈতিক মেরুদণ্ড ভেঙ্গে দেওয়ার অভিযোগ তুলে সমাজের বিশিষ্টজনেদের নিজেদের মঞ্চে এনে সাধারণ মানুষের ভাবাবেগকে নিজেদের দিকে টানতে চাইছে হাত শিবির বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

যদিওবা কংগ্রেসের এহেন কর্মসূচিকে গুরুত্ব দিতে নারাজ বিজেপি। এদিন এই প্রসঙ্গে মালদহ জেলা বিজেপির সভাপতি গোবিন্দ মন্ডল বলেন, “কংগ্রেস এখন খড়কুটো আঁকড়ে বাঁচতে চাইছে। প্রায় 60 বছর ধরে দেশের অর্থনীতির মেরুদণ্ড কারা ভেঙে দিয়েছিল, তা সাধারণ মানুষ জানেন। তাই কংগ্রেসের এই প্রচারে কোনো লাভ হবে না।” কিন্তু বিজেপি সভাপতি এই কথা বললেও ইন্দিরা গান্ধীর প্রয়াণ দিবসকে কেন্দ্র করে মালদহ জেলাজুড়ে কংগ্রেসের এই প্রচার কর্মসূচী ঠিক কতটা কাজে দেয়, এখন সেদিকেই তাকিয়ে গোটা মালদাবাসী।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!