এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > আমলাতান্ত্রিক স্বৈরতন্ত্র! আদালতের ক্ষোভে চরম বিপাকে মাদ্রাসা শিক্ষা দপ্তরের অধিকর্তা

আমলাতান্ত্রিক স্বৈরতন্ত্র! আদালতের ক্ষোভে চরম বিপাকে মাদ্রাসা শিক্ষা দপ্তরের অধিকর্তা

নদীয়ার দোগাছি এলাকার মাদ্রাসার শিক্ষক হিসাবে কাজে যোগ দেন আনিসুর রহমান ও আব্দুল মোমিন। মামলার বয়ান মোতাবেক দেখা গেছে যে সরকারের প্রথম সমীক্ষায় এই দুজনের নাম না থাকলেও 2013 সালে তাঁদের নাম খাতায় লিপিবদ্ধ হয়। জানা গেছে, শিক্ষক হিসেবে তাঁদের নাম সুপারিশ করা হলেও সরকার কোনোরুপ অনুমোদন না দেওয়ায় তাঁরা হাইকোর্টের শরনাপন্ন হলে কোর্টের তরফে সেই আবেদন বিবেচনার জন্য সরকারকে একটি নির্দেশ পাঠালেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি।

উল্টে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে মাদ্রাসা অধিকর্তা সেই আবেদন সম্পূর্নরুপে খারিজ করলে ফের আদালতের দ্বারস্থ হন তাঁরা। সূত্রের খবর, মামলার বয়ান অনুযায়ী সব কিছু খতিয়ে দেখে এই সম্পর্কে 15 ই জুন আদালতের তরফে মাদ্রাসা অধিকর্তার বক্তব্য জানতে চাওয়া হলেও 26 জুন পর্যন্ত কোনোরুপ জবাব মেলেনি। এদিকে কোনো জবাব না পেয়ে মাদ্রাসা অধিকর্তার এহেন আচরনে ক্ষুদ্ধ হয় আদালত

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

কিন্তু এরপরও শুধুমাত্র সরকারি আইনজীবির অনুরোধে সাড়া দিয়ে আরও দুই সপ্তাহ সময় বরাদ্দ করলেও পরবর্তী শুনানির দিন এজলাসে কোনো আমলাই উপস্থিত হননি। আর এ প্রসঙ্গে টেলিপোন মারফত ওই আমলাকে উপস্থিত হওয়ার কথা সরকারি আইনজীবী আদালতে উল্লেখ করলে ক্ষুদ্ধ বিচারপতি বলে ওঠেন, “একজন বর্ষীয়ান আইনজীবি পরিস্থিতির গুরুত্ব জানানো সত্তেও আমলা বিষয়টিকে পাত্তাই দেন না। আইনজিবীরা ভিক্ষুক নন।

ওই আমলা নিজে পদে থাকারই যোগ্য নন।” আর এই ঘটনাকে আমলাতান্ত্রিক স্বৈরতন্ত্র বলেও অভিহিত করেন বিচারক। মঙ্গলবার কোলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি প্রতীক প্রকাশ বন্দ্যোপাধ্যায় এই ঘটনায় এবার সেই আমলার বিরুদ্ধেই বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। এমনকী তাঁকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করার বিষয়ে সরকারি আইনজীবীকে রাজ্যের মুখ্যসচিব সহ সব দপ্তরকে অবহিত করবার নির্দেশও দিয়েছেন বিচারক। এখন দেখার আদালতের তরফে 15 দিনের সময়সীমা শেষের পর ঠিক কি সিদ্ধান্ত নেয় কোলচাতা হাইকোর্ট! সব মিলিয়ে হাইকোর্টের চালে চরম বিপাকে রাজ্যের মাদ্রাসার অধিকর্তা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!