এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > মধ্যমগ্রাম কাণ্ডে বিজেপিকেই কাঠগড়ায় তুললেন তৃণমূলের মন্ত্রী, জোর গুঞ্জন

মধ্যমগ্রাম কাণ্ডে বিজেপিকেই কাঠগড়ায় তুললেন তৃণমূলের মন্ত্রী, জোর গুঞ্জন

লোকসভা নির্বাচনের পরবর্তী সময়ে উত্তর 24 পরগনার বিভিন্ন এলাকা শাসক-বিরোধী সংঘর্ষে উত্তপ্ত হতে শুরু করে। সম্প্রতি মধ্যমগ্রামে শুটআউট কান্ডে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। যেখানে আহত হন তৃণমূলের যুব নেতা। আহত নেতার নাম বিনোদ সিং। আর এই ঘটনা নিয়েই এবার বিজেপিকে কাঠগড়ায় তুলে দিলেন উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলা তৃণমূলের সভাপতি তথা রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক।

সূত্রের খবর, এদিন এই ঘটনা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “টাকা নিয়ে কারও সঙ্গে ঝামেলা হতেই পারে। কিন্তু আমার তা জানা নেই। আমি জানি লোকে এটাকে অভ্যন্তরীণ সমস্যা বলবে। কিন্তু আমি বলব যে এর পেছনে বিজেপি রয়েছে।” অন্যদিকে এই ঘটনার পরই ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংহের বিবৃতি দেওয়া নিয়েও প্রশ্ন তোলেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। তিনি বলেন, “ব্যারাকপুরে সাংসদ কোনদিনই এই এলাকা ঘুরে দেখেননি। তবে সেখানে গিয়ে তিনি বিবৃতি কেন দিতে গেলেন! এই ঘটনায় যে পাঁচজনকে এখনও পর্যন্ত গ্রেফতার করা হয়েছে, তারা প্রত্যেকেই বিজেপি কর্মী।”

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

তবে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক যেভাবে এই গোটা ঘটনায় বিজেপিকে কাঠগড়ায় তুলছেন, বাস্তব কিন্তু বলছে অন্য কথা। জানা গেছে, এই মধ্যমগ্রাম শুটআউট কাণ্ডে মূলত যার বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে, সেই রাখাল নন্দী এলাকায় তৃণমূল কর্মী বলেই পরিচিত। ফলে জ্যোতিপ্রিয়বাবু যতই এই ব্যাপারে বিজেপির বিরুদ্ধে অভিযোগ করুন না কেন, তা যে তৃণমূলের দুই নেতার ব্যবসা নিয়ে বচসা এবং তার জেরেই এই ঘটনা, সেই ব্যাপারে নিশ্চিত প্রায় প্রত্যেকেই।

এদিকে এদিন এই মধ্যমগ্রামের প্রসঙ্গ তুলতে গিয়ে বিজেপি নেতা মুকুল রায়কেও কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। তিনি বলেন, “মুকুল রায় বাংলার 50 জন বিজেপি নেতার মধ্যে একজন নেতা। টাকা নিয়ে এত দুর্নীতি করেছে। যেটা আমাদের দল থেকে শুরু করেছিল। জানি না এখনও বিজেপি কেন ওকে রেখে দিয়েছে! আমাদের দল থেকে গেছে। পাপ মুক্ত হয়েছে।”

আপনার মতামত জানান -
Top