এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মাঝেরহাট ব্রিজ ভাঙা প্রসঙ্গে কে কি বললেন জেনে নিন

মাঝেরহাট ব্রিজ ভাঙা প্রসঙ্গে কে কি বললেন জেনে নিন



আবার এক মর্মান্তিক সেতু দুর্ঘটনার কবলে শহর কলকাতা। আজ বিকালে হঠাৎই হুড়মুড় করে ভেঙে পড়ল শহরের অন্যতম ব্যস্ত মাঝেরহাট ব্রিজের একাংশ। এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত অন্তত ৫ জনের মৃত্যুর খবর জানা যাচ্ছে – তবে এই সংখ্যা বাড়তে পারে বলেও মনে করা হচ্ছে। কেননা আহতের সংখ্যা নিয়ে সঠিক তথ্য কিছু পাওয়া যাচ্ছে না – তবে সংখ্যাটা বেশ বড় বলেই স্থানীয় সূত্রে জানা যাচ্ছে।

এই প্রসঙ্গে সংবাদমাধ্যমকে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, গুরুত্ব দিয়ে বিপর্যয় মোকাবিলায় পদক্ষেপ করা হচ্ছে। একজনের মৃত্যু হলেও সেটা দুঃখজনক। আমার মন পড়ে রয়েছে মাঝেরহাটে। বাংলার মানুষ বিপদে পড়েছেন কিনা তা নিয়ে খোঁজখবর নিচ্ছি। ঘটনাস্থলে প্রতিনিধি পাঠিয়েছি। দ্রুত উদ্ধারকাজ করতে বলেছি। দ্রুত সেখানে পৌঁছনোর চেষ্টাও করছি।

এনিয়ে মুখ খুললেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। তিনি সরাসরি এই দুর্ঘটনার জন্য মুখ্যমন্ত্রী এবং রাজ্য সরকারকে দায়ী করলেন। তিনি জানালেন যে, এই এই দুর্ঘটনার জন্য মুখ্যমন্ত্রী এবং রাজ্য সরকার দায়ি।মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে তোপ দেগে বললেন যে তিনি শুধু শহরের সৌন্দর্যের কথা বলে চলেছেন কিন্তু পুরানো নির্মাণগুলির যে মেরামতের দরকার সে কথা মাথায় নেই তাঁর। আর তাই এই দুর্ঘটনার দায় সম্পূর্ণভাবে রাজ্য সরকারের নেওয়া উচিত।

মুখ খুলেছেন বিজেপি নেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায়ও।তিনিও রাজ্যসরকারকেই দায়ী করে জানালেন যে রাজ্য সরকার শুধু নীল সাদা রং করবে। একটা ব্রিজ ভাঙার পরও এদের শিক্ষা হয় না। পাশাপাশি তিনি জানালেন দ্বিতীয়বার আবার এই ঘটনার সম্মুখীন হতে হবে, পশ্চিমবঙ্গের মানুষ এটা মেনে নিতে পারে না।এছাড়াও এই উদ্বেগজনক পরিস্থিতিতে রাজনীতি ভুলে সব দলের নেতা নেত্রীদের এক হয়ে মানুষের পশে দাঁড়ানোর জন্য আহ্বান জানালেন। তিনি বললেন যে আমার মনে হয় সব রাজনীতি ভুলে গিয়ে মানুষের প্রাণ বাঁচানো আগে দরকার।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

চুপ থাকেন নি বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু। এই ঘটনা নিয়ে তিনিও দুঃখপ্রকাশ করেছেন। পাশাপাশি সমবেদনাও জানিয়েছেন। অবশ্য তিনি এই ব্যাপারে কাউকে দায়ী করেন নি শুধুমাত্র তদন্ত করার দাবি জানিয়েছেন। তিনি বলেন যে,কী কারণে এমন হল তা তিনি বলতে পারবেন না। তিনি বিরোধী রাজনীতি করেন বলে যা খুশি বলতে পারেন না। তবে কী কারণে এই দুঘটনা ঘটল তার তদন্ত করা উচিত।

বিধানসভার বিরোধী দলনেতা আবদুল মান্নান এই প্রসঙ্গে জানান যে যদিও সব ব্রিজ এই সরকার তৈরি করেনি তবু তাদের ব্রিজগুলি ভালোভাবে দেখভাল করা উচিত ছিল। মুখ্যমন্ত্রীর শুধু দূর থেকে সমবেদনা জানালেই হবে না। শুধু ক্ষতিপূরণ দিলেই চলবে না। দায়িত্বপ্রাপ্ত যে অফিসাররা সঠিকভাবে দেখাশোনা করেননি তাঁদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে। সাথেই প্রশ্ন তুললেন যে মুখ্যমন্ত্রীর দপ্তরের বাকি মন্ত্রীরা কী করছেন ? পাশাপাশি জানালেন যে তাঁরা ঘটনাস্থানে যাচ্ছেন ও আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করছেন।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!