এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মাদ্রাসা কেন্দ্রগুলিকে আর্থিক সহায়তা নিয়ে রাজ্য সরকারকে বড় নির্দেশ আদালতের

মাদ্রাসা কেন্দ্রগুলিকে আর্থিক সহায়তা নিয়ে রাজ্য সরকারকে বড় নির্দেশ আদালতের

Priyo Bandhu Media

২০১১ সাল থেকেই চরম দুর্ভোগ সহ্য করে আসছে রাজ্যের মাদ্রাসাগুলো। দীর্ঘদিন ধরে সরকারি অনুদান থেকে বঞ্চিত হচ্ছে এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো। এ নিয়ে তাঁরা বারবার রাজ্যসরকারের দ্বারস্থ  হলেও প্রতিশ্রুতিই মিলেছে প্রতিবার। কার্যকারি হয়নি কোনো সরকারি সাহায্য। ওয়েস্ট বেঙ্গল আনএডেড মাদ্রাসা বাঁচাও কমিটি এসব সমস্যা নিয়ে দিনের পর দিন আন্দোলন করেছে। এমনকি অনশনের পথেও হেঁটেছিলেন তাঁরা। তবে এবার তাঁদের ভাগ্যের চাকা ঘুরতে চলেছে। এদিন কোলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি প্রতীক প্রকাশ বন্দ্যোপাধ্যায়ের রায় তাঁদের পক্ষেই ছিল। তিনি রাজ্য সরকারকে নির্দেশ দিলেন যে আগামী ৪৮ ঘন্টার মধ্যে মাদ্রাসা গুলোর সমস্যার ব্যাপারে সঠিক পদক্ষেপ নিতে হবে। এছাড়া আগামী এক সপ্তাহের মধ্যেই সেরে ফেলতে হবে সরকারি সমস্ত প্রক্রিয়াগুলো।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

আদালতে বর্ধমানের আজাপুর চতুষ্পল্লি হাই মাদ্রাসার তরফের আইনজীবী আবু সোহেল জানান যে, ২০১১ সালে তৃণমূল সরকার অনুদানবিহীন অবস্থায় চলা ২৩৪ টি মাদ্রাসাকে সরকারিভাবে আর্থিক সাহায্য দেওয়ার জন্যে একটি নির্দেশিকাও জারি করেছিল। কিন্তু তা আসলে কার্যকর হয়নি। তারপরই আন্দোলনের পথে নামে মাদ্রাসা বাঁচাও কমিটি। এরপর ২০১৩ সালে ফের একবার মাদ্রাসা অ্যাফেয়ার্স অ্যান্ড মাইনরিটি এডুকেশন দপ্তর নথিভুক্ত মাদ্রাসাগুলোকে অনুদান দেওয়ার পক্ষে নির্দেশ জারি করে। এই ইস্যুতে চিঠিও পাঠানো হয়েছিলো রাজ্যের জেলা শাসকদের। কিন্তু কোনো কারণের উল্লেখ ছাড়াও শুধুমাত্র পড়ুয়াদের বই ছাড়া আরো কিছুই দেওয়া হচ্ছে না। মিলছে না শিক্ষার্থীদের জন্য প্রচলিত সরকারি প্রকল্পের সাহায্যও। এমনকি মিড ডে মিলের খাবারটাও পাচ্ছে না পড়ুয়ারা। তবে এবার হাইকোর্টের কড়া নির্দেশ পেয়ে নিশ্চয়ই নড়ে চড়ে বসবে রাজ্য সরকার। মিলবে যাবতীয় সরকারি সাহায্যও। এমনটাই আশা রাখছেন ২৩৪ টি মাদ্রাসার কর্তৃপক্ষরা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!