এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > আন্দোলনের জেরে আবার উত্তাল মহারাষ্ট্র, চিন্তা ক্রমশ গভীর হচ্ছে গেরুয়া শিবিরের

আন্দোলনের জেরে আবার উত্তাল মহারাষ্ট্র, চিন্তা ক্রমশ গভীর হচ্ছে গেরুয়া শিবিরের

চাকরি ও শিক্ষায় সংরক্ষণের দাবিতে উত্তাল হয়ে উঠলো মহারাষ্ট্র। মূলতঃ রাজস্থানের জাঠ সংরক্ষণ আন্দোলনকে অনুসরন করেই ওবিসি কোটায় সংরক্ষণের দাবিতে পথে নামলেন মহারাষ্ট্রবাসীরা। এরমধ্যেই আন্দোলনরত এক ছাত্র সরকারের এই আন্দোলনের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষন করার লক্ষ্যে ঔরঙ্গাবাদে গোদাবরী নদীতে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। এই ঘটনা স্বভাবিকভাবেই পরিস্থিতিকে আরও জটিল করে দিয়েছে।

বিপাকে পড়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবীশ সহ তাঁর মন্ত্রীসভা। রাজ্যের বিচ্ছিন্ন অংশে আন্দোলনকারীরা বিক্ষোভ শুরু করেছে। রাস্তা অবরোধ , গাড়িতে অগ্নি সংযোগের মতো ঘটনাও ঘটেছে। মঙ্গলবার মুম্বই এবং থানে বাদ দিয়ে রাজ্যজুড়ে বন্‌ধ পালিত হয়েছে। হিংসার ঘটনা ক্রমেই বৃদ্ধি পাচ্ছে দেখে রাজ্যের পরিবহণ বিভাগ ঔরঙ্গাবাদ-পুনে বাস পরিষেবা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

গত সোমবার থেকেই অন্যন্য অনগ্রসর জনজাতির সংরক্ষণের দাবিতে মারাঠা ক্রান্তি মোর্চা পরভনী জেলায় আহমেদনগর-ঔরঙ্গাবাদ সড়ক অবরোধ করে রাখে। একই সাথে অভিযোগ উঠেছে এদিনের আন্দোলনকারীদের অবরোধ এবং বিক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ হিসেবে পুলিশের গাড়ি ও যাত্রীবাহী বাস সহ-বেশ কিছু যানবাহনে ভাঙচুর চালানো হয়েছে । আন্দোলনকারীদের পক্ষ থেকে এখন দাবি জানানো হচ্ছে যে সরকারী ভাবে এখনই মারাঠিদের জন্য এখনই শিক্ষা ও সরকারি চাকরিতে ১৬ শতাংশ সংরক্ষণের ঘোষণা করতে হবে। এবং আন্দোলনরত আত্মহননকারী যুবক  কাকাসাহেব শিন্ডের পরিবারকে ৫০ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হবে ।

একই সাথে মৃত যুবককে শহীদের সম্মান দিতে হবে। এমনকি তারা দাবি মেনে নেওয়া না পর্যন্ত মৃতের অন্তিম কাজ করা হবে না বলেও হুঁশিয়ারী দিয়েছে। এদিকে রাজ্যের প্রশাসনের তরফ থেকে ঔরঙ্গাবাদের জেলাশাসক জানালেন মহারাষ্ট্র সরকার মারাঠা ক্রান্তি মোর্চার প্রায় সব দাবিই মেনে নিয়েছে। সরকার আত্মহননকারী যুবকের পরিবারকে ১০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণও দিয়েছে। তাঁর ভাইকে সরকারি চাকরি দেওয়া হবে বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

 

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!