এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > সিঙ্গুরের পর এবার মাঝেরহাটের ৮ কোটিও তড়িঘড়ি ঠিকাদারদের দিয়ে বিতর্কে কলকাতা পুরসভা

সিঙ্গুরের পর এবার মাঝেরহাটের ৮ কোটিও তড়িঘড়ি ঠিকাদারদের দিয়ে বিতর্কে কলকাতা পুরসভা

বর্তমানে এই রাজ্যের কোষাগারে চলছে ভাঁড়ে মা ভবানী দশা। আর এই তীব্র অর্থ সংকটের মধ্যেই মাঝেরহাট ব্রিজের বিকল্প রাস্তা তৈরি এবং নিকাশি ব্যবস্থার কাজের জন্য ঠিকাদার সংস্থাগুলিকে 8 কোটি টাকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল কলকাতা পুরসভা।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত 4 সেপ্টেম্বর বিকেলবেলা হঠাৎই ভেঙে পড়ে কলকাতার এই মাঝেরহাট ব্রিজ। আর যে ঘটনায় মৃত্যু হয় পাঁচ জন ব্যক্তির। ইতিমধ্যেই এই ব্রিজ ভেঙে পড়ায় যখন তীব্র অস্বস্তিতে কলকাতা পৌরসভা ঠিক তখনই এত কোটি টাকা ব্রিজের রক্ষণাবেক্ষণে দেওয়ায় কপালে প্রবল চিন্তার ভাঁজ পুরসভার আধিকারিকদের।

জানা গেছে, গত 11 অক্টোবর কলকাতা পুরসভার মেয়র পরিষদের এক বৈঠকে একটি প্রস্তাব পাস হয়েছিল। যেখানে স্পষ্ট ভাবে বলে দেওয়া হয়েছিল যে, এই ব্রিজ ভেঙে পড়ার পর বিভিন্ন ঠিকাদারি সংস্থাকে পরিষেবা সংক্রান্ত কাজের জন্য 8 কোটি 3 লক্ষ 61 হাজার 235 টাকা 67 পয়সা মেটাতে হবে। আর এইখানেই তৈরি হয়েছে তীব্র বিতর্ক। কেননা ঠিকাদারি সংস্থাগুলিকে পুর কোষাগার থেকে কেন টাকা দেওয়া হবে তা নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন একাংশ আধিকারিকেরাই। এর উদাহরণ হিসেবে অনেকে আবার সিঙ্গুরে কাজ করা ঠিকাসংস্থার কর্মীদের অর্থ দেওয়া নিয়ে বিতর্কটাকেও সামনে রাখছেন।

পূর্ত দপ্তরের অধীনস্থ ব্রিজ হওয়া সত্ত্বেও কেন পরিষেবা সংক্রান্ত সমস্ত খরচ বইতে হবে পুরসভাকে তা বুঝে পাচ্ছেন না অনেকেই। তবে সরকারের তরফে বলা হয়েছে যে এই টাকা মিটিয়ে দেওয়া হবে। কিন্তু ঠিক কবে তা মেটানো হবে তা নিয়ে সংশয় রয়েই যাচ্ছে। ইতিমধ্যেই এই ব্রিজ ভেঙে পড়ার পর যানজট যাতে না হয় সেই কারণে সিভিল ও সড়ক বিভাগের অধীনে বিকল্প রাস্তা বের করতে বাতিস্তম্ভ স্থানান্তর, একাধিক রাস্তা মেরামতি সহ পিচের প্রলেপ দেওয়ার মতো কাজ শুরু করে পৌরসভা। এমনকি বিকল্প রাস্তা বা সড়ক সংস্কার করার জন্য নিকাশি নালা বন্ধ করে নয়া নিকাশি ব্যবস্থাও করেছে পুরসভা।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

পাশাপাশি পিপিপি বিভাগের অধীনে ব্রিজের ধ্বংসস্তূপ সরানোর জন্য গ্যাস কাটারের কাজও চলছে বিগত এক থেকে দেড় মাস সময় ধরে। আর এহেন একটা পরিস্থিতিতে এই পরিষেবার কাজের জন্য মেয়র পরিষদের বৈঠকে 4 কোটি 84 লক্ষ 56 হাজার 403 কোটি টাকা বরাদ্দ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পৌরসভা। কিন্তু এত টাকা দিলেও শেষ পর্যন্ত তা কবে কলকাতা পুরসভার কাছে ফেরত আসবে এখন তা নিয়েই তৈরি হয়েছে তুমুল বিতর্ক।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!